About Us
Md:Sorif Hossian - (Chandpur)
প্রকাশ ০৪/০৩/২০২১ ১০:৫৯পি এম

চাঁদপুরে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু

চাঁদপুরে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু Ad Banner

চাঁদপুরের হাইমচর উপজেলার উত্তর আলগী ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ড ছোট লক্ষীপুর গ্রামের প্রবাসী মোঃ মান্নান গাজীর স্ত্রী গৃহবধূ মিশু বেগমের মৃত্যুতে রহস্য সৃষ্টি হচ্ছে।

এ নিয়ে চলছে এলাকায় ব্যাপক আলোচনা ও সমালোচনা। ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছে মিশুর শ্বশুরালয়ের লোকজন। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তাকে মানসিক ও শারিরীকভাবে নির্যাতনের অভিযোগ, মিশুর পরিবারের।

২ মার্চ মঙ্গলবার সকল ১১ টায় মিশুর মৃতদেহ তার প্রবাসী স্বামীর বসতঘরের দরজা জানালা বন্ধ অবস্থায় ঘরের ভিতরে সিলিং ফ্যানের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়।

এদিকে মিশুর ময়নাতদন্তের পর পিত্রালয়ে নামাজে জানাযা ও দাফন সম্পন্ন হয়েছে। এ ঘটনায় মিশুর পরিবার মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে এ প্রতিনিধিকে জানিয়েছেন।

অপরদিকে হতভাগ্য মিশুর শশুড় বাড়ি থেকে মিশুর মৃতদেহ উদ্ধার করার পর মিশুড় শাশুড়ি ও শশুড় বাড়ির লোকজন পলাতক থাকায় মিশুর মৃত্যু নিয়ে তার শশুর বাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে সন্ধেহের তীর আরো বেশি ঘনিভূত হচ্ছে।

অন্যদিকে মিশুর স্বামী প্রবাসী মান্নান গাজী তার স্ত্রী মিশুকে পিত্রালয়ে রেখে বিদেশ যাওয়ার পর থেকেই অকারণে মিশুর প্রতি দীর্ঘদিন যাবত, অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করে আসছে বলে মিশুর বাবা, মায়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

মিশুর মৃত্যুর পর তার প্রবাসী স্বামী মান্নান গাজীর সাথেও মুঠোফোনসহ বিভিন্নভাবে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

স্থানীয় একাধিক ব্যাক্তি নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, মিশুর স্বামী বিদেশে যাওয়ার পর মিশুর শাশুড়ি ও তার ননদরা মিশুর বিরুদ্ধে অপপ্রচার করাসহ মিশুকে নানাভাবে জালাতন করতেন। এসব ঘটনার কারণে অনেকেই মনে করেন, শশুর শাশুড়ির যন্ত্রণার কারণেই মিশু হয়তো আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন।

এদিকে দাফনের পূর্বে কান্নাজড়িত কন্ঠে মিশুর মামা তাজুল ইসলাম দেওয়ান, খোকন দেওয়ান, জয়দুল হোসেন দেওয়ানসহ আরো কয়েকজন বলেন, মিশুকে তার স্বামীসহ শাশুড়ী এবং ননদ তারা নির্যাতন করে আসছে এবং তার মৃত্যুর জন্য তারাই দায়ী।

তারা বলেন, আমরা তাদের বিচার চাই। তবে মিশুর আত্মহত্যার ঘটনাটির ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যেন সঠিক তথ্যের ভিত্তিতে ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত প্রকৃত অপরাধীদের চিহ্ন করে আইনের আওতায় নিয়ে যথাযথ সাজা দিতে পারে। এটাই মিশুর পরিবারসহ এলাকাবাসীর দাবী।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ