Md.Shagar Hasan
প্রকাশ ২৩/০২/২০২১ ০৭:৩৮পি এম

কুষ্টিয়া পোড়াদহে ছেলের হাতে মা খুন

কুষ্টিয়া পোড়াদহে ছেলের হাতে মা খুন Ad Banner

কুষ্টিয়া পোড়াদহ ছেলের হাতে মা খুন, ৩৫দিন পরে লাশ উদ্ধার করেছে ডিবি পুলিশ। আজ দুপুর এ ঘটনা ঘটে। এ বিষয়ে রাব্বি নামে একজন আটক করেছে ডিবি পুলিশ।

নিহতের পরিচয় পোড়াদহ উত্তরপাড়া ফজলের স্ত্রী মমতাজ। স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায় নিহত মমতাজ কয়েকদিন ধরে নিখোঁজ ছিল। নিহতের জামাতা মিরপুর থানায় সাধারণ ডায়েরী করার পরে কুষ্টিয়ার ডিবি পুলিশ তদন্ত সাপেক্ষে গতকাল রাব্বি নামে একজন আটক করে। পরে তার জিজ্ঞাবাসে স্বীকার করে প্রায় একমাস সাত দিন আগে তার বন্ধুর মাকে খুন করেছে তারই আপন ছেলে মুন্না।

পরে তার মায়ের লাশ বাড়ির পাশে পুকুরে মাটি খুড়ে দাফন করেন। আজ দুপুরে তদন্ত সাপেক্ষে ও স্বীকারোক্তি মূলক কথায় ‍ঘটনাস্থল ডিবি পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। নিহতের লাশ ময়না তদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করেন। 

এ বিষয়ে ডিবি পুলিশের ওসি আমিনুল ইসলাম তাজা সংবাদকে জানান মিরপুর থানায় মমতাজ নামে একজন নিখোঁজ হওয়া সাধারণ ডায়েরী হয়েছে। এরপর তদন্ত সাপেক্ষে ডিবি পুলিশ রাব্বি নামে একজনকে আটক করে।

পরে তার জিজ্ঞাসাবাদের পর নিহতের ছেলের সহযোগিতায় মমতাজকে হত্যা করা হয়। পরে লাশ বাড়ীর পাশে গোপনে দাফন করেন। তবে নিহতের ছেলে মুন্না এখন পর্যন্ত আটক করা সম্ভব হয়নি।

তবে অতি শ্রীগ্রই তাকে আটক করে আইনের আওতায়আনাবলেতিনিজানান। উল্লেখ্য যে, চার বোনের মধ্যে টাকা ভাগ ভাগি করে। নিহত মমতাজও ভাগের অংশ পায়। ভাগের অংশ টাকা তার ছেলে তার কাছ থেকে কেড়ে নিয়ে তাকে হত্যাকান্ড ঘটেছে বলে মনে করছেন এলাকাবাসী।      


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ