জাহাঙ্গীর আলম কবীর
প্রকাশ ২২/০২/২০২১ ০৯:২১পি এম

বসতবাড়ি আগুনে পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনায় কলারোয়া সংবাদ সম্মেলন

বসতবাড়ি আগুনে পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনায় কলারোয়া সংবাদ সম্মেলন Ad Banner

কলারোয়ায় নিজ বসতবাড়ি ভাঙচুর ও আগুন দেওয়ার ঘটনায় সোমবার কলারোয়া প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন উপজেলার হিজলদি (মধ্যপাড়া) গ্রামের নূর ইসলামের ছেলে শফিকুল ইসলাম।

লিখিত বক্তব্যে শফিকুল ইসলাম বলেন, তার বিমাতা ভাই যশোর সিটি কলেজের শিক্ষক জাকির হোসেনের সাথে তার বিরোধ চলে আসছিলো। তিনি বাপের ভিটা ছেড়ে ফুফুর কাছ থেকে ওয়ারেশ সূত্রে ক্রয়কৃত ১২শতক জমিতে বসবাস করে আসছেন।

ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও স্থানীয় গণণ্যম্যা ব্যক্তিগণ উক্ত ১২ শতক জমিতে ঘর নির্মাণের অনুমতিও দেয়। কিন্তু বিমাতা ভাই ও কতিপয় লোকজন ক্রয়কৃত জমি ভোগদখলের পায়তারা করে আসছে।

বর্তমানে ওই জমির উপর পাকা দেয়াল ও উপরে টালির ছাউনি দিয়ে দুটি রুম বানিয়ে বসবাস করছি। হঠাৎ রবিবার (২১ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যার দিকে জাকিরের দুই ভাইসহ ১৫/২০জন সন্ত্রাসী জাকিরের উপস্থিতিতে ঘরের ছাউনিসহ অন্যান্য জিনিষ ভাঙচুুর করে সেই সাথে তারা বসতঘরের পেট্রল ছিটিয়ে আগুন জ্বালিয়ে দেয়।

এতে বসতঘর পুড়ে ভস্মিভুত হয়। বাড়ির লোকজন বাধা দেওয়ার চেষ্টা করলে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে তারা ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। এ বিষয়ে শািফকুল ইসলাম বাদি হয়ে কলারোয়া থানায় ১টি অভিযোগ দাখিল করেছেন।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে বিষয়টি কলারোয়া থানা পুলিশ আইনগত ব্যবস্থা নিবেন বলে শফিকুল ইসলাম জানান। সংবাদ সম্মেলনে শফিকুল ইসলাম বসতবাড়ি পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করেছেন।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ