এম এইচ মামুন
প্রকাশ ২০/০২/২০২১ ০৮:৫৮পি এম

এটিএম শামসুজ্জামানের বর্ণাঢ্য জীবন

এটিএম শামসুজ্জামানের বর্ণাঢ্য জীবন Ad Banner

আবু তাহের মোহাম্মদ শামসুজ্জামান সংক্ষেপে এটিএম শামসুজ্জামান নামে তিনি ছিলেন বেশ সুপরিচিত। জন্মস্থল নোয়খালীর দৌলতপুরে, তবে পৈতৃক আবাসস্থল লক্ষীপুর জেলায়।   

তিনি একাধারে অভিনেতা, পরিচালক, কাহিনীকার ও চিত্রনাট্যকার। ১৯৬১ সালে ক্যারিয়ার শুরু করেন সহকারী পরিচালক হিসেবে, এরপর ১৯৬৫ সালে পা রাখেন রূপালি পর্দায় জগতে। 

কৌতুক, পার্শ্ব-অভিনেতা, খল কিংবা প্রধান চরিত্র সবখানেই দিয়েছেন দক্ষতা এবং নিপুনতার পরিচয়। অসাধারণ সংলাপ দিয়ে ঠাঁই করেছেন সব বয়সি দর্শকমনে।   

১৯৮৭ সালে 'দায়ী কে' চলচ্চিত্রের জন্য অর্জন করেন প্রথম শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কার । কাজের স্বীকৃতি হিসেবে পেয়েছেন ২০১৫ সালের একুশে পদক। এছাড়াও ছয়বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারসহ অর্জন করেছেন নানাবিধ সম্মাননা।   

বার্ধক্যজনিত কারনে বেশ কয়েক বছর ধরেই ছিলেন অসুস্থ। মূমুর্ষবস্থায় ভর্তী ছিলেন হাসপাতালেও। তবে এবারে যেন সব গুঞ্জনকে সত্য করে চিরবিদায় নিলেন বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তি অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান।   

চলচ্চিত্রের এই অগ্রজের চলে যাওয়াতে শোকের ছায়া নেমেছে কর্মস্থল বিএফডিসিতে, পরিবার পরিজনের সাথে শোকাহত ভক্তকুলও। ওপারে ভালো থাকবেন কিংবদন্তি অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান। 


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ