Md. Motahar hossain.
প্রকাশ ২০/০২/২০২১ ০৬:২৮পি এম

রংপুর পীরগঞ্জের হুমকির মুখে রাস্তা-ঘাট অবৈধ যানবাহন

রংপুর পীরগঞ্জের হুমকির মুখে রাস্তা-ঘাট অবৈধ যানবাহন Ad Banner

রংপুরের পীরগঞ্জে করতোয়া নদী থেকে দিবারাত্র অবৈধভাবে বালু লুটের কারনে হুমকির মুখে পড়েছে ওই এলাকার বাড়িঘর, রাস্তাঘাট ও আবাদী জমে। বালু পরিবহনে ব্যবহৃত হচ্ছে অবৈধ যানবাহন ট্রাক্টরসহ সড়কে চলাচলে নিষিদ্ধ দশ চাকার ড্রাম ট্রাক।

উল্লেখ্য, উপজেলার টুকুরিয়া ইউনিয়নের মোনাইল, বিছনারচর, দুর্গাপুর,সুজারকুঠি,জয়ন্তিপুর, বড় আলমপুর ইউনিয়নের শালপাড়ার ঘাট, রামনাথপুর, শিমুলবাড়ি, চতরা ইউনিযনের কুয়াতপুর নেংড়ার ঘাট, পার কুয়াতপুর, চকভেকা, গিলবাড়ি, বড় বদনাপাড়াসহ বেশ কিছু এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, অবৈধ ভাবে করতোয়া নদীর বালু উত্তোলন করে নিষিদ্ধ যানবাহন ট্রাক্টর ও ড্রাম ট্রাকযোগে পরিবহন করায় রাস্তা-ঘাট ধ্বসে যাওয়ার ভয়াবহ চিত্র।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, দিবারাত্র বিরতিহীনভাবে অবাধে ড্রেজার মেশিন দিয়ে উত্তোলন করা হচ্ছে বালু। ফলে আশপাশের মুল্যবান আবাদী জমি ধ্বসে যাচ্ছে। এদিকে চতরা ইউনিয়নের কুয়াতপুর, কাটাদুয়ার, চকভেকা, টুকুরিয়া এলাকা থেকে পীরগঞ্জ পর্যন্ত রাস্তা ঘাটের অবস্থা আরো ভয়াবহ। অবৈধ যানবাহন ট্রাক্টর ও ড্রাম ট্রাক চলাচলের কারনে রাস্তা ঘাটে প্রায়ই যানজট লেগে থাকছে ঘন্টার পর ঘন্টা।

ফলে পথচারীসহ ছোট ছোট যানবাহন চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি হচ্ছে। কাঁচা পাকা রাস্তা-ঘাটে হাজারো খানা খন্দকের সৃষ্টি হয়ে হুমকির মুখে পড়েছে অন্যান্য অবকাঠামো। এজন্য ওই এলাকার হাজার হাজার মানুষের চলাচলের এক মাত্র রাস্তাগুলোও অনুপযোগি হয়ে পড়ছে। আগামী বর্ষা মওসুমে এ দুর্ভোগ আরও চরমে পৌছুবে বলে মনে করছেন এলাকাবাসী।

নদী এলাকার বাসীন্দা ও স্থানীয়রা জানায়, রাস্তায় সৃষ্ট খানাখন্দগুলো জরুরী ভিত্তিতে ভরাট করা না হলে আসন্ন বর্ষা মওসুমে এসব রাস্তা ও ঘরবাড়ি বিলীন হয়ে যেতে পারে। সৃষ্ট এসব সমস্যার আশু সমাধানে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ প্রয়োজন বলেও তারা মনে করছেন।

অভিযোগ রয়েছে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের দপ্তরসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত আভিযোগ দিয়েও এসব অবৈধ যানবাহন বন্ধ করা যাচ্ছে না। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিরোদা রানী রায়ের সাথে কথা হলে তিনি বলেন অচিরেই অবৈধ মেশিন মালিকদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে। 


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ