MD. Shakil Ahemed
প্রকাশ ২০/০২/২০২১ ০৫:২৮পি এম

জামালপুরের বীর মুক্তিযোদ্ধার জমি জোরপূর্বক দখল

জামালপুরের বীর মুক্তিযোদ্ধার জমি জোরপূর্বক দখল Ad Banner

জামালপুরের মাদারগঞ্জ কয়ডা বাজার সংলগ্ন সাবেক ডেপুটি কমান্ডার ও মাদারগঞ্জ থানা কমান্ডার মৃত বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বারীর জমি জোরপূর্বক দখল করে আসছে প্রতিপক্ষ মনজুরুল ইসলাম ও তার ছেলে নেহেরুল ইসলাম লাভলু।

জানা যায়,  পাটাদহ এলাকার কয়ডা বাজার মৌজার কয়রা বাজার সংলগ্ন ৮০সনের রেকর্ডের পর থেকে ঘরোয়া বন্টন এর মাধ্যমে সারে বিশ শতাংশ জমি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বারি মাটি ভরাট করে ২৫ বছর যাবত আধা পাকা ঘর নির্মাণ করে ভোগ দখল করে খেয়ে আসলেও বেশ কিছু দিন আগে বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুর বারী মারা যান।

তার ছেলেরাও বাডিতে না থাকায় কিছু অসাধু ব্যক্তির জোক সাজসে মনজুরুল ইসলামের ছেলে, নেহেরুল ইসলাম লাভলু, রেজাউল করিমসহ ভাড়াটিয়া লোকজন নিয়ে এসে জোরপূর্বক দুটি ঘরের মাঝখানে একটি চালা ঘর উঠায়।

মৃত আব্দুল বারীর স্ত্রী জানান, আমার জমিতে এক চালা ঘর উঠাতে বাধা দিতে গেলে আমাকে প্রাণনাশের হুমকি দেয় তারা। মৃত আব্দুল বারীর স্ত্রী আরও জানান নেহেরুল ইসলাম লাভলু নেত্রকোনা পুলিশে চাকরি করে কিন্তু প্রতি মাসে বাড়িতে আসে এবং আমাদের হয়রানির মুখে ফেলে।

এলাকাবাসী জানান, দীর্ঘদিন যাবৎ বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বারী ঘরবাড়ি উঠিয়ে ভোগ দখল করে খেয়ে আসছেন ইতিমধ্যে আব্দুল বারী সাহেব মারা যায় তার ছেলেরাও বাড়িতে না থাকায় নেহেরুল ইসলাম লাভলু পুলিশের চাকরি করে সেই পুলিশের ক্ষমতা দেখিয়ে আব্দুল বাড়ির জমিতে একচালা ঘর উঠিয়ে দাঙ্গা-হাঙ্গামার সৃষ্টি করে।

এ বিষয়ে এলাকাবাসী ও ৬ নং আদারভিটা ইউপি চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতাকে বারবার জানিয়েও কোনো সুরেহা পাওয়া যায়নি।

ভারপ্রাপ্ত জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার সুজাউদ্দৌলাকে এ বিষয়ে জানালে তিনি বলেন মৃত আব্দুল বারীর জমির বিষয়টি প্রশাসনের কাছে জোরালোভাবে সঠিক বিচারের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

দোকান ভাড়াটিয়ারা জানান দীর্ঘদিন যাবৎ আব্দুল বারী সাহেবের কাছ থেকে ঘর ভাড়া নিয়ে ব্যবসা করে আসছি। অপরদিকে মঞ্জুরুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও মিলেনি তা।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ