Zinnah Chowdhury
প্রকাশ ২০/০২/২০২১ ০৪:০৬পি এম

চুনারুঘাটের কৃতি সন্তান বিচারপতি আব্দুল হাই মারা গেছেন

চুনারুঘাটের কৃতি সন্তান বিচারপতি আব্দুল হাই মারা গেছেন Ad Banner

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার কৃতি সন্তান বিচারপতি মোঃ আব্দুল হাই আজ শনিবার(২০ ফেব্রুয়ারী)সকাল ৮ টার দিকে ঢাকা পিজি হাসপাতালের আইসিইউ(নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে) ইন্তেকাল করেছেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৭ বছর।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়,গত ২৬ জানুয়ারী বিচারপতির করোনা(কোভিড ১৯)রিপোর্ট পজিটিভ আসে।এরপর দীর্ঘদিন হাসপাতালে চিকিৎসা নিলে গতকাল তাঁর করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ আসে।একই তারিখে তাঁর স্ত্রীসহ করোনায় আক্রান্ত হন তাঁরা দুইজন।বিচারপতির স্ত্রী ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন  রয়েছেন।তবে তাঁর শারীরিক অবস্থা অনেকটাই উন্নতীর দিকে বলে জানা যায়।

উল্লেখ্য,বিচারপতি মোঃ আব্দুল হাই বাংলাদেশের শ্রম আপীল ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

তিনি ইপিসিএস ১৯৭০ ব্যাচে মুন্সেফ হিসেবে সরকারি চাকরিতে যোগদান করেন। বিভিন্ন পদে সাফল্যের সঙ্গে দায়িত্ব পালন শেষে তিনি ১৯৮৬ সালে জেলা ও দায়রা জজ পদে পদোন্নতি লাভ করে ঝালকাঠী, গাইবান্ধা ও নরসিংদী জেলার দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

পরবর্তীতে পদোন্নতি পেয়ে প্রশাসনিক আপীল ট্রাইব্যুনালের সদস্য (বিচার) পদে ১৯৯৫ থেকে ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত দায়িত্বে ছিলেন। পরে আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রনালয়ে যুগ্ম-সচিব ও অতিরিক্ত সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

তিনি ২৫ মে ২০০০  হতে ২০০১ সালে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি হিসেবে নিয়োগের আগ পর্যন্ত আইন সচিবের দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

তিনি ১৯৪৪ সালের ১৪ ডিসেম্বর চুনারুঘাট উপজেলার আইতন গ্রামে জন্ম গ্রহণ করেন।

মৃত্যুকালে স্ত্রী,২ পুত্র,আত্মীয়-স্বজনসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে যান।তাঁর বড় ছেলে মোঃ আরিফুল হাই রাজীব বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সাবেক সহ-সম্পাদক ও ছোট ছেলে ব্যারিস্টার মোঃ ইমরানুল হাই সজীব বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টে আইন পেশায় নিয়োজিত রয়েছেন।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ