Md. Jillur Rahman Russell
প্রকাশ ১৩/০২/২০২১ ০৫:৪৯পি এম

ফরিদপুর র‍্যাব-৮ কর্তৃক ডাকাত দলের ৭ সদস্য আটক

ফরিদপুর র‍্যাব-৮ কর্তৃক ডাকাত দলের ৭ সদস্য আটক Ad Banner

১৩ ফেব্রুয়ারি শনিবার রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দঘাট থানাধীন পদ্মার মোড় নামক স্থানে ঢাকা মহাসড়কের উপর হতে চলন্ত বাসে ডাকাতি করার প্রস্তুতির সময় ডাকাত দলের ০৭ সদস্যকে আটক করেছে র‍্যাব-৮ এর ফরিদপুর ক্যাম্প। 

রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দঘাট থানাধীন ঢাকা মহাসড়কের উপর দীর্ঘদিন যাবৎ ডাকাত দলের সদস্যরা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ধরনের পরিবহন বাসে ডাকাতি করে আসছে। এ বিষয়ে ফরিদপুর র‍্যাব ক্যাম্প গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ ও ঘটনার সত্যতা যাচাইয়ের জন্য গভীর অনুসন্ধান করে। 

১৩ ফেব্রুয়ারি শনিবার গভীর রাতে রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দঘাট থানাধীন ঢাকা মহাসড়কের উপর একে ট্রাভেলস নামক পরিবহন বাসে ডাকাতি করার প্রস্তুতির সময় ডাকাত দলের সদস্য ঘেউর থানার কাউটিয়া গ্রামের মৃত মুন্নাফের পুত্র মোঃ আব্দুল জলিল(৪০), মানিকগঞ্জ জেলার হরিরামপুর থানার কালই গ্রামের মোঃ আহম্মদ আলীর পুত্র মোঃ লিটন(২০) ও একই থানার কুকুর হাটি গ্রামের শেখ গফুরের পুত্র মোঃ শেখ জুয়েল(২০), গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী থানার কেশরগাড়ি গ্রামের মোঃ আতিয়ার রহমানের পুত্র মোঃ মিলন মিয়া(২০), মৃত মুকুল রহমানের পুত্র মোঃ পাপুল ইসলাম(২০) ও রংপুর জেলার পীরগঞ্জ থানার চতরা অনন্তপুর গ্রামের মোঃ আমিনুল ইসলামের পুত্র মোঃ শহিদুল ইসলাম (২০) ও বিপীন চন্দ্র মহন্তের পুত্র উজ্জল চন্দ্র মহন্ত(২৪)দেরকে হাতে নাতে দেশীয় অস্ত্রসহ গ্রেফতার করে। 

এ সময় তাদের হেফাজত হতে ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত ০১ টি স্কুল ব্যাগ, ০২ টি চাপাতি,০৪ টি চাকু,০৬টি মোবাইল এবং ১২টি সিমকার্ড উদ্ধার করা হয়। 

আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদ ও আসামীদের সম্পর্কে গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ করে জানা যায় যে, আসামীরা পেশাদার ডাকাত এবং ইতিপূর্বে তারা দেশের বিভিন্ন এলাকায় একাধিক ডাকাতি করেছে বলে স্বীকার করে। 

উল্লেখ্য যে, এই ডাকাত দলের সদস্য থাকে ৭-৮ জন, এদের মধ্যে অন্তর্ভূক্ত থাকে একজন প্রশিক্ষিত গাড়ী চালক সে প্রথমে ড্রাইভারকে অস্ত্রের মুখে রেখে গাড়ী নিজ নিয়ন্ত্রনে নেয় তারপর অস্ত্রের মুখে গাড়ীর যাত্রীদের নিকট হতে বিভিন্ন ধরনের মূল্যবান জিনিসপত্র যেমন, স্বর্ণ-অলংকার, টাকা-পয়সা, মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। এক্ষেত্রে যাত্রীরা কোন প্রতিরোধ করার চেষ্টা করলে অস্ত্র দিয়ে তাদেরকে আঘাত করতে দিধাবোধ করে না। তাদের জবানবন্দী থেকে আরো জানা যায় যে, তারা গত ১.৫ মাসে দেশের বিভিন্ন স্থানে ০৫ টি ডাকাতির ঘটনা ঘটিয়েছে।   

উদ্ধারকৃত আলামতসহ গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দঘাট থানায় ডাকাতি প্রস্তুত আইনে মামলা দায়ের প্রক্রিয়াধীন আছে ও উক্ত চক্রের অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতারের প্রক্রিয়া অব্যাহত রয়েছে।







শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ