বুধবার, ০৩ মার্চ ২০২১
Bahar Ullah
প্রকাশ ১৩/০২/২০২১ ০৩:০৮পি এম

নোয়াখালী ডিসি ও এসপির সাথে নয়া মেয়রের সৌজন্য সাক্ষাৎ

নোয়াখালী ডিসি ও এসপির সাথে নয়া মেয়রের সৌজন্য সাক্ষাৎ Ad Banner

নোয়াখালী জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের সাথে সাক্ষাৎ করেন চৌমুহনী পৌরসভার নবাগত মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা, বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক কর্মকর্তা মোঃ খালেদ সাইফুল্লাহ (এম.কম)।

এসময় তিনি অতান্ত উৎসবমুখর পরিবেশের মধ্যে দিয়ে একটি অবাধ সুষ্ঠ ও নিরপক্ষ নির্বাচন সম্পূর্ণ করায় নোয়াখালী জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারকে ধন্যবাদ জানান। নবনিযুক্ত মেয়র চৌহমুনী পৌরসভায় সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ, দূনীতিমুক্ত, বাহিনীমুক্ত ও যানজট মুক্ত একটি জনবান্ধব পৌরসভা গড়ে তুলতে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেন। 

এ সময় তিনি আরো বলেন, আমার চাওয়ার পাওয়ার কিছুই নেই , আমি যেন দলমতের উর্ধ্বে থেকে পৌরবাসির কল্যাণে কাজ করতে পারি। উল্লেখ্য ৩০ জানুয়ারী অনুষ্ঠিত ৩য় দফা পৌরসভা নির্বাচনে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী পৌরসভায় ১৩৪১৮ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন স্থানীয় সাংসদ মামুনুর রশিদ কিরনের বড় ভাই আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) মোবাইল প্রতীকের প্রার্থী খালেদ সাইফুল্লাহ। 

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আ.লীগ মনোনিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আক্তার হোসেন ফয়সল পেয়েছেন ১০৯৩৬ ও ধানের শীর্ষের প্রার্থী জহির উদ্দিন হারুন পেয়েছেন ৫৮৩১ভোট। শনিবার রাত ৮টায় নির্বাচনের ফলাফলের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা ও রির্টানিং কর্মকর্তা মো. রবিউল আলম।

এর আগে শনিবার সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীন ভাবে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।  চৌমুহনী সরকারি এস এ কলেজ, বেগমগঞ্জ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, দক্ষিণ নাজিরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, হাজীপুর নবদিগন্ত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রেরের বাহিরে কয়েকটি ককটেলের বিষ্ফোরণ ঘটে। এছাড়াও চৌমুহনী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্র থেকে জাল ভোট দিতে আসলে মামুন নামের এক যুবককে আটক করে দায়িত্বে থাকা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মীর রাশেদুজ্জামান রাশেদ। বিচ্ছিন্ন এ কয়েকটি ঘটনা ছাড়া পৌরসভার ২০টি কেন্দ্রে শান্তিপ‚র্ণ ভাবে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

প্রসঙ্গত, চৌমুহনী পৌরসভা মেয়র পদে ৪ জন, ৯টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর ৩৬ জন ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ১৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। মেয়র পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বর্তমান মেয়র আক্তার হোসেন ফয়সল, বিএনপির মনোনীত ধানেরশীষ প্রার্থী ও পৌর বিএনপির সভাপতি জহির উদ্দিন হারুন, স্বতন্ত্র মোবাইল প্রার্থী মামুনুর রশিদ কিরন এমপির বড় ভাই খালেদ সাইফুলল্লাহ্ (এম.কম) ও ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলন মনোনীত হাত পাখা প্রতীকের প্রার্থী মো. জাকের হোসেন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। পৌরসভাটিতে ২০টি কেন্দ্রে মোট ভোটার সংখ্যা ৫৪ হাজার ২৫৪ জন, যার মধ্যে পুরুষ ২৮ হাজার ৫১৩ ও মহিলা ২৫ হাজার ৭৪১ জন।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ