Feedback

জাতীয়, জেলার খবর

করোনায় মারা গেলেন পুলিশের এএসআই আব্দুল খালেক

করোনায় মারা গেলেন পুলিশের এএসআই আব্দুল খালেক
April 30
04:05pm
2020

আই নিউজ বিডি ডেস্ক Verify Icon
Eye News BD App PlayStore
করোনাভাইরাসে (কভিড-১৯) মৃত্যু হয়েছে ঢাকার মিরপুর পুলিশ প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে কর্মরত পুলিশের এসআই এবং মসজিদের ইমাম আব্দুল খালেকের (৩৬)। তাঁর বাড়ী বরগুনার বেতাগী উপজেলার ঝোপখালী গ্রামে। আজিম উদ্দিন মৃধার ছেলে আব্দুল খালেক। জানা গেছে, আব্দুল খালেক আজ বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) ভোর রাতে ঢাকা আরামবাগ হাসপাতালে করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। জানা গেছে শান্ত, বিনয়ী, দায়িত্বপরায়ন ও কর্তব্য পালনে নিরলস, নিরাহংকার, সদা হাস্যোজ্জ্বল স্বভাবের পুলিশ কর্মকর্তা আব্দুল খালেক স্ত্রী, ১ ছেলে ও ২ মেয়েসহ অসংখ্যক আত্মীয়-স্বজন রেখে গেছেন। তাঁর মৃত্যুতে এলাকাবাসী গভীর শোক প্রকাশ করছেন। পরিবার সূত্রে জানা গেছে, ঢাকায় বেলা ১১টায় জানাজা শেষে বেতাগীর উদ্দেশে রওনা দিবেন এবং নিজ বাড়িতে পারিবারিক গোরস্থানে প্রশাসনের নির্দেশনা অনুযায়ী দাফন করা হবে। রংপুরে করোনা জয় করে বাড়ি ফিরলেন ৮০ বছরের মোসলেম উদ্দিন করোনাকে জয় করে বাড়ি ফিরলেন মোসলেম উদ্দিন (৮০)। বুধবার দুপুরে রংপুর ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেসন হাসপাতাল থেকে তাকে ছাড়পত্র দেয়া হয়। ছাড়পত্র দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রংপুর ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেসন হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. এসএম নূরুন্নবী। ১৩ দিন রংপুর ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেসন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন মোসলেম উদ্দিন। তার বাড়ি রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলার মধুপুর ইউনিয়নের আউলিয়াগঞ্জ। তিনি জানান, একমাস ঢাকায় অবস্থান শেষে গত ৩১ মার্চ রংপুরে ফেরেন মোসলেম উদ্দিন। এসময় তিনি শারীরিকভাবে অসুস্থ ছিলেন। রংপুরে পৌঁছে শহরের খামার মোড়ে জামাইয়ের বাড়িতে গিয়ে ওঠেন। সেখানে থাকা অবস্থায় জ্বর, সর্দি, ও কাশিসহ বিভিন্ন উপসর্গ দেখা দেয়। পরে ১৪ এপ্রিল রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আরটিআই কর্নারে চিকিৎসা নিতে যান মোসলেম উদ্দিন। এসময় কর্তব্যরত চিকিৎসক তার রোগের লক্ষণ ও ইতিহাস জেনে করোনা সন্দেহে নমুনা পরীক্ষার পরামর্শ দেন। ওইদিন তার নমুনা সংগ্রহ করা হয় এবং ১৬ এপ্রিল করোনা শনাক্ত হলে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী তিনি রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন।পরে ২০ এপ্রিল সেখান থেকে তাকে ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেসন হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। তিনি আরও জানান, ৯ দিন চিকিৎসাধীন থেকে তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি এবং পরপর দুইবার করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ আসায় তাকে হাসপাতাল হতে ছাড়পত্র দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এদিকে করোনা আক্রান্ত রোগী ভর্তির সময় যেভাবে ফুল ও চিঠি দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়, সেভাবেই ছাড়পত্র দেয়ার সময়ও চিঠি ও ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. এসএম নূরুন্নবীসহ কর্মরত চিকিৎসকবৃন্দ। রংপুর ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেসন হাসপাতালের প্রথম রোগী হিসেবে ভর্তি এবং সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে যাওয়ায় মোসলেম উদ্দিনকে শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি চিকিৎসকদের সাহস, আশার সঞ্চার ও অভিজ্ঞতা কয়েকগুণ বৃদ্ধির কথাও উল্লেখ করা হয় ওই চিঠিতে।

All News Report

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

সৌদির ভিসা রিনিউ আবেদনে ১৮ এজেন্সির তালিকা প্রকাশ

সৌদির ভিসা রিনিউ আবেদনে ১৮ এজেন্সির তালিকা প্রকাশ

বগুড়ায় নেশা ও যৌন উত্তেজক ঔষধ অত:পর

বগুড়ায় নেশা ও যৌন উত্তেজক ঔষধ অত:পর

বদলে যাচ্ছে বাংলাদেশ মার্কিন নীতি

বদলে যাচ্ছে বাংলাদেশ মার্কিন নীতি

আমতলীতে দুই একর জমির রোপা আমনের চারা উপড়ে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা

আমতলীতে দুই একর জমির রোপা আমনের চারা উপড়ে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা

পাবনা-৪ আসনে ভোট চলছে

পাবনা-৪ আসনে ভোট চলছে

স্বামীকে আটকে রেখে গৃহবধূকে গণধর্ষণের প্রতিবাদে উত্তাল এমসি কলেজ

স্বামীকে আটকে রেখে গৃহবধূকে গণধর্ষণের প্রতিবাদে উত্তাল এমসি কলেজ

শিক্ষক নেতৃত্বের দক্ষতা উন্নয়ন

শিক্ষক নেতৃত্বের দক্ষতা উন্নয়ন

ব্যবহার করা কন্ডোম ধুয়ে প্যাকেটে ভরে বিক্রি

ব্যবহার করা কন্ডোম ধুয়ে প্যাকেটে ভরে বিক্রি

ডাক্তারি পরীক্ষায় ধর্ষণের আলামত মিলেছে, অনশন করা সেই প্রেমিকার

ডাক্তারি পরীক্ষায় ধর্ষণের আলামত মিলেছে, অনশন করা সেই প্রেমিকার

ধর্ষণের অভিযোগ: বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের গঠিত তদন্ত কমিটির সময় বেড়েছে

ধর্ষণের অভিযোগ: বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের গঠিত তদন্ত কমিটির সময় বেড়েছে

একশ দেশের গানে শেখ মিলন

একশ দেশের গানে শেখ মিলন

নারায়ণগঞ্জে ১৪৪ ধারা

নারায়ণগঞ্জে ১৪৪ ধারা

স্বামীর জন্য রক্ত যোগাড়ের কথা বলে নিয়ে গৃহবধূকে ‘ধর্ষণ’

স্বামীর জন্য রক্ত যোগাড়ের কথা বলে নিয়ে গৃহবধূকে ‘ধর্ষণ’

ধর্ষণ এবং রাষ্ট্রের দায়

ধর্ষণ এবং রাষ্ট্রের দায়

সিলেটে তরুণী ধর্ষণ, পুলিশ খুঁজছে ৬ ছাত্রলীগ নেতাকে

সিলেটে তরুণী ধর্ষণ, পুলিশ খুঁজছে ৬ ছাত্রলীগ নেতাকে

সর্বশেষ

রিকশা শ্রমিকদের কল্যানের নামে মাসে লক্ষাধিক টাকা চাঁদাবাজি

রিকশা শ্রমিকদের কল্যানের নামে মাসে লক্ষাধিক টাকা চাঁদাবাজি

যার প্রতি শ্রাবন্তীর বিশেষ দূর্বলতা

যার প্রতি শ্রাবন্তীর বিশেষ দূর্বলতা

স্কুলের হিসাব থেকে ৫ লাখ টাকা আত্মসাত

স্কুলের হিসাব থেকে ৫ লাখ টাকা আত্মসাত

বাংলাদেশের করোনায় অক্সফোর্ডের আশঙ্কা ভুল প্রমাণিত: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

বাংলাদেশের করোনায় অক্সফোর্ডের আশঙ্কা ভুল প্রমাণিত: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মুক্তিপণ হিসেবে বিটকয়েন চাই অপহরণকারীরা

মুক্তিপণ হিসেবে বিটকয়েন চাই অপহরণকারীরা

জিরো টলারেন্স ঘোষনা করেছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী-এমপি শাওন

জিরো টলারেন্স ঘোষনা করেছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী-এমপি শাওন

বগুড়ায় হাসপাতাল থেকে নবজাতক চুরির দয়ে নারী আটক

বগুড়ায় হাসপাতাল থেকে নবজাতক চুরির দয়ে নারী আটক

নুর কে ক্যাম্পাসে অবাঞ্ছিত ঘোষনা ছাত্রলীগ এর

নুর কে ক্যাম্পাসে অবাঞ্ছিত ঘোষনা ছাত্রলীগ এর

জামালপুরে হত্যা মামলায় দুভাইয়ের মৃত্যুদণ্ড, সাতজনের যাবজ্জীবন

জামালপুরে হত্যা মামলায় দুভাইয়ের মৃত্যুদণ্ড, সাতজনের যাবজ্জীবন

মূমূর্ষু স্বামীর জন্য রক্ত আনতে গিয়ে স্ত্রী ধর্ষণ: দুই আসামি রিমান্ডে

মূমূর্ষু স্বামীর জন্য রক্ত আনতে গিয়ে স্ত্রী ধর্ষণ: দুই আসামি রিমান্ডে

সেই রাতের ঘটনা আদালতকে জানালেন ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ

সেই রাতের ঘটনা আদালতকে জানালেন ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ

নন্দীগ্রামে বাড়ছে নদের পানি, ডুবছে কৃষকের স্বপ্ন

নন্দীগ্রামে বাড়ছে নদের পানি, ডুবছে কৃষকের স্বপ্ন

ইউটিউব থেকে টাকা আয়ের পদ্ধতি পর্ব-০১

ইউটিউব থেকে টাকা আয়ের পদ্ধতি পর্ব-০১

তিনগুণ বেশি মূল্যে স্থাপিত হচ্ছে ডিজিটাল হাজিরা মেশিন

তিনগুণ বেশি মূল্যে স্থাপিত হচ্ছে ডিজিটাল হাজিরা মেশিন

ইতিহাসের আজকের দিনে

ইতিহাসের আজকের দিনে