Feedback

জাতীয়

এপ্রিলের ১৫ দিনে পোশাক রপ্তানি কমেছে ৮৪%

এপ্রিলের ১৫ দিনে পোশাক রপ্তানি কমেছে ৮৪%
April 21
06:34am
2020
MD Satu Verify Icon
Gopalpur, Tangail, প্রতিনিধি:
Eye News BD App PlayStore
চলমান নভেল করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে বিশ্বব্যাপী প্রায় সব দেশই এখন আংশিক বা পূর্ণাঙ্গ লকডাউনে। এ অবস্থায় স্থবির হয়ে পড়েছে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বাংলাদেশের প্রধান রপ্তানি খাত তৈরি পোশাকেও। এরই প্রতিফলন দেখা যাচ্ছে খাতটির শিল্পোদ্যোক্তাদের সংগঠন বিজিএমইএর পরিসংখ্যানে। সংগঠনটি জানিয়েছে, চলতি মাসের প্রথম ১৫ দিনে বাংলাদেশ থেকে পোশাক রপ্তানি হ্রাস পেয়েছে গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৮৩ দশমিক ৭৪ শতাংশ। আমেরিকা ও ইউরোপ মহাদেশে বাংলাদেশের বৃহৎ রপ্তানি গন্তব্য প্রায় প্রতিটি দেশেই এখন কভিড-১৯-এর ব্যাপক প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। আংশিক বা পূর্ণ লকডাউনে রয়েছে প্রায় সব দেশ। বাংলাদেশেও অঘোষিত লকডাউন চলছে গত ২৬ মার্চ থেকে। একের পর এক ক্রয়াদেশ বাতিল ও স্থগিত হওয়ার কারণে দেশের রপ্তানি কার্যক্রম বর্তমানে স্থবির হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে তৈরি পোশাক খাতের রপ্তানি ধারাবাহিকভাবেই কমছে। গত মাসেও বাংলাদেশ থেকে তৈরি পোশাকের রপ্তানি কমেছে প্রায় ২৭ শতাংশ। রপ্তানিতে পতনের এ ধারাবাহিকতা বজায় ছিল এপ্রিলের প্রথম ১৫ দিনেও। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) থেকে সংগৃহীত তথ্যের ভিত্তিতে বিজিএমইএ জানিয়েছে, চলতি মাসের প্রথম ১৫ দিনে (১-১৫ এপ্রিল) বাংলাদেশ থেকে তৈরি পোশাক রপ্তানি হয়েছে ১৯ কোটি ৪০ লাখ ডলারের। অন্যদিকে গত বছরের ১-১৫ এপ্রিলের মধ্যে পণ্যটি রপ্তানি হয়েছিল ১১৯ কোটি ২৯ লাখ ৯৯ হাজার ডলারের। অর্থাৎ পণ্যটির রপ্তানি কমেছে গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৯৯ কোটি ৮৯ লাখ ৯০ হাজার ডলার মূল্যের। সে হিসাবে পণ্যটির রপ্তানি হ্রাস পেয়েছে ৮৩ দশমিক ৭৪ শতাংশ। চীনের উহানে কভিড-১৯-এর প্রাদুর্ভাব দেখা দেয় গত ডিসেম্বরের শেষে। ফেব্রম্নয়ারি থেকে মার্চের মধ্যে তা বিশ্বের অধিকাংশ দেশে ছড়িয়ে পড়ে। এ প্রেক্ষাপটে জানুয়ারি থেকেই দেশের তৈরি পোশাক রপ্তানিতে নিম্নমুখিতা বজায় রয়েছে। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, করোনার প্রভাবে দেশের তৈরি পোশাক খাত প্রথমে কাঁচামালের সরবরাহ সংকটে পড়ে যায়। চীনে নভেল করোনাভাইরাসের ব্যাপক সংক্রমণের কারণে দেশটি থেকে কাঁচামাল আমদানি ব্যাহত হয়। দেশে তৈরি পোশাক খাতের ওভেন পণ্যের আনুমানিক ৬০ শতাংশ কাপড় আমদানি হয় চীন থেকে। আর নিট পণ্যের কাঁচামাল আমদানি হয় ১৫-২০ শতাংশ। পরবর্তী সময়ে ধীরগতিতে হলেও কাঁচামাল সরবরাহ পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে শুরু করে। কিন্তু পরে রপ্তানি গন্তব্যগুলোয় এ রোগের প্রাদুর্ভাব ছড়িয়ে পড়ায় চাহিদার সংকট তৈরি হয়। এরই ধারাবাহিকতায় ক্রয়াদেশ বাতিল-স্থগিত করতে থাকে একের পর এক ক্রেতা প্রতিষ্ঠান। সূত্র মতে, ক্রয়াদেশ বাতিল-স্থগিত করা ক্রেতাদের মধ্যে প্রাইমার্কের মতো বড় ক্রেতা প্রতিষ্ঠানও আছে। আয়ারল্যান্ডভিত্তিক প্রাইমার্কের পাশাপাশি ছোট-মাঝারি-বড় সব ধরনের ক্রেতাই ক্রয়াদেশ বাতিল-স্থগিতের ঘোষণা দিয়েছে। আবার এইচঅ্যান্ডএম, ইন্ডিটেক্স, মার্কস অ্যান্ড স্পেনসার, কিয়াবি, টার্গেট, পিভিএইচসহ আরো কিছু ক্রেতা প্রতিষ্ঠান ক্রয়াদেশ বহাল রাখার প্রতিশ্রম্নতিও দিয়েছে। ফলে সামনের দিনগুলোয় ক্রয়াদেশ বাতিল-স্থগিতের পরিমাণ কমে আসতে পারে বলে ধারণা সংশ্লিষ্টদের। বিজিএমইএর তথ্য বলছে, গতকাল সকাল ১০টা পর্যন্ত ১ হাজার ১৪০ কারখানার মোট ৩১৬ কোটি ডলারের ক্রয়াদেশ বাতিল ও স্থগিত হয়েছে। এসব ক্রয়াদেশের আওতায় ছিল ৯৭ কোটি ৯০ লাখ পিস পোশাক। অন্যদিকে এসব কারখানার কর্মরত শ্রমিকের সংখ্যা ২২ লাখ ৬০ হাজার। খাতসংশ্লিষ্টরা বলছেন, চলতি বছরের শুরু থেকেই পোশাক রপ্তানির পরিস্থিতি টালমাটাল ছিল। ক্রেতারা ক্রয়াদেশ কমিয়ে দিচ্ছিলেন। তাদের বিক্রয়কেন্দ্রগুলো একের পর এক বন্ধ হয়ে যাওয়ায় ক্রয়াদেশ প্রাপ্তির পরিমাণও ছিল তুলনামূলক কম। ক্রয়াদেশ যতটুকু দেয়া হচ্ছিল, সেগুলোর দামও পাওয়া যাচ্ছিল কম। এ প্রবণতা ইউরোপের বাজারগুলোতেই তুলনামূলক বেশি। আবার এসব বাজারের ভোক্তা আচরণেও বেশ পরিবর্তন দেখা যাচ্ছে এখন। এ অবস্থায় দেশের তৈরি পোশাক খাতের ওপর বড় ধরনের আঘাত হয়ে প্রাদুর্ভাব ঘটেছে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিজিএমইএ সভাপতি ড. রুবানা হক বলেন, পোশাক রপ্তানি পরিস্থিতি নিয়ে নতুন করে কিছু বলার নেই। পরিসংখ্যানই বলে দিচ্ছে পোশাক খাতের অবস্থা কতটা নাজুক। সংকট এখনো চলমান। চলতি অর্থবছরের (২০১৯-২০) শুরু থেকেই রপ্তানি নিয়ে কিছুটা খারাপ সময় পার করছিল তৈরি পোশাক খাত। রপ্তানি উন্নয়ন বু্যরোর (ইপিবি) পরিসংখ্যান অনুযায়ী, চলতি অর্থবছরের প্রথম মাসে (জুলাই) পোশাক রপ্তানি বেড়েছিল আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৯ দশমিক ৭ শতাংশ। এর পরের মাসেই বড় ধরনের পতন হয় পোশাক রপ্তানির। সে সময় রপ্তানি হ্রাস পেয়েছিল ১১ দশমিক ৪৬ শতাংশ। রপ্তানিতে এ নেতিবাচক ধারা বজায় থাকে নভেম্বর পর্যন্ত। এর মধ্যে সেপ্টেম্বর, অক্টোবর ও নভেম্বরে তৈরি পোশাকের রপ্তানি হ্রাস পেয়েছিল যথাক্রমে ৪ দশমিক ৭ শতাংশ, ১৯ দশমিক ৭৯ ও ১১ দশমিক ৯৮ শতাংশ। এরপর ডিসেম্বরে কিছুটা ইতিবাচক ধারায় ফিরে আসে তৈরি পোশাক রপ্তানি। ওই সময় বাংলাদেশ থেকে পণ্যটির রপ্তানি বেড়েছিল আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ১ দশমিক ২৬ শতাংশ। কিন্তু জানুয়ারি থেকে এখন পর্যন্ত ধসের ধারায়ই রয়েছে তৈরি পোশাক রপ্তানি। এর মধ্যে জানুয়ারি ও ফেব্রম্নয়ারিতে তৈরি পোশাক রপ্তানি কমেছে যথাক্রমে ২ দশমিক ৯৮ ও ৫ দশমিক ৭৮ শতাংশ। এদিকে চলতি বছরের মার্চ থেকে মে পর্যন্ত তিন মাসে পোশাক রপ্তানি ৫০০ কোটি ডলার হ্রাস পাওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করেছে বিজিএমইএ। সংগঠনটির প্রক্ষেপণ অনুযায়ী, চলতি বছরের মার্চ থেকে মে পর্যন্ত বাংলাদেশ থেকে তৈরি পোশাক রপ্তানি হবে ৩৭০ কোটি ৬৯ লাখ ৮০ হাজার ডলারের। যেখানে গত বছরের একই সময়ে এর পরিমাণ ছিল ৮৬০ কোটি ৭৫ লাখ ৩০ হাজার ডলার। এ হিসাবে তিন মাসের সম্মিলিত রপ্তানি হ্রাস পেতে যাচ্ছে ৪৯০ কোটি ডলার বা ৫৬ দশমিক ৯৩ শতাংশ।

All News Report

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

২৭ হাজার প্রবাসীর আকামা বাতিল

২৭ হাজার প্রবাসীর আকামা বাতিল

ফেসবুক লাইভে ঘোষণা দিয়ে আত্মহত্যা

ফেসবুক লাইভে ঘোষণা দিয়ে আত্মহত্যা

প্রাথমিক বিদ্যালয় নীতিমালায় পরিবর্তন আসছে

প্রাথমিক বিদ্যালয় নীতিমালায় পরিবর্তন আসছে

যুদ্ধাপরাধ মামলায় ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামির মৃত্যু

যুদ্ধাপরাধ মামলায় ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামির মৃত্যু

আল্লামা আহমেদ শফীর জানাজা সময় ও স্থান

আল্লামা আহমেদ শফীর জানাজা সময় ও স্থান

মৌলভীবাজার নির্বাচনে লড়বেন লুৎফুর রহমান সুইট

মৌলভীবাজার নির্বাচনে লড়বেন লুৎফুর রহমান সুইট

আল্লামা শফি ইন্তেকাল করেছেন

আল্লামা শফি ইন্তেকাল করেছেন

সাঘাটায় শিশূ ধর্ষণের ধর্ষক ৯ বছরের শিশু সংশোধনাগারে

সাঘাটায় শিশূ ধর্ষণের ধর্ষক ৯ বছরের শিশু সংশোধনাগারে

রাতভর সংঘর্ষে রক্তাক্ত আফগানিস্তান, নিহত অর্ধশত

রাতভর সংঘর্ষে রক্তাক্ত আফগানিস্তান, নিহত অর্ধশত

অভিনব পদ্ধতিতে বৈদ্যুতিক মিটার চুরি

অভিনব পদ্ধতিতে বৈদ্যুতিক মিটার চুরি

স্ত্রীকে কুপিয়ে ৯৯৯-এ ফোন আওয়ামী লীগ নেতার

স্ত্রীকে কুপিয়ে ৯৯৯-এ ফোন আওয়ামী লীগ নেতার

মহাজোটের মানববন্ধন দূর্গা পুজায় ৩ দিনের ছুটি

মহাজোটের মানববন্ধন দূর্গা পুজায় ৩ দিনের ছুটি

ইয়াবাসহ বাসযাত্রী গ্রেপ্তার

ইয়াবাসহ বাসযাত্রী গ্রেপ্তার

২ বাস ও মাইক্রোর সংঘর্ষে চারজন নিহত, আহত ২০

২ বাস ও মাইক্রোর সংঘর্ষে চারজন নিহত, আহত ২০

স্ত্রীকে কুপিয়ে ৯৯৯ এ ফোন দেন পাষণ্ড স্বামী

স্ত্রীকে কুপিয়ে ৯৯৯ এ ফোন দেন পাষণ্ড স্বামী

সর্বশেষ

হুজুরকে হারিয়ে আমরা অসহায় হয়ে পড়েছি’

হুজুরকে হারিয়ে আমরা অসহায় হয়ে পড়েছি’

হাওরে যাওয়া হলো না বাবা-ছেলের

হাওরে যাওয়া হলো না বাবা-ছেলের

ঠাকুরগাঁওয়ে স্ত্রীর হাত ও পা ভেঙে দেয়ার অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধে

ঠাকুরগাঁওয়ে স্ত্রীর হাত ও পা ভেঙে দেয়ার অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধে

আল্লামা শাহ আহমদ শফীর মরদেহ হাটহাজারী মাদ্রাসায়

আল্লামা শাহ আহমদ শফীর মরদেহ হাটহাজারী মাদ্রাসায়

আল্লামা আহমদ শফির চিরপ্রস্থানে দেশময় শোকের ছায়া

আল্লামা আহমদ শফির চিরপ্রস্থানে দেশময় শোকের ছায়া

মৃত সরকারি কর্মকর্তাকে বদলি করে প্রজ্ঞাপন জারি

মৃত সরকারি কর্মকর্তাকে বদলি করে প্রজ্ঞাপন জারি

করোনাভাইরাসের মহামারি ক্ষতি কাটাতে অনুদান বাড়ালো এডিবি

করোনাভাইরাসের মহামারি ক্ষতি কাটাতে অনুদান বাড়ালো এডিবি

সীমান্ত হত্যা বন্ধের ব্যাপারে সর্বোচ্চ প্রাধান্য দেওয়ার প্রতিশ্রুতি

সীমান্ত হত্যা বন্ধের ব্যাপারে সর্বোচ্চ প্রাধান্য দেওয়ার প্রতিশ্রুতি

প্রেমের ছোঁয়া

প্রেমের ছোঁয়া

ফের বাড়ছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এর ছুটি!

ফের বাড়ছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এর ছুটি!

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের জন্য আর্জেন্টিনার দল ঘোষণা

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের জন্য আর্জেন্টিনার দল ঘোষণা

আপেল ভালবাসেন? এই বিষয়টি না জানলে মারাত্মক বিপদ হতে পারে!

আপেল ভালবাসেন? এই বিষয়টি না জানলে মারাত্মক বিপদ হতে পারে!

হাটহাজারী মুখী জনতার স্রোত, আল্লামা শফীর জানাযা

হাটহাজারী মুখী জনতার স্রোত, আল্লামা শফীর জানাযা

আজ হিলি দিয়ে আসছে ভারতীয় পেঁয়াজ

আজ হিলি দিয়ে আসছে ভারতীয় পেঁয়াজ

সারা দেশে তাপমাত্রা বৃদ্ধির পূর্বাভাস

সারা দেশে তাপমাত্রা বৃদ্ধির পূর্বাভাস