Tuesday -
  • 0
  • 0
Abdul majid
Posted at 11/01/2021 08:05:am

শরীর নিয়ে ভীষণ যত্নশীল সোনাক্ষী সিনহা

শরীর নিয়ে ভীষণ যত্নশীল সোনাক্ষী সিনহা

শরীরের প্রতি ভীষণ যত্নশীল বলিউড অভিনেত্রী সোনাক্ষী সিনহা। যদিও একটা সময় ওজনকে পাত্তা দিতেন না তিনি। এখন ছবির কাজ না থাকলেও ঘরে শরীরচর্চা করছেন তিনি। কী করে মেদ ঝরাতে হবে, সে বিষয়ে অনুসারীদের পরামর্শ দিয়েছেন এই অভিনেত্রী। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্ট করেছেন সে রকম একটি ভিডিও।   

ওজন বেড়ে যাওয়া মানেই শরীরের প্রতি যত্ন নেওয়া হচ্ছে না। সারা দিন দৌড়ঝাঁপ, কাজের চাপ, খাওয়াদাওয়ায় অনিয়ম, অতিরিক্ত জাঙ্ক ফুড খাওয়ার কারণে শরীরে মেদ জমে যায়।

সোনাক্ষী জানালেন, কীভাবে বাড়িতে শরীরচর্চা করে ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখেন তিনি। ভিডিওতে দড়িলাফ দিয়ে ঘাম ঝরাতে দেখা গেছে তাঁকে। ব্যায়াম করার সময় তাঁর পরনে ছিল কালো লেগিংসের সঙ্গে কালো টপস, পায়ে জিম শু। আলোর বিপরীতে দাঁড়িয়ে করা এ ভিডিওর ক্যাপশনে তিনি লিখেছেন, ‘জিম নেই, সমস্যা নেই! লাফানো ছেড়ো না।’  

প্রতিদিন একটু সময় করে নিয়ম করে লাফ, দড়িলাফ দিয়ে ঘাম ঝরালেই শরীরের বাড়তি মেদ কমে যায়। সোনাক্ষী পরামর্শ দিয়েছেন, দড়িলাফ এমনভাবে দিতে হবে, যাতে দড়িটি দুই পায়ের তলা হয়ে মাথার ওপর দিয়ে ঘুরে আসে। একটানা ৩৫ মিনিট হাঁটা বা বিশ্রাম নিয়ে নিয়ে দৌড়ানোয় যতটা মেদ ঝরে, তার চেয়েও বেশি মেদ ঝরে মিনিট পনেরো লাফালে। 

সোনাক্ষী জানালেন, লাফালে সারা শরীরের ব্যায়াম হয়। এটি মেদ ঝরাতে সাহায্য করে, দেহের কর্মক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়। শারীরিক গঠন আরও সুন্দর হয়ে ওঠে, দুশ্চিন্তা কমে, সেই সঙ্গে মনের অবসাদও দূর হয়ে যায়। আর এ রকম পরিশ্রম করলে রাতে ঘুমও ভালো হয়। স্ট্রোক বা অন্যান্য হৃদরোগের ঝুঁকি কমে, হাড়ের ঘনত্ব বাড়িয়ে তুলতে সহায়ক এই ব্যায়াম।

বলিউডে পা রাখার আগে সোনাক্ষীর ওজন ছিল ৯৮ কেজি। ৩০ কেজি ওজন ঝরানোর পর সালমান খানের নায়িকা হয়েছিলেন সোনাক্ষী।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেছিলেন, ‘আমি সব সময়ই মোটা বাচ্চা ছিলাম। অতিরিক্ত ওজন নিয়ে জন্মেছিলাম। তাই অতীতের কোনো ছবিতেই আমাকে ফিট দেখাবে না। যখন স্কুলে পড়ি, তখন আমার ওজন ছিল ৯৫ কেজি। আমি বড় হয়েছি “বুলিং”, “বডি শেমিং”- এর শিকার হয়ে। খুব কম বন্ধুই আমাকে আমার নিজের নামে ডেকেছে। সব সময় মোটি, মোটু, হাতি, ফ্যাটার — এগুলোই ছিল আমার নাম।’



শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ