• 0
  • 0
Verified আই নিউজ বিডি ডেস্ক
Posted at 10/01/2021 04:49:pm

যে কোন সময় ভেঙ্গে পরতে পারে বিএনপি : জিএম কাদের

যে কোন সময় ভেঙ্গে পরতে পারে বিএনপি : জিএম কাদের

বাস্তবে বিএনপি শীর্ষ নেতৃত্ব শূণ্য বলে উল্লেখ করে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জি এম কাদের বলেছেন, যে কোন সময় দলটি ভেঙ্গে পরতে পারে। সেই সঙ্গে বিএনপি ভেঙ্গে গেলে কী হবে সে বিষয়েও দলীয় নেতা-কর্মীদের ইঙ্গিত দিয়েছেন তিনি।

বলেছেন, ‘তারা তো নিশ্চয়ই আওয়ামী লীগে যাবে না এবং আওয়ামী লীগকে ভোট দেবে না।’

রবিবার রাজধানীর বনানীতে তার রাজনৈতিক কার্য়ালয়ে দলে এক সাংগঠনিক মতবিনিময় সভায় তিনি এমন কথা বলেন।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান দলীয় নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আমরা রাজনীতিতে যে অবস্থা দেখতে পাচ্ছি তাতে, বিএনপির শীর্ষ নেতৃত্ব যিনি আছেন উনি মুচলেকা দিয়ে রাজনীতি করবেন না বলে জেল থেকে বেরিয়ে এসেছেন। কাজেই বিএনপির শীর্ষ নেতৃত্বশূণ্য।

'আর তার জায়গায় যিনি কাজ করছেন, তিনি করভিকটেড হিসেবে বিদেশে রয়েছেন। তার নেতৃত্ব নিয়েও তাদের দলের মধ্যেই অনেক বিভেদ আছে। তাদের দলেই তাতে মানছে না অনেকে। বাস্তবে বিএনপির শীর্ষ নেতৃত্ব শূণ্য। এবং তার পরের স্তরের নেতৃত্ব নিয়েও আমরা যতটুকু তথ্য পাই বিভিন্ন জায়গা থেকে ততটুকু, আমরা বুঝতে পারছি যে একতার অভাব আছে। কাজেই সাংগঠনিকভাবে তারা খুব একটা ভাল অবস্থায় নেই।'

বিএনপি ভেঙ্গে যেতে পারে ইঙ্গিত দিয়ে দলীয় নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে জি এম কাদের বলেন,  অভ্যাসবসত মানুষ মনে করছে আওয়ামী লীগের পরে তারা (বিএনপি) আসতে পারে। তৃণমূল পর্য়ায়ে তাদের সমর্থক গোষ্ঠি আছে। কিন্তু যে কোন সময় এটা ভেঙ্গে পরতে পারে। সেখানে একটা বড় ধরনের শূণ্যতা দেখা দিতে পারে। তাদের যারা নেতা-কর্মী তারা কোথায় যাবে, তাদের যাওয়ার জায়গা খুঁজতে হবে। যারা উনাদের সমর্থক কোথায় ভোট দেবে এর পরে তা খুঁজতে হবে। তারা তো নিশ্চয়ই আওয়ামী লীগে যাবে না। এবং আওয়ামী লীগকে ভোট দেবে না।

এ সময় আওয়ামী লীগের অবস্থাও ঠুনকো বলে উল্লেখ করেন সেনা শাসক হুসাইন মুহাম্মদ এরশাদের ছোটভাই।

বলেন,  ‘আওয়ামী লীগের ব্যাপারেও একই কথা বলতে চাই, সেখানেও একজন কেন্দ্রীয় নেত্রী উনি আছেন। ক্ষমতা উনার হাতে। উনি যতটুকু আছেন যতটুকু পর্য়ন্তই দল আছে। দলে তার নিচে পর্যায় পর্য়ন্ত আমরা নিজেই দেখতে পারছি প্রকাশ্যভাবে একজন মেয়র ও আর প্রাক্তন মেয়র একজন আরেকজনকে দোষারোপ করছেন।’   

‘একজন শীর্ষ স্থানীয় নেতার ভাই দল সম্পর্কে বলছেন, তারা পালানোর পথ খুঁজে পাবে না।’

‘শীর্ষ নেতা যতদিন আছে দলও তত দিন আছে। এর পর তাদেরও অবস্থান ঠুনকো।  এ সময় তিনি তৃণমূল পর্য়ায়ে ওয়ার্ড, ইউনিয়ন, উপজেলা ও জেলায় মিটিং করে সাংগঠনকি শক্তি বাড়ানোর নির্দেশনা দেন।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ