• 0
  • 0
জাহাঙ্গীর আলম কবীর
Posted at 07/01/2021 08:59:pm

৩০ জানুয়ারি মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা যাচাই-বাছাই

৩০ জানুয়ারি মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা যাচাই-বাছাই

৯ জানুয়ারির পরিবর্তে ৩০ জানুয়ারি বীর মুক্তিযোদ্ধাদের যাচাই-বাছাই কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হবে। মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। বীর মুক্তিযোদ্ধাদের যাচাই-বাছাই কার্যক্রম ৯ জানুয়ারি হওয়ার কথা ছিল।

কিন্তু মঙ্গলবার তা স্থগিত করে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল (জামুকা)। বুধবার (৬ জানুয়ারি) যাচাই-বাছাইয়ের নতুন তারিখ জানানো হয়।

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল আইন-২০০২-এর ধারা ৭ (ঝ) ব্যত্যয় ঘটিয়ে জামুকার সুপারিশবিহীন শুধু বেসামরিক গেজেট নিয়মিতকরণের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট বীর মুক্তিযোদ্ধাদের যাচাই-বাছাই কার্যক্রম ৯ জানুয়ারির পরিবর্তে ৩০ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে। 

জামুকার ৭১তম সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, বেসামরিক গেজেট নিয়মিতকরণের লক্ষ্যে যাচাইযোগ্য বীর মুক্তিযোদ্ধাদের এদিন (৩০ জানুয়ারি) সকাল ১০টায় নিজ নিজ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে, মহানগরের ক্ষেত্রে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে সাক্ষ্য, তথ্য-উপাত্তসহ উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে। জামুকার সুপারিশ ছাড়া যাঁদের নাম বীর মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে বেসামরিক গেজেটে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে-এমন ৩৮ হাজার ৩৮৬ জনের তালিকা ৩০ জানুয়ারি যাচাই-বাছাই করা হবে।

তাঁদের তালিকা ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে। যাচাই-বাছাইয়ের আওতাভুক্ত তালিকা ও এ-সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট এবং জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।  এর আগে যাচাই-বাছাইয়ের জন্য ৩৯ হাজার ৯৬১ জনের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছিল।

তালিকা প্রকাশের পর দেখা যায়, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় স্বীকৃত বিভিন্ন প্রমাণপত্রে নাম থাকার পরও অনেক বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম যাচাই-বাছাইয়ের তালিকায় রয়েছে। পরে এই তালিকা থেকে ১ হাজার ৫৯৫ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম বাদ দেওয়া হয়।

জামুকার ৭১তম সভায় তাদের অনুমোদন ছাড়া যেসব বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম বেসামরিক গেজেটে প্রকাশিত হয়েছে, তা যাচাই-বাছাইয়ের সিদ্ধান্ত হয়। প্রথমে ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে যাচাইয়ের কাজটি শেষ করতে চেয়েছিল জামুকা। পরে ৯ জানুয়ারি যাচাই-বাছাইয়ের তারিখ চূড়ান্ত করা হয়। এখন যাচাই-বাছাইয়ের নতুন তারিখ ৩০ জানুয়ারি ঠিক করা হলো। 

এদিকে তালিকায় সাতক্ষীরা জেলার ৭টি উপজেলায় ৪৩৩ জনের নাম অর্ন্তভূক্ত রয়েছে। ওয়েব সাইট থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী সাতক্ষীরা সদর উপজেলায় ৮০ জনের নাম রয়েছে।

এর মধ্যে সাতক্ষীরা সদর আসনের সংসদ সদস্য শহরের মুনজিতপুর এলাকার মীর মোস্তাক আহমেদ, সাবেক জেলা কমান্ডার এনামুল হক বিশ্বাস, সাবেক জেলা কমান্ডার মো. শহিদুল ইসলাম, বিশিষ্ঠ রাজনীতিক মরহুম কাজী কামাল ছোট্টুর নাম রয়েছে। কলারোয়ায় ১০৭ জনের মধ্যে সাবেক সংসদ সদস্য বিএম নজরুল ইসলাম, দেবহাটায় ১০২ জনের মধ্যে মৃত মনোরঞ্জন মুখার্জী মনি ঠাকুর, সুভাষ ঘোষ এর নাম রয়েছে। তালিকায় আশাশুনিতে ১২৬ জন, কালিগঞ্জে ৯১ জন, তালায় ৪২ জন এবং শ্যামনগরে ৮৫ জনের নাম রয়েছে।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ