Thursday -
  • 0
  • 0
Verified আই নিউজ বিডি ডেস্ক
Posted at 07/01/2021 05:06:pm

নু‌রের প্রশ্ন, কে মিথ্যাবাদী পুলিশ নাকি র‍্যাব?

নু‌রের প্রশ্ন, কে মিথ্যাবাদী পুলিশ নাকি র‍্যাব?

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদের (ঢাকসু) সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর বলেছেন, র‍্যাব অভিযানে হাজি সেলিমের পুত্র ইরফান সেলিমকে আটক করার পরে আইন বহির্ভূত বিদেশি মদ, অস্ত্র ও অকিটকিসহ অনেক জিনিস রাখার দায়ে দুটি মামলার একটিতে ৬ মাস এবং আরেকটি মামলায় ১ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এই ঘটনার আলোচনা শেষ হওয়ার পরেই পুলিশ তাকে মামলা থেকে অব্যহতি দিয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) রাজধানীর তোপখানায় শিশুকল্যান মিলনায়তনে লেবার পা‌র্টি উ‌দ্যো‌গে ফেলানী দিবস উপল‌ক্ষে এক আ‌লোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, এই প্রসঙ্গে পুলিশ বলছে যে সেরকম কোন অভিযোগ পাওয়া যায় নি। এখন কে মিথ্যাবাদী পুলিশ নাকি র‍্যাব? কে প্রতারক পুলিশ নাকি র‍্যাব? এখানে র‍্যাব যদি প্রতারণা ও নাটক করে থাকে; তাহলে এ পর্যন্ত র‍্যাব কত প্রতারণা ও নাটক করেছে? আর যদি ধরে নেই ক্ষমতাশীন দলের প্রতারক দস্যুদের বাচাতে পুলিশ এই মিথ্যা প্রতিবেদন দিয়েছে।

তাহলে পুলিশ গত ১২ বছরে এমন কত প্রতিবেদন দিয়েছে?

নুর বলেন, বিরোধী দলের নেতাকর্মীরা দীর্ঘদিন যাবত ভোট দিতে না পারার অভিযোগ করলেও এখন সরকারি দলের নেতারা এই অভিযোগ করছেন।

চুনোপুঁটি কোন নেতা নয়, সরকারি দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ভাই উৎকণ্ঠা রয়েছেন যে, সমর্থন দিচ্ছে না। তারা ভোট ডাকাতি করে বিদ্রোহী প্রার্থীকে জিতিয়ে দিতে পারে। ডিসির সাথে মিটিং ছিল সেখানে তাকে কথা বলতে দেয়নি।

তিনি খোলা মাঠে নেতাকর্মীদের বলেছেন এখন ভোট হয়না। শেখ হাসিনা মানুষের ভাতের অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে পারলেও ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে পারেননি এটা ওবাদুল কাদের ভাইয়ের কথা। ওবায়দুল কাদেরের ভাই সরকারি দলের এমন পর্যায় থেকেও ভোট নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন।

ফেনির নিজাম হাজারির কথা প্রসঙ্গ টেনে ওবায়দুল কাদেরর ভাই বলেছেন, এই ধরনের দুষ্ট লোক আওয়ামী লীগকে খেয়ে ফেলছে। আওয়ামী লীগ এখন দুষ্ট লোকের আখড়ায় পরিনত হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন,  নুর।

ডাকসুর সাবেক এই ভিপি বলেন, দেশে বড়ো বড়ো রাজনৈতিক দলের নেতারা বলছেন ৩০ ডিসেম্বর ভোট ডাকাতির নির্বাচন, ভোটাধিকার হরণের নির্বাচন। তাহলে আপনারা কেন সেদিন রাজপথে নামেননি?

আমরা ছোট পরিসরে হলে আন্দোলন করেছি কিন্তু আপনারা এতো বড়ো দল হয়েও কেন শুধু প্রেসক্লাবে পরে থাকবেন? সেদিন কেন বিক্ষোভ মিছিল করেননি?

তিনি আরও বলেন, বর্তমান সরকার আন্তর্জাতিক ভাবে বলেন বা দেশীয় ভাবে বলেন তারা নানান দিক থেকেই চাপে রয়েছে। তাদের পায়ের নিচ থেকে মাটি সরে গেছে। প্রকাশ্যে বলছি আমরা এই সরকারের পতন চাই।

এই ফ্যাসিবাদী সরকারের পতনের জন্য যা করা দরকার আমরা তাই করবো। সুতরাং এটা কোন ষড়যন্ত্র নয়।

তথাকথিত সুবিধাবাদীরা বলছেন সরকার হঠানোর নীল নকশা চলছে। নীলনকশা কেন এটাতো সাজানো হচ্ছে। এই অবৈধ ভোটার বিহীন সরকারকে হটাতে সারা বাংলাদেশের জনগণকে নিয়ে যার যার দল থেকে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন করতে হবে।

বাংলাদেশ লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা মোস্তাফিজুর রহমান ইরান এর সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা জাফরুল্লাহ চৌধুরী, এনডিএম এর চেয়ারম্যান ববি হাজ্জাজ ও গণস্বাস্থ্যের মিডিয়া উপদেষ্টা জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু কৃষকদ‌লের আহবায়ক ক‌মি‌টির সদস‌্য লায়ন মিয়া মোঃ আ‌নোয়ার প্রমুখ।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ