Saturday -
  • 0
  • 0
Md. Sorif Uddin
Posted at 05/01/2021 12:11:pm

সিলেটের যে ৪ হোটেলে উঠলেন যুক্তরাজ্য থেকে আসা ৪২ প্রবাসী

সিলেটের যে ৪ হোটেলে উঠলেন যুক্তরাজ্য থেকে আসা ৪২ প্রবাসী

দিনভর নানা হুলুস্থূল কান্ড শেষে নগরের ৪টি হোটেলে উঠেছেন সোমবার যুক্তরাজ্য থেকে সিলেটে আসা ৪২ প্রবাসী। পুলিশ প্রহরায় তাদের এই ৪টি হোটেলে রাখা হয়। দিনভর নানা আপত্তি-আবদার জানালেও শেষপর্যন্ত সন্ধ্যার পর তারা এসব হোটেলে উঠেন বলে জানিয়েছে সিলেট মহানগর পুলিশ। 

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (গণমাধ্যম) বিএম আশরাফ উল্লাহ তাহের বলেন, সিলেট ওসমানী বিমানবন্দর দিয়ে যুক্তরাজ্য থেকে আগত ৪২ জন যাত্রীর মধ্যে হোটেল হলি গেইটে উঠেছেন ২৭ জন, স্টার প্যাসিফিকে ৮ জন, হোটেল অনুরাগে ৫ জন এবং হোটেল ব্রিটানিয়ায় উঠেছেন আরও ২ জন। 

তিনি বলেন, প্রথমে প্রবাসীরা হোটেলে উঠতে আপত্তি জানান। পরে পুলিশ তাদের বুঝাতে সক্ষম হয়। তারা যাতে হোটেল থেকে বের না হতে পারেন এবং তাদের স্ব্জনরা হোটেলে প্রবেশ করতে না পারেন এজন্য হোটেলগুলোতে সার্বক্ষণিক পুলিশ প্রহরা থাকবে।এসব হোটেলে ১৪ দিন কোয়রেন্টিনে থাকতে হবে প্রবাসীদের। 

যুক্তরাজ্য থেকে আসা যাত্রীদের নিজ খরচে ১৪ দিন হোটেলে কোয়ারেন্টিন থাকতে হবে- সরকারি এমন নির্দশনা কার্যকরের পর সোমবার লন্ডন থেকে সিলেটে প্রথম ফ্লাইট আসে। এই ফ্লাইটে মোট ৪৮ জন যাত্রী দেশে আসেন। এর মধ্যে ৪২ জনই সিলেটের। 

জানা যায়, দেশে ফিরেই প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকতে আপত্তি জানান প্রবাসীরা।

এসময় কয়েকজন নিরাপত্তাবাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে চলে যাওয়ার চেষ্টা চালান। হোটেলে এসেও নানা আবদার-আপত্তি জানাতে থাকেন।

এসময় দেশের আইন, আইনশৃঙ্খলাবাহিনী ও সাংবাদিকদের তুচ্ছতাচ্ছিল্য ও গালাগালি করেন কয়েকজন।ওসমানী বিমানবন্দর সূত্রে জানা যায়, সপ্তাহের প্রতি সোমবার ও বৃহস্পতিবার যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনের হিথ্রো বিমানবন্দর থেকে সিলেট ওসমানী আন্তর্জতিক বিমানবন্দরে বিমানের সরাসরি ফ্লাইট আসে।

সর্বশেষ গত ২৪ ডিসেম্বর ২০২ জন, গত ২৮ ডিসেম্বর ২০২ জন এবং ৩১ ডিসেম্বর ২৩৭ যাত্রী নিয়ে বিমানের তিনটি ফ্লাইট ওসমানী বিমানবন্দরে আসে। এই তিনদিন আসা যাত্রীদের মধ্যে যথাক্রমে ১৬৫, ১৪৪ ও ২০২ জন ছিলেন সিলেটের যাত্রী। বিমানবন্দরে স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে তাদের প্রত্যককেই হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশনা দিয়ে বাড়ি চলে যেতে দেওয়া হয়েছিলো। 

করোনাভাইরাসের নতুন ধরনের (স্ট্রেইন) সংক্রমণের কারণে যুক্তরাজ্যের সাথে বিমান যোগাযোগ নিয়ে ঝুঁকি দেখা দিয়েছে। যুক্তরাজ্যের সাথে বিমান যোগাযোগ বন্ধেরও দাবি উঠেছে। তবে ঝুঁকি কমাতে যুক্তরাজ্য থেকে দেশে আসা যাত্রীদের নিজ খরচে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশনা দিয়েছে সরকার।

গত ২৮ ডিসেম্বর মন্ত্রীপরিষদের বৈঠকে এই নির্দেশনা দেন প্রধানমন্ত্রী। যা কার্যকর হয় ১ জানুয়ারি।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ