Tuesday -
  • 0
  • 0
Younus Ali
Posted at 05/01/2021 11:46:am

নৌকার টিকিট পাওয়াই ছিল প্রার্থীদের আসল নির্বাচন

নৌকার টিকিট পাওয়াই ছিল প্রার্থীদের আসল নির্বাচন

নৌকার টিকিট পেলেই যেন তিনি পৌর পিতা-এমনটা ধরে নিয়ে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন যুদ্ধে নেমেছিলেন প্রার্থীরা। যে করেই হোক নৌকার টিকিট চাই-ই চাই। সেই যুদ্ধ শেষ করে নৌকার টিকিট হাতে নিয়ে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন প্রার্থীরা। ১১ জানুয়ারি প্রতীক পাওয়ার পরই শুরু হবে প্রচার-প্রচারণা। 

আওয়ামী লীগের উচ্চ পর্যায় থেকে স্থানীয় নেতা-কর্মীদের টার্গেট পৌর নির্বাচনে বরাবরের মতো এবারও মেয়র পদটি ধরে রাখতে হবে। 

আওয়ামী লীগ থেকে অনেকে মনোনয়ন চাইলেও টাঙ্গাইলের পাঁচ পৌর সভায় বঞ্চিতরা কেউ বিদ্রোহী প্রার্থী হননি। জাতীয় পার্টির কোনো প্রার্থী না দেখা গেলেও বিএনপি প্রার্থীরা মাঠে সক্রিয়ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। তাদের দাবি ভোট সুষ্ঠু হলে তারা বিজয়ী হবেন।

তৃতীয় ধাপে ৩০ জানুয়ারি টাঙ্গাইলে পাঁচ পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। পৌরসভাগুলো হলো- টাঙ্গাইল, মির্জাপুর, মধুপুর, ভূঞাপুর ও সখীপুর। ৫ পৌরসভায় মেয়র ১৫, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২৩৫ এবং সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ৮০ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। 

টাঙ্গাইল পৌরসভায় তিনজন মেয়র প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হলেন- আওয়ামী লীগের সিরাজুল হক আলমগীর, বিএনপির মাহমুদুল হক সানু ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আবদুল কাদের। মির্জাপুরেও মেয়র পদে তিনজন প্রার্থী হয়েছেন। এখানে আওয়ামী লীগ মনোনীত সালমা আক্তার, বিএনপির শফিকুল ইসলাম ও স্বতন্ত্র শহিদুর রহমান ভোটে আছেন। ভূঞাপুরে আছেন চারজন মেয়র প্রার্থী।

এরা হলেন- নৌকা প্রতীকের মাসুদুল হক মাসুদ, ধানের শীষের জাহাঙ্গীর হোসেন এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী আমিরুল ইসলাম তালুকদার ও আবদুল সাত্তার। মধুপুরে মেয়র পদে লড়ছেন দুজন।

তারা হলেন- আওয়ামী লীগ মনোনীত সিদ্দিক হোসেন ও বিএনপির আ. লতিফ পান্না। এ ছাড়া সখীপুরে মেয়র প্রার্থী হিসেবে আওয়ামী লীগের আবু হানিফ আজাদ, বিএনপির নাছির উদ্দিন ও স্বতন্ত্র সানোয়ার হোসেন সজীব। প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। 

জেলা সিনিয়র নির্বাচন ও রিটার্নিং কর্মকর্তা এএইচএম কামরুল হাসান জানান মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে বৈধ প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। ১১ জানুয়ারি প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হবে।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ