Saturday -
  • 0
  • 0
Saimun Islam Sani
Posted at 05/01/2021 10:52:am

উপমহাদেশে ইসলামের আগমন ও বাংলায় মুসলিম শাসন

উপমহাদেশে ইসলামের আগমন ও বাংলায় মুসলিম শাসন

রাসূল (সাঃ) এর জীবনদ্দ্যশাতেই সাহাবী ইবনে মালিক দিদার (রাঃ) ২০ জন সফর সঙ্গী নিয়ে ইসলাম প্রচারের জন্য ভারত উপমহাদেশে আসেন। ৬২৯ সনে উপমহাদেশের কেরালাতে চেরামান জুম্মা মসজিদ প্রতিষ্ঠা করেন।প্রায় সমসাময়িক সময়েই গুজরাট ও বাংলাতে মসজিদ প্রতিষ্ঠা করেন এবং এভাবেই উপমহাদেশে ইসলামের সূচনা ঘটে। 

কেরালায় মসজিদ প্রতিষ্ঠার প্রায় ১০০ বছর পর উমাইয়া গভর্নর হাজ্জাজ বিন ইউসুফের অনুমতি নিয়ে ১৭ বছর বয়সী মুহাম্মদ বিন কাসিম ভারত অভিযানে আসেন এবং সিন্ধু ও মুলতান জয় করেন। 

সিন্ধু বিজয়ের মাধ্যমেই ভারতবর্ষে হাজার বছরের মুসলিম শাসন প্রতিষ্ঠিত হয়। ৬২৯ সনের দিকে বাংলাতে ইসলামের আগমন ঘটলেও মুসলিম শাসন প্রতিষ্ঠিত হতে সময় লেগেছে প্রায় ৫৭৫ বছর। 

১২০৪ সনে তুর্কী সেনাপতি ইখতিয়ার উদ্দিন মুহাম্মদ বিন বখতিয়ার খিলজি মাত্র ১৭ জন অশ্বারোহী নিয়ে তৎকালীন নদীয়াতে প্রবেশ করেন এবং বিনা বাঁধাতে লক্ষন সেনকে পরাজিত করার মাধ্যমে বাংলায় মুসলিম শাসনের সূচনা করেন।

নদীয়া বিজয়ের পর নদীয়া ত্যাগ করে লক্ষণাবতীর(গৌড়) দিকে অগ্রসর হোন।লক্ষণাবতী অধিকরণের পর সেখানেই রাজধানী স্থাপন করেন।এই লক্ষণাবতীই পরবর্তীতে মুসলিম শাসনামলে লখনৌতি নামে পরিচিত হয়।গৌড় বিজয়ের পর খিলজি আরো পূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে বরেন্দ্র তথা উত্তর বাংলাতে নিজের অধিকার প্রতিষ্ঠা করেন। এভাবেই বাংলাতে মুসলিম শাসনের সূচনা ঘটে। 

বাংলায় মুসলিম শাসন ইখতিয়ার উদ্দিন মুহাম্মদ বিন বখতিয়ার খিলজি থেকে শুরু করে নবাব সিরাজ উদ-দৌলা পর্যন্ত স্থায়ী ছিল।যার সময়গত পরিধি ছিল ১২০৪ থেকে ১৭৫৭ সাল অর্থাৎ প্রায় ৫৫৪ বছর।এই দীর্ঘ শাসনামলে ১০১ জন মুসলিম শাসক বাংলাকে শাসন করেন।

বাংলার মুসলিম শাসনকে কয়েক ভাগে ভাগ করা যায়ঃ---

★খিলজীদের অধীনে--(১২০৪-১২২৭) 

★দিল্লীর অধীনে--(১২২৮-১৩৪১)

★ইলিয়াস শাহী বংশের অধীনে--(১৩৪২-১৪১৩)

★গনেশ জালাল উদ্দীনের অধীনে--(১৪১৪-১৪৪১)

★ইলিয়াস শাহী বংশের (দ্বিতীয় ধারা) অধীনে--(১৪৪২-১৪৮৭)

★হাবশীদের অধীনে--(১৪৮৯-১৪৯৩)

★হুসেন শাহী বংশের অধীনে--(১৪৯৪-১৫৩৮)

★পাঠানদের অধীনে--(১৫৩৯-১৫৬৪)

★কররানীর অধীনে--(১৫৬৫-১৫৭৬)

★মোঘলদের অধীনে--(১৫৬৬-১৭৫৭) সন পর্যন্ত।

১২০৪ সনে খিলজির হাতে সূচনা হয়ে দীর্ঘ ৫৫৪ বছরের মুসলিম শাসনের সমাপ্তি ঘটে পলাশীর প্রান্তের নবাব সিরাজ উদ-দৌলার পরাজয়ের মাধ্যমে।



শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ