Thursday -
  • 0
  • 0
Verified আই নিউজ বিডি ডেস্ক
Posted at 04/01/2021 02:04:pm

সর্বসাধারণের শেষ শ্রদ্ধায় বিদায় নিলেন রাবেয়া খাতুন

সর্বসাধারণের শেষ শ্রদ্ধায় বিদায় নিলেন রাবেয়া খাতুন

স্বাধীনতা পুরস্কার ও একুশে পদক পদকপ্রাপ্ত বহুমাত্রিক লেখক, কথাসাহিত্যিক রাবেয়া খাতুনকে শেষ শ্রদ্ধায় বিদায় জানালেন বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ।   

আজ সোমবার (৪ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১১ টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত বাংলা একাডেমির নজরুল মঞ্চের সামনে শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য তার মরদেহ রাখা হয়।  সেখানে প্রথমেই বাংলা একাডেমির পক্ষ থেকে  শ্রদ্ধা জানানো হয়।

শ্রদ্ধা জানায়, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রনালয়, বাংলাদেশ কবিতা পরিষদ, বাংলাদেশ জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশনী সমিতি, তথ্য মন্ত্রনালয়সহ বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন। 

শ্রদ্ধা নিবেদন করে বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক ড. হাবিবুল্লাহ সিরাজী বলেন, রাবেয়া খাতুন শুধু লেখা লেখিতে সীমাবদ্ধ থাকেননি।

বিভিন্ন সভা সমিতিতে অংশ নিয়েছেন,  কার্যকরি সমাজের প্রতি দায়িত্ব পালন করেছেন। সর্বপরি আমাদের আনন্দের অংশ, ভালোবাসার অংশ, মঙ্গলের অংশ সাহিত্যের সঙ্গে যুক্ত থেকেছেন। 

তিনি বলেন, আমরা তার সাহিত্যের প্রতি নিষ্ঠাবান হবো ও আমার তরুণ বন্ধুদের প্রতি আহবান জানাবো, আসুন তার সাহিত্যের মাধ্যমে তাকে নতুন ভাবে উন্মুক্ত করবো। 

বাংলা একাডেমিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তাকে শ্রদ্ধা জানানো জন্য নিয়ে যাওয়া হয় তার প্রিয় প্রতিষ্ঠান চ্যানেল আই প্রাঙ্গনে। সেখানে  শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে বাদ আসর বনানী কবরস্থানে দাফন করা হবে। 

বার্ধক্যজনিত কারণে রবিবার বিকেল ৫টায় ঢাকার বনানীর নিজ বাসায় শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন রাবেয়া খাতুন (৮৬)।  তার মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শোক জানিয়েছেন। 

অর্ধ শতাধিক উপন্যাসের রচয়িতা রাবেয়া খাতুন শিক্ষকতা ও সাংবাদিকতা করেছেন। তিনি বাংলা একাডেমির পর্ষদ সদস্য ছিলেন।  সাহিত্যে অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে তিনি ১৯৯৩ সালে একুশে পদক এবং ২০১৭ সালে স্বাধীনতা পুরস্কার পান। 

রাবেয়া খাতুনের জন্ম ১৯৩৫ সালের ২৭ ডিসেম্বর ঢাকার বিক্রমপুরে মামার বাড়িতে। তার পৈত্রিক বাড়ি মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার ষোলঘর গ্রামে।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ