Feedback

জেলার খবর

স্ত্রীকে দাফন করে বাড়ি ফিরে স্বামীর মৃত্যু

স্ত্রীকে দাফন করে বাড়ি ফিরে স্বামীর মৃত্যু
February 08
01:59pm
2020
MD Satu Verify Icon
Gopalpur, Tangail, প্রতিনিধি:
Eye News BD App PlayStore
স্ত্রীকে দা’ফন করে- স্বামী দীর্ঘদিন অ’সুস্থ। তার সেবা করেই নিজের সময় কা’টাতেন স্ত্রী। সেই স্ত্রী রেহানা বেগমের মৃ ত্যুর মাত্র ১২ ঘণ্টার ব্যবধানে হৃদরো’গে আ’ক্রা’ন্ত হয়ে স্বামী নুর হোসেন নিজেও মৃ ত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজে’লার ভোলাকোট ইউপির টিওরি গ্রামের পাটোয়ারী বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। বুধবার সকাল ৭টায় স্ত্রী রেহানা বেগম ও সন্ধ্যা ৭টায় স্বামী নুর হোসেন পাটোয়ারীর মৃ ত্যুর ঘটনায় আত্মীয়-স্বজনসহ এলাকাবাসীর মাঝে শো’কের ছায়া নেমে এসেছে। নি হতের আত্মীয় কামাল হোসেন পাটওয়ারী জানান, আমার খালু নুর হোসেন পাটোয়ারী কিডনি রো’গে আ’ক্রা’ন্ত হয়ে ঢাকায় চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। তার স্ত্রী রেহানা বেগম সঙ্গে থেকে স্বামীর সেবা করতেন। সম্প্রতি খালু নুর হোসেন পাটোয়ারী কিছুটা সুস্থ হলে দুইজনেই বাড়ি ফিরে আসেন। মঙ্গলবার রাতে খালা রেহানা বেগম ঠান্ডাজনিত কারণে অ’সুস্থ হলে বুধবার সকালে ঢাকায় নেয়ার পথে হাজীগঞ্জ এলাকায় তার মৃ ত্যু হয়। বুধবার সন্ধ্যা ৬টায় রেহানা বেগমের জানাজা শেষে পারিবারিক ক’বরস্থানে দা’ফন করে বাড়িতে আসার কিছুক্ষণ পরেই হৃদরো’গে আ’ক্রা’ন্ত হন নুর হোসেন পাটোয়ারী। পরে সন্ধ্যা ৭টায় নুর হোসেন পাটোয়ারীরও মৃ ত্যু হয়। তাদের দুইজনের মৃ ত্যুতে এলাকায় শো’কের ছায়া নেমে এসেছে। নি হত নুর হোসেন পাটোয়ারী রামগঞ্জ উপজে’লা কৃষকলীগের সাবেক সভাপতি ও টিওরি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ছিলেন। মৃ ত নুর হোসেন পাটোয়ারী ও রেহানা বেগম দম্পত্তির এক ছেলে ও পাঁচ মেয়ে রয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় নুর হোসেন পাটোয়ারীর জানাজার নামাজ শেষে পারিবারিক ক’বরস্থানে দা’ফন করা হবে বলে জানান নি হতের সন্তানরা। আমি দোয়া করি, তোমাকে যেন আমার মত, বৃদ্ধাশ্রমে থাকতে না হয়! সাত রাজার ধন, হিরা, মানিক, রতন, জাদু, নয়ন আমার! অনেক দিন হলো তোমাকে দেখিনি। আমার আদর ও ভালো-বাসা নিও! তুমি কেমন আছ? তোমার কাছে জানতে চাওয়া আজ বড়ই নিরার্থক! আজ কাল তুমি অনেক ব্যস্ত থাকো দেশের সেরা মানুষের মাঝে এক জন! সফল মানুষের মাঝেও তুমি এক জন! সভা, সেমিনার, পার্টি, নিয়ে মহাব্যস্ত মানুষ। হয় তো বা চিঠিটা পড়ার সময় হবে না! এমনকি লেখাগুলোর অর্থ মনোযোগে আসবে না। তাই আমার ছোট্ট দিদা মনিকে দিয়ে পড়ে নেবে, সে তোমাকে বুঝিয়ে দেবে! জাদু, মানিক আমার জীবনের দ্বার প্রান্তে দাঁড়িয়ে আমি আজ বড় একা, বড় অসহায়! এখানে আমার অনেক ক’ষ্ট হচ্ছে, মনের ক’ষ্টে বুক ভেঙ্গে যায়! তোমার কাছে আমার শেষ চাওয়া! আমার মৃ ত্যুর পর (বিয়ের সময়ে, তোমার বাবার দেওয়া) শেষ চিহ্ন একটি নাকফুল, যা আমি অতি যত্নে রেখেছি, বিক্রয় করে আমার কা’ফনের কাপড় কিনে দিও! আর আমার লা শটা তোমার বাবার ক’বরের পাশে দা’ফন কর! এতে তোমার কোন অর্থ খরচ হবে না, মুল্যবান কিছু সময় ন’ষ্ট হবে মাত্র! আজ থেকে পাঁচ বছর আগে তুমি যখন এই বৃদ্ধাশ্রমে আমাকে নিয়ে এসেছিলে তখন আমার বয়স ছিল ৭৫ (পঁচাত্তর) বছর। বর্তমানে আমার বয়স ৮০ (আঁশি)। পাশের ঘরের রহিমা (ছদ্দনাম) আমার সুখ দেখে হিং’সা করে। সে বলে আমি না কি শ্রেষ্ঠ মা; শ্রেষ্ঠ সন্তান জন্ম দিয়েছি! তোমার দামী গাড়ী, বাড়ী, কোটি কোটি টাকার সম্পদ, শিল্প কল-কারখানা সবই আছে। আর তার সন্তানের একটি থাকার ঘর ছাড়া কিছুই নাই, লেখা পড়াও জানা নাই। সারা দিন যা রোজগার করে তা দিয়েই সংসার চালায় এবং প্রায় এসে দেখা করে! আমার জন্য তোমার কেমন লাগে জানিনা! তুমি আমাকে ছাড়া কিছুই বুঝতে না। আমি কখনও তোমার চোখের আড়াল হলে মা, মা বলে চি’ৎকার করতে আর সারা বাড়ি খোঁঁজা-খুুুজি করতে। মাকে ছাড়া কারও কোলে তুমি যেতে না। তুমি যখন খুব ছোট, তোমার বয়স পাঁচ বছর, তখন তোমার সারা শ’রীরে ঘাঁ’ হয়েছিল, পঁ’চা দু’র্গ’ন্ধ ছড়াচ্ছিল, শ’রীর থেকে মাং’স খঁ’সে পড়ছিল, কেউ ভঁ’য়ে তোমার চার পাশ দিয়ে হাঁটছিল না। তোমার বাবা আর আজকের বৃদ্ধাশ্রমের তোমার এই মা, রাতের পর রাত জেগে থেকে তোমাকে সুস্থ্য করে তুলে ছিল! তোমার সারা শ’রীরে এখনও দেখ, সে ঘাঁ’য়ের ক্ষ’ত আছে। এগুলো তোমার মনে থাকার কথা নয়। তুমি এক মুহূর্ত আমাকে না দেখে থাকতে পারতে না। রাতের বেলায় তোমার মাথায় হাত না বুলিয়ে দিলে তুমি ঘুমাতে পারতে না। এখন তোমার কেমন ঘুম হয় বাবা? আমার কথা কি তোমার একবারও মনে হয় না? তোমার প্রতি আমার কোনো অভি’যোগ নেই। আমার কপালে যা লেখা ছিল তা হয়েছে। আমার জন্য তুমি কোনো চিন্তা করো না। আমি খুব ভালো আছি। কেবল তোমার ঐ চাঁদ মুখখানি দেখতে আমার খুব মন চায়। তুমি ঠিক মতো খাওয়া-দাওয়া করবে। আমার আদরের প্রিয় দিদা-ভাই, দিদা-মণি, বৌ-মার প্রতি যত্ন নিও। আমার জিজ্ঞেস করলে তাদের বলো, আমি অনেক ভালো আছি! আমি দোয়া করি, তোমাকে যেন আমার মত, বৃদ্ধাশ্রমে থাকতে না হয়! কোন এক জোস্না ভরা রাতে আকাশ পানে তাকিয়ে জীবনের অতীত, বর্তমান ও ভবিষ্যৎ নিয়ে একটু ভেবে নিও। তাহলেই বিবেকের কাছে উত্তর পেয়ে যাবে। তোমার ছোটবেলার একটি ছবি আমার কাছে রেখে দিয়েছি। ছবিটা দেখে মনে মনে ভাবি এটাই কি আমার সেই খোকা! (বৃদ্ধাশ্রম থেকে এভাবে বেদনা ভরা একটি খোলা চিঠি, ছেলের উদ্দেশ্যে লিখেছেন আমিনা খাতুন নামে (ছদ্মনাম) এক বৃদ্ধা “মা”।)

All News Report

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

২৭ হাজার প্রবাসীর আকামা বাতিল

২৭ হাজার প্রবাসীর আকামা বাতিল

ফেসবুক লাইভে ঘোষণা দিয়ে আত্মহত্যা

ফেসবুক লাইভে ঘোষণা দিয়ে আত্মহত্যা

যুদ্ধাপরাধ মামলায় ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামির মৃত্যু

যুদ্ধাপরাধ মামলায় ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামির মৃত্যু

প্রাথমিক বিদ্যালয় নীতিমালায় পরিবর্তন আসছে

প্রাথমিক বিদ্যালয় নীতিমালায় পরিবর্তন আসছে

আল্লামা আহমেদ শফীর জানাজা সময় ও স্থান

আল্লামা আহমেদ শফীর জানাজা সময় ও স্থান

মৌলভীবাজার নির্বাচনে লড়বেন লুৎফুর রহমান সুইট

মৌলভীবাজার নির্বাচনে লড়বেন লুৎফুর রহমান সুইট

সাঘাটায় শিশূ ধর্ষণের ধর্ষক ৯ বছরের শিশু সংশোধনাগারে

সাঘাটায় শিশূ ধর্ষণের ধর্ষক ৯ বছরের শিশু সংশোধনাগারে

আল্লামা শফি ইন্তেকাল করেছেন

আল্লামা শফি ইন্তেকাল করেছেন

রাতভর সংঘর্ষে রক্তাক্ত আফগানিস্তান, নিহত অর্ধশত

রাতভর সংঘর্ষে রক্তাক্ত আফগানিস্তান, নিহত অর্ধশত

অভিনব পদ্ধতিতে বৈদ্যুতিক মিটার চুরি

অভিনব পদ্ধতিতে বৈদ্যুতিক মিটার চুরি

ইয়াবাসহ বাসযাত্রী গ্রেপ্তার

ইয়াবাসহ বাসযাত্রী গ্রেপ্তার

স্ত্রীকে কুপিয়ে ৯৯৯-এ ফোন আওয়ামী লীগ নেতার

স্ত্রীকে কুপিয়ে ৯৯৯-এ ফোন আওয়ামী লীগ নেতার

২ বাস ও মাইক্রোর সংঘর্ষে চারজন নিহত, আহত ২০

২ বাস ও মাইক্রোর সংঘর্ষে চারজন নিহত, আহত ২০

মহাজোটের মানববন্ধন দূর্গা পুজায় ৩ দিনের ছুটি

মহাজোটের মানববন্ধন দূর্গা পুজায় ৩ দিনের ছুটি

স্ত্রীকে কুপিয়ে ৯৯৯ এ ফোন দেন পাষণ্ড স্বামী

স্ত্রীকে কুপিয়ে ৯৯৯ এ ফোন দেন পাষণ্ড স্বামী

সর্বশেষ

মসজিদ বিস্ফোরণ- তিতাসের প্রোকৌশলী সহ ৮ জন গ্রেফতার

মসজিদ বিস্ফোরণ- তিতাসের প্রোকৌশলী সহ ৮ জন গ্রেফতার

টেনশনে আব্বার হার্ট ফেল করেছিল : আনাস মাদানী

টেনশনে আব্বার হার্ট ফেল করেছিল : আনাস মাদানী

আল্লামা আহমদ শফীর বর্ণাঢ্য জীবনী

আল্লামা আহমদ শফীর বর্ণাঢ্য জীবনী

কবিতার অনন্য জগত

কবিতার অনন্য জগত

বিয়ের আসর থেকে কনেকে অপহরণের চেষ্টা করলো ছাত্রলীগ নেতা

বিয়ের আসর থেকে কনেকে অপহরণের চেষ্টা করলো ছাত্রলীগ নেতা

মেয়েকে ধরিয়ে দিতে পত্রিকায় বাবার বিজ্ঞাপন

মেয়েকে ধরিয়ে দিতে পত্রিকায় বাবার বিজ্ঞাপন

হাঁটা শরীরের জন্য কতটা উপকারীতা জানলে আপনি অবাক হবেন

হাঁটা শরীরের জন্য কতটা উপকারীতা জানলে আপনি অবাক হবেন

হুজুরকে হারিয়ে আমরা অসহায় হয়ে পড়েছি’

হুজুরকে হারিয়ে আমরা অসহায় হয়ে পড়েছি’

হাওরে যাওয়া হলো না বাবা-ছেলের

হাওরে যাওয়া হলো না বাবা-ছেলের

ঠাকুরগাঁওয়ে স্ত্রীর হাত ও পা ভেঙে দেয়ার অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধে

ঠাকুরগাঁওয়ে স্ত্রীর হাত ও পা ভেঙে দেয়ার অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধে

আল্লামা শাহ আহমদ শফীর মরদেহ হাটহাজারী মাদ্রাসায়

আল্লামা শাহ আহমদ শফীর মরদেহ হাটহাজারী মাদ্রাসায়

আল্লামা আহমদ শফির চিরপ্রস্থানে দেশময় শোকের ছায়া

আল্লামা আহমদ শফির চিরপ্রস্থানে দেশময় শোকের ছায়া

মৃত সরকারি কর্মকর্তাকে বদলি করে প্রজ্ঞাপন জারি

মৃত সরকারি কর্মকর্তাকে বদলি করে প্রজ্ঞাপন জারি

করোনাভাইরাসের মহামারি ক্ষতি কাটাতে অনুদান বাড়ালো এডিবি

করোনাভাইরাসের মহামারি ক্ষতি কাটাতে অনুদান বাড়ালো এডিবি

সীমান্ত হত্যা বন্ধের ব্যাপারে সর্বোচ্চ প্রাধান্য দেওয়ার প্রতিশ্রুতি

সীমান্ত হত্যা বন্ধের ব্যাপারে সর্বোচ্চ প্রাধান্য দেওয়ার প্রতিশ্রুতি