• 0
  • 0
M. R. Sumon
Posted at 02/12/2020 04:10:pm

ব্যাডমিন্টন খেলায় বিদ্যুতিক লাইন থেকে বিদ্যুৎ সংযোগ সরকার কর্তৃক অনুমোদনের দাবি

ব্যাডমিন্টন খেলায় বিদ্যুতিক লাইন থেকে বিদ্যুৎ সংযোগ সরকার কর্তৃক অনুমোদনের দাবি

ব্যাডমিন্টন-শীত মৌসুমে প্রায় সকলেরই প্রিয় একটি খেলার নাম। সন্ধ্যার পরপরই শুরু হয় এর আমেজ গ্রাম কিংবা শহর সর্বত্রই। বিলাসবহুল খেলা নামেও পরিচিত ব্যাডমিন্টন খেলা। মালয়েশিয়ার জাতীয় এই খেলাটি বাংলাদেশে রেকেট খেলা নামে জনমুখে অধিক সমুদিত। মূলত ব্যাডমিন্টন খেলতে যে ব্যাট ব্যবহার করা হয় তার নাম রেকেট। ব্যাডমিন্টন খেলতে রেকেট ও ফ্লেদার/ ফ্লাওয়ার/কক নামে একটি ফুল প্রয়োজন যার প্রতিটির মূল্য ৩০ টাকা থেকে ৬০ টাকা কিংবা আরো বেশি। একটি ফুল দিয়ে ১টি কিংবা দুইটি ম্যাচ খেলা সম্ভবপর হয়। যার জন্যেই এই খেলাকে বিলাসবহুল খেলা বলেও সম্বোধন করা হয়।

ব্যাডমিন্টন খেলাটা পরিচালিত হতে সবচেয়ে বেশি যেটা প্রয়োজন তাহলো বিদ্যুৎ সংযোগ।গ্রামে গ্রামে রাস্তার পাশে, বাড়ির উঠোনে, খলায় কিংবা শহরের গলিতে গলিতে হয় এর আয়োজন। নিজস্ব কিংবা সরকারি লাইন থেকে সংযোগ দিয়ে বিদ্যুৎ সরবরাহের কাজটা করা হয় ভয়ভীতিহীনভাবে অনায়েসেই। ব্যাডমিন্টন খেলার জন্য সরকারি লাইন থেকে বিদ্যুৎ সংযোগ যেন সরকার থেকে ঘোষণাবিহীন বৈধ সেটা ধরেই নেওয়া হয়। সরকার থেকে এই ঘোষণা করা হোক যে ব্যাডমিন্টন খেলার জন্য বৈদ্যুতিক লাইন থেকে সংযোগ বৈধ্য কিংবা অনুমোদিত বর্তমান সময়ের যুব সমাজের তথা ব্যাডমিন্টন প্রেমি সকলের দাবি।

বর্তমান করোনাকালীন মহামারির এই সময়ে সবাই প্রায় অলস সময় কাটাচ্ছে বিশেষত স্কুল কলেজ, ভার্সিটি পড়ুয়া ছেলে গুলো বসে থেকে থেকে স্থূলকায় উদ্যমহীন অবস্থায় আছে। এই শীতের সময়টাতে করোনাভাইরাসের মহামারি বেড়ে যাওয়ারও ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে। করোনাভাইরাস তাদেরকেই খুব সহজে ঘায়েল করছে যাদের শরীরের প্রতিরোধ ক্ষমতা একে বাড়ে কম। করোনাভাইরাস এ আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা এবং মৃত্যের সংখ্যার সিংহভাগ শহরস্থ মানুষের। গ্রামের মানুষ খেটে খাওয়া, এরা পরিশ্রমী। তাদের প্রতিরোধ ক্ষমতাও অনেকাংশে অন্যদের তুলনায় বেশি।


ব্যাডমিন্টন খেলা হতে পারে দৈনিক ব্যায়ামচর্চার একটি মাধ্যম। এর মাধ্যমে শরীরের দুর্বলতা, শ্বাসকষ্ট, রক্তসঞ্চালন ও শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিসহ রয়েছে নানা উপকারিতা। ব্যাডমিন্টন খেলার জন্য যে বিদ্যুৎ প্রয়োজন সেটা সরকারি লাইন থেকেই সচারাচর নেওয়া হয়ে থেকে। সমাজে এর রয়েছে বিভিন্নমুখী আলোচনা সমালোচনা। ইসলামিক চিন্তাবিদরা বলেন এইটা হারাম। আপনি কারো ব্যক্তির টাকা নিলে সেটা তাকে পরিশোধের সুযোগ আছে কিন্তু সরকারি বিদ্যুৎ যে খরচ করছেন তা পরিশোধ করার উপায় কী? প্রশাসন বলে- অনৈতিক সংযোগ মারাত্মক অপরাধ। এটি শাস্তিযোগ্য এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে তৎপর। আর যুব সমাজ কিংবা যারা ব্যাডমিন্টন খেলেন তাদের ভাষ্যমতে -সরকারকে কর দিচ্ছি, বিভিন্ন ভাবে সরকারকে সহযোগিতা করি আমরা এই যুব সমাজ তাহলে শীতকালীন এই দুঘণ্টা সময়ের জন্য একটু বিদ্যুৎ খরচ করলে এটা খুব অপরাধ হয়ে যায়? অনেকেই অন্যায় অনৈতিক ভাবে  অটো(ছোট যান) চার্জ করে, অনৈতিক সংযোগে মেইল কারখানা চালাচ্ছে সেগুলোকে খোঁজে খোঁজে ধরে শাস্তির আওতায় আনা উচিত। যুব সমাজকে মাদক ইয়াবা অন্যান্য অনৈতিক কাজ থেকে মুক্ত রেখে ব্যাডমিন্টন খেলায় যুক্ত রাখা ইহাও একটি ভালো দিক হতে পারে।

ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড়দের তীব্র দাবি ব্যাডমিন্টন খেলার জন্য বিদ্যুৎ খরচ সরকার থেকে বহন করবে ঘোষণা করা হোক অর্থাৎ সাময়িক এই শীতের সময়ে যুব সমাজের জন্য ব্যাডমিন্টন খেলার জন্য সরকারি বৈদ্যুতিক লাইন থেকে সংযোগ সরকার অনুমোদন করে। তাহলে ইসলামিক দিক দিয়েও বাঁচা যায় এবং যুব সমাজকে ইয়াবা, মাদক, নেশাদায়ক জায়গা থেকে ফিরিয়ে ব্যাডমিন্টন খেলামুখী করা যায় এতে করে করোনাভাইরাস প্রতিরোধেও ভূয়সী ভূমিকা রাখবে।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ