Wednesday -
  • 0
  • 0
Verified আই নিউজ বিডি ডেস্ক
Posted at 26/11/2020 12:19:pm

দিয়েগো মারাদোনার জাদুকরী ৫ গোল

দিয়েগো মারাদোনার জাদুকরী ৫ গোল

ফুটবল মাঠে দিয়েগো মারাদোনা যেন ছিলেন একজন শিল্পী। গতি আর বাঁ পায়ের কারিকুরিতে উপহার দিয়েছেন জাদুকরী কত মুহূর্ত। প্লেমেকার হিসেবে সতীর্থদের দিয়ে গোল করানোতেই ছিল তার আনন্দ। নিজেও পেয়েছেন জালের দেখা। এর অনেকগুলোই কালের সীমানা ছাড়িয়ে জায়গা করে নিয়েছে ফুটবলের গল্পগাঁথায়। 

পুরো পৃথিবীকে শোকে ভাসিয়ে চিরবিদায় নিয়েছেন এই আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি। তিনি চলে গেছেন, কিন্তু রেখে গেছেন অসাধারণ সব মুহূর্ত। একক নৈপুণ্যে দেশকে এনে দিয়েছেন বিশ্বকাপ, পরের আসরে নিয়ে গেছেন ফাইনালে।   

তার সেরা পাঁচ গোল নিয়ে আই নিউজ বিডির পাঠকদের জন্য এই আয়োজন। ১৯৮৬ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার-ফাইনালে আর্জেন্টিনা-ইংল্যান্ড লড়াইয়ে মারাদোনার দুই গোল স্থায়ী জায়গা করে নিয়েছে ইতিহাসের পাতায়। একটি পরিচিত ‘হ্যান্ড অব গড’ গোল নামে, ‘অন্যটি গোল অব দা সেঞ্চুরি।’   

সেই আসরেই বেলজিয়ামের বিপক্ষে দ্বিতীয় গোল এবং এর আগের বছর নাপোলির হয়ে দুটি গোল জায়গা পেয়েছে এই তালিকায়। 

‘হ্যান্ড অব গড’ গোল 

১৯৮৬ বিশ্বকাপে, মেক্সিকো সিটিতে ২২ জুনের সেই ম্যাচে গোলশূন্য প্রথমার্ধের পর দ্বিতীয়ার্ধে গতিপথ পাল্টে দেন মারাদোনা। 

অনেকে শুধু হাত দিয়ে গোলের কথাই মনে রেখেছেন। তবে এই গোলেও বাঁ পায়ের জাদু দেখিয়েছিলেন আর্জেন্টিনা অধিনায়ক। মাঝমাঠে বল পাওয়ার পর বেশ কয়েকজন ইংলিশ খেলোয়াড়কে এড়িয়ে অনেকটা এগিয়ে হোর্হে ভালদানোকে খুঁজে নিয়ে এগোতে থাকেন তিনি। 

ডি-বক্সের মুখে থাকা ভালদানো পাস পান একটু পেছনে। তার সঙ্গে লেগে থাকা স্টিভ হজ পেয়ে যান বলের নাগাল। তিনি বল ক্লিয়ার করার চেষ্টায় ছিলেন, কিন্তু ঠিকমতো শট নিতে পারেননি। বল যায় পেনাল্টি স্পটের কাছে। 

৬ ফুট ১ ইঞ্চি লম্বা ইংলিশ গোলরক্ষক পিটার শিলটনের চেয়ে ৮ ইঞ্চি খাটো হলেও মারাদোনাই পান বলের নাগাল। বাঁ হাত বাড়িয়ে হেডের ভঙ্গিমায় খুঁজে নেন জাল। শিলটনসহ ইংলিশ খেলোয়াড়রা হ্যান্ডবলের দাবি জানাতে থাকলেও এতে সাড়া দেননি রেফারি আলি বিন নাসের। তিনি বুঝতেই পারেননি, মারাদোনা মাথার জায়গায় হাত দিয়ে গোল করেছেন। 

পরে মারাদোনা জানান, রেফারি যেন কিছু সন্দেহ না করে, এ জন্য সতীর্থদের তাকে জড়িয়ে ধরতে বলেছিলেন। 

ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান, কিছুটা মারাদোনার মাথা আর কিছুটা ঈশ্বরের হাতের সহায়তায় এসেছে এই গোল। সেই থেকে এই গোল ফুটবলের গল্প-গাঁথায় পরিচিত ‘হ্যান্ড অব গড’ গোল নামে।



শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ