Wednesday -
  • 0
  • 0
sk deen mahmud
Posted at 24/11/2020 06:04:pm

আবহাওয়ার অনুকুল পরিবেশে পাইকগাছায় আমনের বাম্পার ফলন

আবহাওয়ার অনুকুল পরিবেশে পাইকগাছায় আমনের বাম্পার ফলন

আবহাওয়ার অনুকূল পরিবেশ বিদ্যমান থাকায় চলতি মৌসুমে খুলনার পাইকগাছায় আমনের বাম্পার ফলন হয়েছে। ইতোমধ্যে কৃষকদের অনেকেই ধান কাটতে শুরু করেছেন। উৎপাদন ও দাম ভাল পাওয়ায় তাদের সকলেই খুশী। উপজেলা কৃষি সম্পসারণ অধিদপ্তর চলতি মৌসুমে ১৭ হাজার ১০০ হেক্টর জমিতে আমন চাষাবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে। তাদের দাবি, লক্ষ্যমাত্রার চেয়েও বেশি পরিমাণ জমিতে আমনের আবাদ হয়েছে। 

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর জানায়, চলতি মৌসুমে পাইকগাছা উপজেলার ১০ টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভায় ১৭ হাজার ২০ হেক্টর জমিতে উন্নত ও দেশীয় জাতের আমনের আবাদ হয়েছে।

উন্নত জাতের মধ্যে রয়েছে বিআর-১০, বিআর-১১, বিআর-২৩, ব্রি-ধান ৩৯, ব্রি-ধান ৪৯, ব্রি-ধান ৭৬, ব্রি -ধান ৭৩, বিনা-১৯, বিনা-০৭। এছাড়া স্থানীয় জাতের মধ্যে রয়েছে, হরিভোগ, হরকোচ, জটাবালাম ও আশফাইল। 

উপজেলার কপিলমুনির কাশিমনগর গ্রামের শেখ রবিউল ইসলাম জানান, চলতি মৌসুমে তিনি সাত বিঘা জমিতে বিআর-২৩ ও ব্রি-ধান ৪৯ আবাদ করেন। ফলন ভালো হয়েছে। 

গজালিয়ার আমন উল্লাহ ফকির ছয় বিঘা জমিতে বিআর-১০ ও ২৩ এবং ব্রি-ধান ৪৯ চাষ করেন। দু’একদিনের মধ্যে ধান কাটা শুরু করবেন বলে জানান। বিগত বছরের চেয়ে এ বছর আমনের ভালো ফলন হয়েছে তিনি দাবি করেন। 

উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মো. জাহাঙ্গীর আলম জানান, কাইচ থোড় অবস্থায় আমন ফসলে পাতা মোড়ানো মাজরা ও গাছফড়িংয়ের আক্রমণ হয়। 

পোকার উপস্থিতি টের পেয়ে কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে আলোক ফাঁদ স্থাপনসহ পোকা দমনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ এবং কৃষকদের নানাভাবে পরামর্শ ও সহযোগিতা করা হয়। যার ফলে পোকায় ফসলের তেমন কোনো ক্ষতি করতে পারেনি। আশা করছি হেক্টর প্রতি ৫ দশমিক ৭ মেট্রিক টন ধান উৎপাদন হবে।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ