• 0
  • 0
মোঃ হোসাইন আলী কাজী
Posted at 24/11/2020 05:33:pm

আমতলী থানা পুলিশের জব্দকৃত গাছ চুরি স্ব-মিল থেকে উদ্ধার!

আমতলী থানা পুলিশের জব্দকৃত গাছ চুরি স্ব-মিল থেকে উদ্ধার!

আমতলী থানা পুলিশের জব্দকৃত গাছ এলাকার চিহিৃত চোর শহীদ ফকির চুরি করে নিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। চুরি হওয়া গাছ মঙ্গলবার দুপুরে পৌর শহরের ফায়ার সার্ভিস এলাকার পাহলান স্ব-মিল থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। পরে ওই গাছ পুলিশের এস আই শহীদুল আলম গাছের মালিক সাংবাদিক পরিতোষ কুমার কর্মকারের জিম্মায় দিয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। 

জানাগেছে, আমতলী পৌর শহরের বাসিন্দা সাংবাদিক পরিতোষ  কুমার কর্মকার ২০০২ সালে চাওড়া মৌজায় ৩২২ নং খতিয়াতে ১৬৫১সহ ৫ টি দাগে ৪ শতাংশ জমি ক্রয় করে। জমি ক্রয়ের পর থেকে ওই জমিতে তিনি চাম্বল, মেহগনি, আকাশমনি ও রেইন্ট্রিসহ বিভিন্ন প্রজাতির গাছ রোপন করেন। ওই গাছ বর্তমানে বৃহৎ গাছে পরিনত হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার ভোররাতে ওই জমির ১৪ টি গাছ একাধিক মামলার আসমী এলাকার চিহিৃত চোর শহীদ ফকির ও তার লোকজন কেটে ফেলে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনা¯’লে গিয়ে ১৪ টি গাছ জব্দ করে। পুলিশের ওই জব্দকৃত গাছ শহীদ ফকির সোমবার রাতে চুরি করে ফায়ার সার্ভিস এলাকার পাহলান স্ব-মিলে রেখে আসে। মঙ্গলবার দুপুরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমতলী থানার এসআই মোঃ শহীদুল আলম স্ব-মিল থেকে গাছ উদ্ধার করে। পরে গাছের মালিক পরিতোষ কর্মকারের জিম্মায় উদ্ধার হওয়া গাছ রেখে দেয়। 

স্ব-মিলের শ্রমিক মোঃ নুরুল ইসলাম ও আব্দুর রাজ্জাক বলেন, এলাকার চিহিৃত চোর চক্রের হোতা শহীদ ফকির ১৪ টি গাছ স্ব-মিলে রেখে গেছে। তারা আরো বলেন,  আমরা স্ব-মিলে গাছ রাখতে চাইনি শহীদ জোর করে রেখে গেছে। 

স্ব-মিল মালিক মোঃ হাবিবুর রহমান ফকির বলেন, শহীদ ফকির এলাকার একটি চিহিৃত চোর। ওই গাছ চুরি করে আমার স্ব-মিলে রেখে গেছে। তিরি আরো বলেন, আমার শ্রমিকরা গাছ রাখতে চায়নি।  আমতলী থানার এসআই মোঃ শহীদুল আলম বলেন, ওসির নির্দেশে গাছ উদ্ধার করে গাছের মালিক পরিতোষ কুমার কর্মকারের জিম্মায় রাখা হয়েছে। 

গাছের মালিক পরিতোষ কুমার কর্মকার বলেন, গাছ উদ্ধার করে পুলিশ আমার জিম্মায় দিয়েছে।   

আমতলী থানার ওসি মোঃ শাহ আলম হাওলাদার বলেন, জব্দকৃত চুরি হওয়া গাছ উদ্ধার করা হয়েছে। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।  


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ