Feedback

জাতীয়

কাপড়ের দোকানের সেলসম্যান মনির যেভাবে গোল্ডেন মনির

কাপড়ের দোকানের সেলসম্যান মনির যেভাবে গোল্ডেন মনির
November 21
04:49pm
2020
MD Emran
Bhaluka, Mymensingh:
Eye News BD App PlayStore

রাজধানীর মেরুল বাড্ডা থেকে অবৈধ অস্ত্র ও মাদকসহ গ্রেপ্তার করা হয়েছে স্বর্ণ ব্যবসায়ী মনির হোসেন ওরফে গোল্ডেন মনিরকে। গতকাল শুক্রবার মধ্যরাতে তার বাসায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। 

আজ শনিবার বেলা সাড়ে ১১টায় সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহ বলেন, ‘একটি গোয়েন্দা সংস্থার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে এ অভিযান চালানো হয়। ’ 

তিনি বলেন, ‘নব্বইয়ের দশকে গাউছিয়া মার্কেটের একটি কাপড়ের দোকানের সেলসম্যান হিসেবে কাজ করতেন মনির। এরপর রাজধানীর মৌচাকের একটি ক্রোকারিজ দোকানে তিনি কাজ নেন। সে সময় এক লাগেজ ব্যবসায়ীর সঙ্গে পরিচয় হলে মনির লাগেজ ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত হন। ঢাকা-সিঙ্গাপুর–ভারত রুটে তিনি প্রথমে লাগেজে করে কাপড়, কসমেটিক, ইলেকট্রনিকস, কম্পিউটার সামগ্রী, মোবাইল, ঘড়িসহ বিভিন্ন জিনিসপত্র ট্যাক্স ফাঁকি দিয়ে আনা-নেওয়া করতেন।’ 

আশিক বিল্লাহ বলেন, ‘এই কাজগুলো করতে করতে তিনি লাগেজ স্বর্ণ চোরাচালানে জড়িয়ে পড়েন। বায়তুল মোকাররমে একটি জুয়েলারি দোকান দেন, যা তার এই চোরাকারবারি কাজে সাহায্য করে। সময়ের ব্যবধানে মনির বড় ধরনের স্বর্ণ চোরাচালানকারী হিসেবে পরিচিতি লাভ করেন। তার নাম হয়ে যায় গোল্ডেন মনির। চোরাচালানের দায়ে ২০০৭ সাল বিশেষ ক্ষমতা আইনে রাজধানীর বিভিন্ন থানায় তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলা হয়।’ 

তিনি বলেন, ‘ভূমিদস্যুতার মাধ্যমে মনির অসংখ্য প্লটের মালিক হয়েছেন। রাজউক থেকে প্লটসংক্রান্ত সরকারি নথিপত্র চুরি করে এবং অবৈধভাবে রাজউকের বিভিন্ন কর্মকর্তাকে দাপ্তরিক কাজে ব্যবহার করে রাজউক, পূর্বাচল, বাড্ডা, নিকুঞ্জ, উত্তরা এবং কেরানীগঞ্জে নামে-বেনামে অন্তত দুই শতাধিক প্লট নিজের করে নেন। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মনির ৩০টির বেশি প্লটের কথা স্বীকার করেছেন।’ 

র‌্যাবের মুখপাত্র বলেন, ‘রাজউকের ৭০টি ফ্ল্যাটের নথি নিয়ে গিয়ে আইনবহির্ভূতভাবে হেফাজতে রাখায় ২০১৯ সালে মনিরের বিরুদ্ধে রাজউক কর্তৃপক্ষ একটি মামলা করে। সেটি চলমান রয়েছে। এ ছাড়া অনৈতিকভাবে দুর্নীতির আশ্রয় নিয়ে বিপুল সম্পদ অর্জন করায় তার বিরুদ্ধে দুদকের মামলা চলছে।’ 

তিনি বলেন, ‘প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের ভূমি জালিয়াতি সম্পর্কে মনির বলেছেন- ২০০১ সালে তৎকালীন প্রভাবশালী মন্ত্রী, গণপূর্ত কর্মকর্তা ও রাজউকের কর্মকর্তাদের সঙ্গে অন্তরঙ্গ সম্পর্ক করে তিনি রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে ভূমি জালিয়াতি শুরু করেন।’ 

সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব জানায়, গোল্ডেন মনিরের বাসা থেকে বিদেশি একটি পিস্তল, চারটি গুলি, চার লিটার বিদেশি মদ, ৩২টি নকল সিল, ২০ হাজার ৫০০ সৌদি রিয়াল, ৫০১ ইউএস ডলার, ৫০০ চাইনিজ ইয়েন, ৫২০ রুপি, ১ হাজার সিঙ্গাপুরের ডলার, ২ লাখ ৮০ হাজার জাপানি ইয়েন, ৯২ মালয়েশিয়ান রিঙ্গিত, হংকংয়ের ১০ ডলার, ১০ ইউএই দিরহাম, ৬৬০ থাই বাথ জব্দ করা হয়েছে। এগুলোর মূল্যমান ৮ লাখ ২৭ হাজার ৭৬৬ টাকা। এ ছাড়া ৬০০ ভরি স্বর্ণালংকার এবং নগদ ১ কোটি ৯ লাখ টাকা জব্দ করা হয়েছে।

All News Report

Add Rating:

0

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জের আলোচিত শিশু সানজিদা হত্যার দায় স্বীকার করলো গর্ভধারিনী মা

বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জের আলোচিত শিশু সানজিদা হত্যার দায় স্বীকার করলো গর্ভধারিনী মা

মসজিদের কক্ষে প্রেমিকার সঙ্গে অন্তরঙ্গ মুহূর্তে ধরা ইমাম

মসজিদের কক্ষে প্রেমিকার সঙ্গে অন্তরঙ্গ মুহূর্তে ধরা ইমাম

কিশোরগঞ্জে স্কুলছাত্র হত্যা মামলায় মেয়ের ফাঁসি ও মায়ের যাবজ্জীবন

কিশোরগঞ্জে স্কুলছাত্র হত্যা মামলায় মেয়ের ফাঁসি ও মায়ের যাবজ্জীবন

পানিতে সারা-বরুণের ঠোঁটঠাসা চুমু, "কুলি নম্বর ১"এর ট্রেলার নিয়ে হইচই

পানিতে সারা-বরুণের ঠোঁটঠাসা চুমু, "কুলি নম্বর ১"এর ট্রেলার নিয়ে হইচই

জামালপুরে শিশুপুত্রকে হত্যার দায়ে পিতার মৃত্যুদন্ড

জামালপুরে শিশুপুত্রকে হত্যার দায়ে পিতার মৃত্যুদন্ড

নিজ পুত্রবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে সুন্দরগঞ্জে ধর্ষক শ্বশুর গ্রেফতার

নিজ পুত্রবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে সুন্দরগঞ্জে ধর্ষক শ্বশুর গ্রেফতার

২০২০ সালে বিচ্ছেদ হলো যাদের

২০২০ সালে বিচ্ছেদ হলো যাদের

বেনাপোল বর্ডার দিয়ে দেড় বছর পরে দেশে ফিরল ৪ বাংলাদেশী যুবতী

বেনাপোল বর্ডার দিয়ে দেড় বছর পরে দেশে ফিরল ৪ বাংলাদেশী যুবতী

বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদের প্রেসিডিয়াম সদস্য হলেন সৈয়দ আশফাকুল ইসলাম টিটু

বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদের প্রেসিডিয়াম সদস্য হলেন সৈয়দ আশফাকুল ইসলাম টিটু

দ্বিতীয় ধাপে ৬০ পৌরসভার ভোট জানুয়ারিতে, একটি দলের নিবন্ধন বাতিল

দ্বিতীয় ধাপে ৬০ পৌরসভার ভোট জানুয়ারিতে, একটি দলের নিবন্ধন বাতিল

শীতে এলেই বাড়ে হাড়ের ব্যথা, কী করবেন

শীতে এলেই বাড়ে হাড়ের ব্যথা, কী করবেন

খাল ধ্বংস করে সড়ক নির্মাণ

খাল ধ্বংস করে সড়ক নির্মাণ

১০ বছর প্রেম করে বিয়ের মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল বাবর

১০ বছর প্রেম করে বিয়ের মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল বাবর

ভাস্কর্য আর মূর্তি এক নয়: ধর্মপ্রতিমন্ত্রী

ভাস্কর্য আর মূর্তি এক নয়: ধর্মপ্রতিমন্ত্রী

প্রভাষক জোসেফ খান আর নেই

প্রভাষক জোসেফ খান আর নেই

সর্বশেষ

ইতিহাসের আজকের দিনেঃ ৩০ নভেম্বর

ইতিহাসের আজকের দিনেঃ ৩০ নভেম্বর

নওগাঁয় করোনার দ্বিতীয় তরঙ্গ মোবাবেলায় সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ

নওগাঁয় করোনার দ্বিতীয় তরঙ্গ মোবাবেলায় সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ

ছোট শিশুর মৃত্যু

ছোট শিশুর মৃত্যু

জমসেদ আলীর নামে ফেসবুক ও অনলাইন পোর্টালে প্রকাশিত মিথ্যা খবরের প্রতিবাদ

জমসেদ আলীর নামে ফেসবুক ও অনলাইন পোর্টালে প্রকাশিত মিথ্যা খবরের প্রতিবাদ

এবার বেবি পাম্প নিয়ে হাজির অনুষ্কা শর্মা

এবার বেবি পাম্প নিয়ে হাজির অনুষ্কা শর্মা

ধারাবাহিক আল কোরআন ; সূরা আল বাকারা, আয়াত ৭৫, বাংলা তরজমা ও তাফসির !

ধারাবাহিক আল কোরআন ; সূরা আল বাকারা, আয়াত ৭৫, বাংলা তরজমা ও তাফসির !

শিক্ষা ব্যবস্থার করুণ দশা! কি হতে যাচেছ সামনে?

শিক্ষা ব্যবস্থার করুণ দশা! কি হতে যাচেছ সামনে?

শুটিংয়ের মাঝেই স্ট্রোক, হাসপাতালে "আশিকি" নায়ক

শুটিংয়ের মাঝেই স্ট্রোক, হাসপাতালে "আশিকি" নায়ক

তাড়াইলে বিএনপি’র দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি  সভা, প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা

তাড়াইলে বিএনপি’র দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি সভা, প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা

"ক্যান্টনমেন্ট কলেজ যশোর" স্বপ্ন পূরণের সারথি

"ক্যান্টনমেন্ট কলেজ যশোর" স্বপ্ন পূরণের সারথি

আরো আধুনিক হচ্ছে রেলের অনলাইন টিকিট ব্যবস্থাপনা

আরো আধুনিক হচ্ছে রেলের অনলাইন টিকিট ব্যবস্থাপনা

কল্লগ্রাম থেকে উদ্ধার, টানা ৮ দিন প্রেমিক ও তার বন্ধুদের ধর্ষনের শিকার কিশোরী

কল্লগ্রাম থেকে উদ্ধার, টানা ৮ দিন প্রেমিক ও তার বন্ধুদের ধর্ষনের শিকার কিশোরী

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় রেল সেতু যেমন হবে

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় রেল সেতু যেমন হবে

ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে কিশোরের আত্মহত্যা

ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে কিশোরের আত্মহত্যা

আগের চেয়ে উন্নতি হয়েছে মাশরাফির

আগের চেয়ে উন্নতি হয়েছে মাশরাফির