Feedback

জাতীয়

নারায়ণগঞ্জে মৃতের দেহে করোনা পজিটিভ

নারায়ণগঞ্জে মৃতের দেহে করোনা পজিটিভ
April 03
01:59pm
2020

আই নিউজ বিডি ডেস্ক Verify Icon
Eye News BD App PlayStore
নিজস্ব প্রতিবেদক: নারায়ণগঞ্জের বন্দরে মৃত নারীর নমুনা পরীক্ষায় করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে। বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর বৃহস্পতিবার রাতে জেলা সিভিল সার্জনের নেতৃত্বে আক্রান্ত নারীর বাড়িসহ ওই এলাকার একশ’ পরিবারকে লকডাউন করেছে উপজেলা প্রশাসন। লকডাউনের বিষয়টি নিশ্চিত করে বন্দর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শুক্লা সরকার জানান, পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত লকডাউন অব্যাহত থাকবে। বন্দর উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা (ইউএনও) শুক্লা সরকার জানান, গত ২৯ মার্চ বন্দর উপজেলার সিটি কর্পোরেশনের ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের রসুলবাগ এলাকায় ৫০ বছর বয়সী এক নারী শ্বাসকষ্ট ও জ্বরে আক্রান্ত হলে স্বজনরা তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। পরে সেখান থেকে তাকে রাজধানীর কুর্মিটোলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার জন্য পরামর্শ দেয়া হলে স্বজনরা তা না মেনে ওই দিনই বাড়িতে ফেরত নিয়ে যান। পরদিন ৩০ মার্চ ওই নারী আবার অসুস্থ হয়ে পড়লে রাজধানীর কুর্মিটোলা হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। পরে কুর্মিটোলা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ওই নারীর নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআর এ পাঠায়। এর মধ্যে স্বজনরা লাশ নারায়ণগঞ্জের বন্দরের বাড়িতে নিয়ে আসেন। এর আগে ওই নারীর হার্ট এ্যাটাক হয়েছিলো বলে জানা যায়। তবে স্বজনরা স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে ভেবে ওই নারীর দুই ছেলে এবং মেয়ের জামাতাসহ অন্যান্য নিকট আত্মীয়-স্বজন স্থানীয় কবরস্থানে লাশ দাফন করেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে আইইডিসিআর এর পরীক্ষায় ওই নারীর করোনা ভাইরাস পজিটিভ বলে শনাক্ত হলে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ ওই এলাকা লকডাউন করার সিদ্ধান্ত নেয়। বৃহস্পতিবার রাত দশটা থেকেই সিভিল সার্জনের নেতৃত্বে উপজেলা প্রশাসন লকডাউনের প্রস্ততি নিতে থাকে। পুরো এলাকায় মাইকিং করে সবাইকে ঘরের ভেতরে থাকতে এবং বের না হতে সতর্ক করে দেয়া হয়। তবে স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তারা বলছেন, ওই নারী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন বলে পরিবার ও এলাকাবাসী শুরু থেকে জানলেও বিষয়টি গোপন রেখে তারা তড়িঘড়ি লাশ দাফন করে ফেলেন। উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা শুক্লা সরকার আরো জানান, নিহত নারীর বাড়িসহ আশেপাশের একাংশ পরিবারকে লকডাউনের আওতায় আনা হয়েছে। সিটি কর্পোরেশনের এই ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের রসুলবাগ এলাকায় প্রবেশের তিনটি রাস্তার দুইটি পথ সরু হওয়ায় টিনের ব্যারিকেড দিয়ে আটকে দেয়া হয়েছে। মূল সড়কের পাশে আক্রান্ত বাড়ির প্রবেশের গলির মুখে পাঁচজন পুলিশ নিয়মিত টহল দেয়ার জন্য মোতায়ন করা হয়েছে। যে দুটি সড়ক বন্ধ করে দেয়া হয়েছে সেখানেও দুজন করে পুলিশ নিয়মিত পাহারায় থাকবে। এছাড়া স্থানীয় পাঁচজন স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ করা হয়েছে। পুলিশের পাশাপাশি তারাও নজরদারি করবেন যাতে ওই একশ’ পরিবারের কোন সদস্য বাড়ি থেকে বের হতে না পারেন। এছাড়া লকডাউনের আওতায় রাখা পরিবারগুলোর সদস্যদের কাছে ইউএনও, সিভিল সার্জন, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা এবং ওসিসহ সবার মোবাইল নম্বর দেয়া হয়েছে। যাতে অন্য কারো শরীরে করোনার উপসর্গ দেখা দিলে তাৎক্ষণিক জানাতে পারেন। এর পাশাপাশি প্রত্যেক পরিবারের চাল ডালসহ যে কোন সামগ্রী প্রয়োজন হলে ফোন করে জানালে প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাদের সরবরাহ করা হবে। সংবাদটি শেয়ার করুন…….

All News Report

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

বরগুনার রিফাত হত্যাঃ স্ত্রী মিন্নিসহ ৬ জনের মৃত্যুদণ্ড

বরগুনার রিফাত হত্যাঃ স্ত্রী মিন্নিসহ ৬ জনের মৃত্যুদণ্ড

সীমান্তে নিখোঁজ হওয়ার ১১ দিন পর মৃতদেহ উদ্ধার

সীমান্তে নিখোঁজ হওয়ার ১১ দিন পর মৃতদেহ উদ্ধার

যাদের ভিসার মেয়াদ শেষ তাদের বিষয়ে কিছু করার নেই: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

যাদের ভিসার মেয়াদ শেষ তাদের বিষয়ে কিছু করার নেই: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

মাধ্যমিকে ফেল করা মাহাবুব এখন সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র

মাধ্যমিকে ফেল করা মাহাবুব এখন সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র

মিন্নিসহ সব আসামীদের সাজা চাইলেন রিফাতের বোন

মিন্নিসহ সব আসামীদের সাজা চাইলেন রিফাতের বোন

রিফাত হত্যার মাস্টারমাইন্ড মিন্নি: রাষ্ট্রপক্ষ

রিফাত হত্যার মাস্টারমাইন্ড মিন্নি: রাষ্ট্রপক্ষ

ইউএনও ওয়াহিদা খানম হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাচ্ছেন

ইউএনও ওয়াহিদা খানম হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাচ্ছেন

মাজহারের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুললেন শাওন

মাজহারের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুললেন শাওন

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটি বৃদ্ধি নিয়ে যা বললেন মন্ত্রী

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটি বৃদ্ধি নিয়ে যা বললেন মন্ত্রী

৩০ দিনের মধ্যে জাহালমকে ১৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেবে ব্র্যাক ব্যাংক

৩০ দিনের মধ্যে জাহালমকে ১৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেবে ব্র্যাক ব্যাংক

মিনিকেট চালের দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে খাদ্য মন্ত্রণালয়

মিনিকেট চালের দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে খাদ্য মন্ত্রণালয়

হত্যার পর নদীতে ফেলে দেয়া যুবক ফিরলেন ৬ বছর পর!

হত্যার পর নদীতে ফেলে দেয়া যুবক ফিরলেন ৬ বছর পর!

খাদ্যনালী কেটে ফেললেন নার্স, সংকটাপন্ন রুগি

খাদ্যনালী কেটে ফেললেন নার্স, সংকটাপন্ন রুগি

বিএনপির সাবেক সভাপতি লৎফর রহমান মিন্টুর ইন্তিকাল

বিএনপির সাবেক সভাপতি লৎফর রহমান মিন্টুর ইন্তিকাল

স্পর্শকাতর স্থানে হাত ডান্স গুরুর, যা বললেন নোরা

স্পর্শকাতর স্থানে হাত ডান্স গুরুর, যা বললেন নোরা

সর্বশেষ

কন্যাশিশু দিবসের ভাবনা

কন্যাশিশু দিবসের ভাবনা

মৃত্যুদণ্ডের রায়ের পরও হাসছিলেন রিফাত ফরাজী

মৃত্যুদণ্ডের রায়ের পরও হাসছিলেন রিফাত ফরাজী

শিশুর জন্ম মুসলিম হিসেবেই, আমি কেবল নিজ ধর্মে ফিরেছি: নারী নব মুসলিম

শিশুর জন্ম মুসলিম হিসেবেই, আমি কেবল নিজ ধর্মে ফিরেছি: নারী নব মুসলিম

হত্যার পর নদীতে ফেলে দেয়া যুবক ফিরলেন ৬ বছর পর!

হত্যার পর নদীতে ফেলে দেয়া যুবক ফিরলেন ৬ বছর পর!

কুষ্টিয়ায় হোটেল মালিকগন আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ হলেও সরকার হারাচ্ছে বিপুল পরিমাণ রাজস্ব

কুষ্টিয়ায় হোটেল মালিকগন আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ হলেও সরকার হারাচ্ছে বিপুল পরিমাণ রাজস্ব

বাউফলে জোড়া খুনের বিচারের দাবীতে ঝাড়ু মিছিল

বাউফলে জোড়া খুনের বিচারের দাবীতে ঝাড়ু মিছিল

গল্প

গল্প

ভারতের স্থলবন্দর খুলে দেয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ভারতের স্থলবন্দর খুলে দেয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

স্টপেজ

স্টপেজ

দেশের মানুষ ধর্ষণ, দূর্নীতি ও টাকা পাচারের ভোগান্তির স্বীকার হচ্ছেঃ ভিপি নুর

দেশের মানুষ ধর্ষণ, দূর্নীতি ও টাকা পাচারের ভোগান্তির স্বীকার হচ্ছেঃ ভিপি নুর

মাদ্রাসায় কর্মচারী নিয়োগ: ৬পদে ৪জন চেয়ারম্যান পরিবারের লোক!

মাদ্রাসায় কর্মচারী নিয়োগ: ৬পদে ৪জন চেয়ারম্যান পরিবারের লোক!

ফুসফুস ভালো রেখে জীবনযাপন করার জন্য এই ৭টি খাবার খাওয়া উচিৎ

ফুসফুস ভালো রেখে জীবনযাপন করার জন্য এই ৭টি খাবার খাওয়া উচিৎ

সজিনা পাতার গুণাগুণ

সজিনা পাতার গুণাগুণ

ডিমলায় ঢাকা সেচ্ছাসেবী সংগঠনের সমন্বয় বৃক্ষ ও টিউবওয়েল বিতরণ

ডিমলায় ঢাকা সেচ্ছাসেবী সংগঠনের সমন্বয় বৃক্ষ ও টিউবওয়েল বিতরণ

ঠাকুরগাঁওয়ে নিজের বলার মতো গল্প ফাউন্ডেশনের হাজার তম দিন উদযাপন

ঠাকুরগাঁওয়ে নিজের বলার মতো গল্প ফাউন্ডেশনের হাজার তম দিন উদযাপন