About Us
mahfuz
প্রকাশ ১৯/১১/২০২০ ০৯:৪৪পি এম

নীলফামারীতে কয়েক হাজার শিক্ষক-কর্মচারী মানবেতর জীবন যাপন

নীলফামারীতে কয়েক হাজার শিক্ষক-কর্মচারী মানবেতর জীবন যাপন Ad Banner

মহামারী করোনার সংক্রমণ রোধে গত ১৭ মার্চ থেকে সারা দেশের ন্যায় নীলফামারীতেও বন্ধ রয়েছে পাঠদান কার্যক্রম। বেতন-ভাতা না থাকায় বেকার হয়ে পরিবার নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন এ জেলার ছয় উপজেলার প্রায় ১ হাজার কিন্ডারগার্টেন স্কুলের কয়েক হাজার শিক্ষক-কর্মচারী।   

প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে বৈশ্বিক এ মহামারীতে অধিকাংশ শ্রেণীপেশার মানুষজন প্রনোদনার আওতায় এলেও, সরকারী নিষেধাজ্ঞা মেনে চলা এসব বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীদের ভাগ্যে জোটেনি কোন প্রকার সরকারী বরাদ্দ বা প্রনোদনা। দীর্ঘদিন বেতন ভাতাদি না পাওয়ায় অসহায় হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন তাঁরা। 

কথা হয়, জেলা সদরের আল-হেলাল একাডেমি’র সহকারী শিক্ষকা শরীফা জাহান’র সাথে, তিনি জানান, “করোনা সংক্রোমন রোধে গত ১৭ই মার্চ, ২০২০ থেকেই বন্ধ রয়েছে সকল সরকারী ও বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। গত ৮ মাস ধরে বেতনভাতাদি পাচ্ছেন না সরকরী নিষেধাজ্ঞা মেনে চলা এসব কিন্ডারগার্টেন স্কুলের শিক্ষক কর্মচারীরা। এমনকি আমাদের ভাগ্যেও জোটেনি প্রধানমন্ত্রীর কোন প্রনোদনা। এর ফলে পরিবার নিয়ে অসহায় হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন অনেকেই”। 

সদরের টুপামারী ইউনিয়নের রামজঞ্জ বাজারস্থ বর্ণমালা শিশু বিদ্যা নিকেতন'র অধ্যক্ষ মোঃ শফিয়ার রহমান জানান, “করোনা মহামারীতে এম.পি.ও ভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোতে সরকারী বেতন ভাতাদি চলমান থাকলেও, দুর্বিসহ জীবন যাত্রায় রয়েছেন কিন্ডারগার্টেন স্কুলের শিক্ষক-কর্মচারীরা। “গত ৮ মাস ধরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ও বেতন ভাতাদি না পাওয়ায় খেয়ে না খেয়ে মানবেতর জীবনযাপন করতেছেন তাঁরা। 

নীলফামারী জেলা কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশন’র সাধারণ সম্পাদক সুবাস রায় জানান, “বৈশ্বিক এ মহামারীতে পাঠদান বন্ধ থাকলেও, অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মতই অনলাইন শিক্ষা সেবা প্রদান করছেন জেলার অধিকাংশ কিন্ডারগার্টেন স্কুলের শিক্ষকরা। প্রায় সকল শ্রেণীপেশার মানুষজনই প্রধানমন্ত্রীর প্রনোদনার আওতায় এলেও, এখনো এই সকল বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (কিন্ডারগার্টেন স্কুল) এর শিক্ষক-কর্মচারীদের ভাগ্যে মেলেনি সরকারী প্রনোদনা। চক্ষু লজ্জার খাতিরে, একদিকে কাউকে বলতে পারছেনা তাঁদের অসহায়ত্বের কথা, অন্যদিকে কারো নজরেও যেন পড়ছে না মানবেতর জীবন যাপন করা এসব কিন্ডারগার্টেন স্কুলের শিক্ষকদের চাঁপা কান্না”। 

গণতন্ত্রের মানসকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অতি দ্রুতই অন্যান্য শ্রেণীপেশার মানুষজনদের মতই এসব অসহায় শিক্ষক-কর্মচারীদের প্রনোদনার আওতায় এনে সহায়তার বাড়িয়ে দেবেন এমনটাই প্রত্যাশা করেন মানবেতর জীবন যাপন করা এ জেলার কয়েক হাজার শিক্ষক-কর্মচারী।



শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ