About Us
শনিবার, ১৯ জুন ২০২১
  • সোশ্যাল প্ল্যাটফর্ম:
Alamin Khan(Titas)
প্রকাশ ১৭/১১/২০২০ ০৮:৪১এ এম

সৌমিত্র চট্যোপাধ্যায়ঃ চলে যাওয়া মানে প্রস্থান নয়

সৌমিত্র চট্যোপাধ্যায়ঃ চলে যাওয়া মানে প্রস্থান নয় Ad Banner

অদ্ভুত এক থিওরিতে চাপা পড়া সৌমিত্রঃ

চলে গেলেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। লক্ষ লক্ষ বাঙালি তাঁকে স্মরণ করে, শ্রদ্ধা জানিয়ে গতকাল  ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছে। যদিও আজকে আর খুব একটা সাড়া শব্দ পাওয়া যাচ্ছেনা। এরকমটাই হচ্ছে এখন। আমাদের স্মৃতি এখন গোল্ডফিশের সাথে সমতুল্য। অন্যায়, দুর্নীতি, লুটপাট, ধর্ষণ, হত্যা এমনকি বেঁচে থাকাই আমরা ভুলে যাই!

স্ট্যাটাসগুলো পড়তে যেয়ে আমার "অতর থিওরি" র কথা মনে পড়ে গেলো। ১৯৪০ সালের দিকে ফরাসি চিত্র পরিচালক ও সমালোচক  আন্দ্রে বাঁজা আর 

আলেকজন্দ আসথু এই অতর থিওরির কথা প্রথম বলেছিলেন। পরবর্তীতে ১৯৫৫ সালে আরেক চিত্র নির্মাতা ফ্রাঁসোয়া রলঁ ত্রুফো এই থিওরির লৈখিক রূপ দেন। এই থিওরিতে বলা হয়েছিল, মূলতঃ একটি চলচ্চিত্রের অধিকারবোধ নিয়ে। যেখানে একটি ছবি নায়ক-নায়িকার নামে নয় বরং একজন পরিচালকের কর্তৃত্বে প্রতিষ্ঠিত হয়। একটা ছোট্ট উদাহরণ দিই। এমনিতে মানুষ বলে যে উত্তম কুমারের অমুক ছবিটা দেখলাম। কিন্তু ছবিটার নাম যখন হয় "নায়ক", তখন বলে সত্যজিৎ রায়ের "নায়ক" দেখলাম। অনেক ছবি টম ক্রুজের ছবি হিসেবে পরিচিত হলেও "মাইনোরিটি রিপোর্ট" কিংবা "ওয়ার অফ ওয়ার্ল্ডস" হয়ে যায় স্টিভেন স্পিলবার্গের ছবি। এই থিওরি গানের ক্ষেত্রেও খাটে।  এই সময়ের উপমহাদেশের সবচেয়ে বেশি তারকাখ্যাতি পাওয়া এ আর রেহমানের গানগুলো শিল্পীর নামে পরিচিত হয়না। অথচ গানের ক্ষেত্রে "হেমন্তের গান", মান্না দের গান", " লতার গান", "এন্ড্রু কিশোরের গান" এরকমই কিন্তু চলে!

অল্প কয়েকজন ছাড়া মোটাদাগে সবাই বিদায় জানাচ্ছিলেন "অপু"কে, "ফেলুদা"কে। যে কয়জন "সৌমিত্র"কে বিদায় জানালেন, তাদেরও সিংহভাগ "আবৃত্তিকার" সৌমিত্রকে বিদায় জানালেন। কোন চরিত্র হিসেবে মানুষের স্মৃতিতে অম্লান হয়ে থাকা একজন অভিনেতার ক্ষেত্রে একই সাথে আনন্দের এবং বেদনার! একই সাথে অমর হওয়ার গৌরব এবং নিজেকে ছাড়িয়ে না যেতে পারার কষ্ট! আমাদের শ্রদ্ধেয় অভিনেতা আসাদুজ্জামান নূর যেমন বাকের ভাই হয়েই রয়ে গেলেন এবং থাকবেন।

অদ্ভুত না?


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ