Feedback

আরও..., কৃষি-অর্থ ও বাণিজ্য

কেশর বিশ্বের সবচেয়ে দামি ফসল হওয়ায় কারণ

কেশর বিশ্বের সবচেয়ে দামি ফসল হওয়ায় কারণ
November 16
09:31pm
2020
Md. Nayeem Uddin Khan
Khilgaon, Dhaka:
Eye News BD App PlayStore

আমাদের দেশ কৃষিপ্রধান দেশ হওয়ায় বিভিন্ন ধরনের ফসল হয় এখানে। ধান থেকে তুলা, চা গমসহ নানা ধরনের ফসলের উপযোগী এখানকার মাটি। তবে বিশ্বের সবচেয়ে দামি ফসলের মধ্যে আছে কফি এবং কেশর। কেশর হচ্ছে এক ধরনের ফুল যেটা থেকে পাওয়া যায় জাফরান। 

অনেকেই হয়তো জাফরানকে ফসল বলায় খানিকটা অবাক হচ্ছেন। এটি আসলে এক ধরনের মশলা। ব্যয়বহুল এবং মিষ্টি খাবারে এর বেশি ব্যবহার। খাবারের স্বাদ এবং রং আনতে ব্যবহার হয় এটি। ভিনদেশি হওয়ায় এটি দামেও কিন্তু অন্যান্য মশলার থেকে অনেকটা বেশি। এক কেজি জাফরানের দাম আড়াই থেকে তিন লাখ টাকা। এজন্য পৃথিবীর সবচেয়ে দামি মশলা জাফরানকে বলা হয়। এই মশলা যে গাছ থেকে হয় সেটিও বিশ্বের সবথেকে দামি ফুলের গাছ।

জাফরান হচ্ছে প্রায় বেগুনি রঙের ছয় পাপড়ি বিশিষ্ট ফুলের পুংকেশর। ইংরেজি নাম স্যাফরন হলেও বৈজ্ঞানিক নাম ক্রোকাস স্যাটিভাস। এদের স্থানীয় নামের মধ্যে আছে স্যাফ্রন, জ্যাঁফারান, কেশর, জাফরান। পৃথিবীর সব দেশে জাফরান হয় না। স্পেন, ইতালি, গ্রিস, ইরান, কাশ্মির জাফরানের জন্য বিখ্যাত। ভারতে জম্মুর কিমসাতবার এলাকায় জাফরানের চাষ হয়। এছাড়া কাশ্মীরের পম্পেওতে জাফরান চাষ হয়। তবে বাংলাদেশে বাণিজ্যিকভাবে জাফরান চাষের সম্ভাবনা রয়েছে।

জাফরান আসলে একটি ফুলের গর্ভমুন্ড। এটি মূলত খাদ্যে ব্যবহার করা হত রঙিন করতে। যে ফুল থেকে এই জাফরান সংগ্রহ করা হয়, সেটি ফুটে মাত্র এক সপ্তাহের জন্য, শরৎকালের শুরুতে। জাফরান ফুল দেখতে যেমন সুন্দর তেমনি আকর্ষণীয় এর সুগন্ধি। বিস্ময়ের ব্যাপার হলো, এর ফুল হয় অথচ বীজ হয় না। একটি ফুলে মাত্র তিনটি গর্ভমুন্ড থাকে। খালি হাতে এটি খুব সতর্কতার সঙ্গে সংগ্রহ করতে হয়। এক কিলোগ্রাম জাফরান সংগ্রহ করতে অন্তত দুটি ফুটবল মাঠের সমান জায়গায় এই ফুলের চাষ করতে হবে।

প্রায় তিন লাখ ফুল থেকে মাত্র এক কেজি জাফরান সংগ্রহ করা যায়। তাই এই মশলার এতো দাম। সোনার মতো চড়া দাম বলে জাফরানকে রেড গোল্ডও বলা হয়। কথিত আছে, ২৩০০ বছর আগে গ্রিসে প্রথম জাফরান চাষ শুরু হয়েছিল। তবে অনেকেই বলেন প্রথমবার জাফরানের চাষ হয়েছিল স্পেনে। এখনও পৃথিবীর সব থেকে বেশি জাফরানের চাষ হয় স্পেনে। জাফরান ফুলের গন্ধ এতটাই চড়া হয় যে আশেপাশের এলাকা সুগন্ধে ভরে যায়।

প্রতিটি ফুল থেকে সব থেকে বেশি হলে মাত্র তিনটি জাফরান পাওয়া যায়। তাহলে বুঝতেই পারছেন কেন দেড় লাখ ফুল থেকে মাত্র এক কেজি জাফরান পাওয়া যায়! আয়ুর্বেদিক ওষুধ তৈরি থেকে শুরু করে ভালো কোনো রান্না, জাফরানের ব্যবহার হয় বহু ক্ষেত্রে। রক্ত পরিশোধন থেকে লো ব্লাড প্রেসারের রোগীদের চিকিৎসা, জাফরান উপকারী বলে প্রমাণিত। এখন কিছু কিছু পান মশলায় জাফরানের ব্যবহার হচ্ছে। খুব অল্প পরিমাণ জাফরান সুগন্ধ ছড়িয়ে দিতে পারে। তাই এর ব্যবহারিক প্রয়োগ হয় খুবই অল্প। চিকিৎসার ক্ষেত্রেও জাফরানের ব্যবহার হয়।

ভিটামিন এ, বি, সি, জিংক, পটাসিয়াম ও সোডিয়ামের মতো গুরুত্বপূর্ণ উপাদান পাওয়া যায় জাফরান থেকে। খাবারে চমৎকার ফ্লেভার যোগ করে জাফরান। ত্বকের যত্নেও এটি অনন্য। রূপচর্চায় ব্যবহৃত হয় জাফরান। জাফরান স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। প্রতিদিন এক চিমটি জাফরান দুধের সঙ্গে মিশিয়ে খেলে হরমোন উদ্দীপিত হয়। ঠাণ্ডা লাগা ও জ্বরের হাত থেকে বাঁচায় জাফরান।

আধুনিক দুনিয়ায় খাবারের সঙ্গে, দুধের সঙ্গে জাফরান খাওয়ার কথা শোনা যায়। এমনকি আরববিশ্বে কফির সঙ্গে জাফরান খাওয়ার প্রচলন আছে। ইসলামে জাফরান খাওয়া নিষিদ্ধ নয়। ইবনে কুদামা (রহ.) আল-মুগনি নামক কিতাবে লিখেছেন, চার মাজহাব মতে, রান্না করে জাফরান খাওয়া বৈধ। ইহরাম অবস্থায় রান্নাকৃত জাফরান খেলে হজ ও ওমরাহ ভাঙবে না। (ইসলাম ওয়েব ডটনেট)

রাসুলুল্লাহ (সা.)-এর যুগে জাফরানের বেশি ব্যবহার ছিল পোশাকের ক্ষেত্রে। ইসলাম পুরুষের জন্য জাফরান রঙের পোশাক নিষিদ্ধ করেছে। তবে নারীদের জন্য তা নিষিদ্ধ নয়। আনাস (রা.) বলেন, ‘নবী (সা.) পুরুষদের জাফরানি রঙের কাপড় পরতে নিষেধ করেছেন।’(বুখারি, হাদিস : ৫৮৪৬)

ইহরাম অবস্থায় জাফরান রঙের পোশাক পরা নিষিদ্ধ। ইবনে ওমর (রা.) বলেন, ‘রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ইহরামকারী যেন ওয়ারস ঘাসের কিংবা জাফরানের রং দ্বারা রাঙানো কাপড় না পরে।’ (বুখারি, হাদিস : ৫৮৪৭)

আর আতর ও সুগন্ধি বিষয়ে ইসলামের মূলনীতির আলোকে ইসলামী আইনবিদরা বলেছেন যে সুগন্ধি হিসেবে জাফরান ব্যবহার করা পুরুষের জন্য বৈধ।

বোঝাই যাচ্ছে জাফরানের ব্যবহার ছিল হাজার হাজার বছর আগেও। তবে যুগে যুগে পরিবর্তন হয়েছে এর ব্যবহারে। পোষাকে, খাবারে এমনকি নানা রোগের চিকিৎসায় ব্যবহার হত জাফরান। এটি সবসময়ই খুব ব্যয়বহুল ছিল। এই মশলাটি ব্যয়বহুল হওয়ার মূল কারণ আসলে এর চাষাবাদ পদ্ধতি। কেননা অন্যান্য ফসলের মতো একই পরিশ্রম করে পাওয়া যায় খুব সামান্যই জাফরান। তারপর আবার সেটার বাণিজ্যিক খরচ। সব মিলিয়েই এটি বিশ্বের দামি খাবার এবং ফসলের তালিকায় শীর্ষে রয়েছে।

All News Report

Add Rating:

0

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

ক্যান্টনমেন্ট কলেজ, যশোরের নতুন অধ্যক্ষ হলেন লেফটেন্যান্ট কর্ণেল নুসরাত নূর আল চৌধুরী

ক্যান্টনমেন্ট কলেজ, যশোরের নতুন অধ্যক্ষ হলেন লেফটেন্যান্ট কর্ণেল নুসরাত নূর আল চৌধুরী

ফেনীর ছাগলনাইয়ায় বৃদ্ধ মায়ের বিষ পানে আত্নহত্যা! আটক ৩!

ফেনীর ছাগলনাইয়ায় বৃদ্ধ মায়ের বিষ পানে আত্নহত্যা! আটক ৩!

পাগলার কান্দিপাড়ায় অজ্ঞান পার্টির কবলে ১০ বছরের মাদ্রাসা ছাত্র

পাগলার কান্দিপাড়ায় অজ্ঞান পার্টির কবলে ১০ বছরের মাদ্রাসা ছাত্র

দুই বছরেও শেষ হয়নি হাবিপ্রবির গ্রন্থাগার ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক শাখার অটোমেশনের কাজ

দুই বছরেও শেষ হয়নি হাবিপ্রবির গ্রন্থাগার ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক শাখার অটোমেশনের কাজ

ভৈরবে গাজাঁ আত্মসাতের অভিযোগে এসআই প্রত্যাহার

ভৈরবে গাজাঁ আত্মসাতের অভিযোগে এসআই প্রত্যাহার

আবারও ইউটার্ন ট্রাম্পের, 'কখনও হার মানব না'

আবারও ইউটার্ন ট্রাম্পের, 'কখনও হার মানব না'

ভালোবাসার প্রতিদান তানিয়া সুলতানা হ্যাপি

ভালোবাসার প্রতিদান তানিয়া সুলতানা হ্যাপি

পাকিস্তানসহ ১৩ টি দেশকে ভিসা দিবে না আরব আমিরাত

পাকিস্তানসহ ১৩ টি দেশকে ভিসা দিবে না আরব আমিরাত

ঘূর্ণিঝড়ের আকারে আজ রাতেই ছোবল মারতে পারে নিভার, সর্বোচ্চ গতি হতে পারে ১৪৫ কিমি

ঘূর্ণিঝড়ের আকারে আজ রাতেই ছোবল মারতে পারে নিভার, সর্বোচ্চ গতি হতে পারে ১৪৫ কিমি

প্রতিদিন ডিম খাওয়া কি ভাল? সাবধান করলেন গবেষকরা

প্রতিদিন ডিম খাওয়া কি ভাল? সাবধান করলেন গবেষকরা

কিংবদন্তী ফুটবলার ম্যারাডোনা আর নেই

কিংবদন্তী ফুটবলার ম্যারাডোনা আর নেই

আমতলীতে নদী দখল করে ইটভাটা, দ্রুত বন্ধের দাবী এলাকাবাসীর

আমতলীতে নদী দখল করে ইটভাটা, দ্রুত বন্ধের দাবী এলাকাবাসীর

পাকিস্তানে ধর্ষকের শাস্তি "পুরুষাঙ্গ" অকেজো করে দেওয়া

পাকিস্তানে ধর্ষকের শাস্তি "পুরুষাঙ্গ" অকেজো করে দেওয়া

যেনো বারী সিদ্দিকীর প্রতিচ্ছবি "রাসেল" আরটিভি'র মঞ্চে

যেনো বারী সিদ্দিকীর প্রতিচ্ছবি "রাসেল" আরটিভি'র মঞ্চে

ফ্রান্সের বিরুদ্ধে আন্দোলন, সিঙ্গাপুরে ১৫ বাংলাদেশিকে বহিষ্কার

ফ্রান্সের বিরুদ্ধে আন্দোলন, সিঙ্গাপুরে ১৫ বাংলাদেশিকে বহিষ্কার

সর্বশেষ

ভূরুঙ্গামারীতে স্বাস্থ্য পরিদর্শক ও স্বাস্থ্য সহকারীদের অনিদিষ্টকালের অবস্থান কর্মবিরতি চলছে

ভূরুঙ্গামারীতে স্বাস্থ্য পরিদর্শক ও স্বাস্থ্য সহকারীদের অনিদিষ্টকালের অবস্থান কর্মবিরতি চলছে

দিনাজপুরের হাবিপ্রবিতে প্রো-ভিসি নিয়োগের দাবীতে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

দিনাজপুরের হাবিপ্রবিতে প্রো-ভিসি নিয়োগের দাবীতে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

মোংলায় ধর্ষনের শিকার খাগড়াছড়ি এলাকার ১ কিশোরী দুই ধর্ষক আটক

মোংলায় ধর্ষনের শিকার খাগড়াছড়ি এলাকার ১ কিশোরী দুই ধর্ষক আটক

পাইকগাছায় ৩০ বছরের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেফতার

পাইকগাছায় ৩০ বছরের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেফতার

দিনাজপুরে আদিবাসী নারী পুরুষদের নিয়ে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

দিনাজপুরে আদিবাসী নারী পুরুষদের নিয়ে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

শ্যামনগরে হেলথ এ্যাসিস্ট্যান্ট এসোসিয়েশন চাকুরীজীবিদের কর্ম বিরতি পালন

শ্যামনগরে হেলথ এ্যাসিস্ট্যান্ট এসোসিয়েশন চাকুরীজীবিদের কর্ম বিরতি পালন

বীরগঞ্জ সহ সারাদেশে সাংবাদিক হত্যা-নির্যাতন ও মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসুচী

বীরগঞ্জ সহ সারাদেশে সাংবাদিক হত্যা-নির্যাতন ও মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসুচী

কাহারোলে আমন ধান সংগ্রহে উন্মুক্ত লটারী অনুষ্ঠিত

কাহারোলে আমন ধান সংগ্রহে উন্মুক্ত লটারী অনুষ্ঠিত

বিরামপুরে দু’টি সরকারি অফিসে দুবৃর্ত্তের রহস্যজনক হানা

বিরামপুরে দু’টি সরকারি অফিসে দুবৃর্ত্তের রহস্যজনক হানা

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে নবনিযুক্ত ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ও ঢাকা ১৮ আসনের এমপির শ্রদ্ধা নিবেদন

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে নবনিযুক্ত ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ও ঢাকা ১৮ আসনের এমপির শ্রদ্ধা নিবেদন

২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৩৭ জনের মৃত্যু

২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৩৭ জনের মৃত্যু

হাবিপ্রবি গ্রীন ভয়েস শাখার উদ্যোগে বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ

হাবিপ্রবি গ্রীন ভয়েস শাখার উদ্যোগে বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ

এক ঘুমেই সপ্তাহ পার ভম্বলের

এক ঘুমেই সপ্তাহ পার ভম্বলের

আমতলী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাবের তদন্ত শুরু

আমতলী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাবের তদন্ত শুরু

গোপালগঞ্জে সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ রুখতে সচেতন নাগরিকদের মানববন্ধন

গোপালগঞ্জে সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ রুখতে সচেতন নাগরিকদের মানববন্ধন