Feedback

খোলা কলাম, সম্পাদকীয়

হসপিটাল ফার্মেসি কেনো প্রয়োজন?

হসপিটাল ফার্মেসি কেনো প্রয়োজন?
October 29
02:31pm
2020
Shahriar M Shohan
Chandina, Comilla:
Eye News BD App PlayStore

মৌলিক চাহিদা গুলোর মধ্যে চিকিৎসা সেবা অন্যতম। কিন্তু হাসপাতাল গুলোর বেহাল অবস্থা, জবাবদিহিতার অভাব, দায়িত্বহীনতা, টেন্ডারবাজি, দুর্নীতি সহ বিভিন্ন ত্রুটির কারণে স্বাস্থ্যসেবার মান নিম্নপর্যায়ে চলে এসেছে। রোগীর চাহিদা অনুযায়ী পর্যাপ্ত চিকিৎসাসেবা দিতেও ডাক্তারগণ হিমসিম খাচ্ছেন। হাসপাতালের প্রচলিত চিকিৎসা ব্যবস্থাকে এখন নতুন ভাবে সাজানোর বিশেষ প্রয়োজন।

এ বিষয়টিকে সামনে রেখে একটি চমৎকার ও কার্যকরী সমাধান হতে পারে হাসপাতাল ব্যবস্থাপনায় “হসপিটাল ফার্মেসি” সংযোজন, যেখানে রোগীর সেবায় একজন ফার্মাসিস্ট বা ওষুধবিশেষজ্ঞ সরাসরি নিয়োজিত থাকবে। দায়িত্বরত চিকিৎসক রোগীর অসুস্থতা পর্যবেক্ষণ, রোগের ইতিহাস, রোগের লক্ষণ ও অবস্থা বুঝে তাকে প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা বা প্রেসক্রিপশন করে থাকেন। ওষুধ প্রয়োগের ক্ষেত্রে রোগীর শারিরীক অবস্থা, ড্রাগ-ড্রাগ ইন্টারেকশন, ওষুধের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া, বায়োএভেইলেবিলিটি, ওষুধের গ্রহনযোগ্যতা ইত্যাদি অনেক গুলো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো অনেক সময় রয়ে যায় বিবেচনার বাইরে। যার কারণে ওষুধ প্রয়োগে হিতে বিপরীত হওয়ার মত ঘটনা ঘটে থাকে। অসুস্থতা দুর হওয়ার পরিবর্তে তা আরো তীব্র আকার ধারণ করে।

নির্দিষ্ট রোগের জন্যে নির্দিষ্ট ওষুধটি প্রদান করা হলেও ওষুধ গ্রহণ, ওষুধের পরিমাণ নির্দিষ্টকরণ, ওষুধ গ্রহণে উপযুক্ত সময় বিভাজন সহ নির্দেশনা সমূহ সঠিকভাবে পালন না করায় ওষুধ তার উপযুক্ততা হারায়। মনে করি ৪০ কেজি ও ৫০ কেজি ওজনের দুজন ব্যাক্তিকেই Paracetamol 500mg ওষুধ দেওয়া হলো, এক্ষেত্রে বয়স, শারিরীক অবস্থা, ওজন, ভলিউম অফ ডিস্ট্রিবিউশন ইত্যাদি বিষয়ের উপর ভিত্তি করে দুজন ভিন্ন ভিন্ন ব্যক্তিকে ভিন্ন ভিন্ন পরিমাণ ওষুধ প্রয়োগ করা বাঞ্চনীয়। তা না হলে একই পরিমাণ ওষুধ কারো জন্যে মাত্রাতিরিক্ত আবার কারো জন্যে কম মাত্রার হয়ে যেতে পারে। প্রয়োজন অনুসারে ওষুধের পরিমাণ নির্ধারণ, ডোজেজ ফর্ম নির্ধারণ, ডোজিং গ্যাপ বা ইন্টারভাল নির্ধারণ, পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া ও রোগীর পছন্দ ইত্যাদি বিষয় গুলোকে যাচাই বাছাই করে তবেই রোগীর জন্যে উপযুক্ত ঔষধটি নির্বাচনের গুরুত্বপূর্ণ কাজটি করে থাকেন একজন “হসপিটাল ফার্মাসিস্ট”। ফার্মাসিস্টদের “ঔষধ বিশেষজ্ঞ” বলা হলেও চিকিৎসা সেবার কোন খাতেই ফার্মাসিস্টদের কাজ করার ক্ষেত্র এখনো তেমন একটা তৈরি হয়নি।  হাসপাতাল গুলোতে ডাক্তারের পাশাপাশি ফার্মাসিস্টদের সেবার সুযোগ করে দিলে রোগী মৃত্যু অনেকাংশে হ্রাস সহ চিকিৎসা সেবায় আমূল পরিবর্তনের সঞ্চার হবে। উন্নত দেশ গুলো তাদের চিকিৎসা ব্যবস্থাকে নিখুঁত করতে “হসপিটাল ফার্মেসি” অনেক আগে থেকে চালু করলেও, বাংলাদেশে এর প্র‍্যাকটিস একেবারেই নেই। “হসপিটাল ফার্মেসি” চালু হলে একদিকে যেমন হাসপাতাল গুলোতে ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াজনিত কারণে অনাকাঙ্ক্ষিত রোগী মৃত্যু কমানো সম্ভব, অন্যদিকে ওষুধের উপযুক্ত ব্যবহার নিশ্চিত করতে রোগীদের সাথে কাউন্সিলিং করে ব্যাপক সচেতনতা বাড়ানো সম্ভব, পাশাপাশি ওষুধ বিশেষজ্ঞদের অর্জিত জ্ঞানও সরাসরি স্বাস্থ্যখাতে সম্পৃক্ত করার বিস্তৃত ক্ষেত্র সৃষ্টি হবে যা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যকে আরো এক ধাপ এগিয়ে নিয়ে যাবে।

সাম্প্রতিক কোভিড-১৯ মহামারী পরিস্থিতি আমাদের চোখে আংগুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে, স্বাস্থ্যখাত স্বয়ংসম্পূর্ণ না থাকলে তার জন্যে কি ভয়াবহ মাশুল দিতে হয়। স্বাস্থ্যখাতকে বলিষ্ঠ করতে শুধুমাত্র বাজেট বৃদ্ধিই যথেষ্ট নয়, বরং এ খাতের ত্রুটি-বিচ্যুতিসমূহ খুঁজে বের করে যুগোপযোগী সমাধানে কার্যকর ও দীর্ঘ মেয়াদি পরিকল্পনা করতে হবে। ডাক্তার, ফার্মাসিস্ট, নার্স সহ এ খাতের সাথে সংশ্লিষ্ট প্রতিটি ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে ঢেলে সাজানো ও হাতে হাত ধরে কাজ করার সুযোগ সৃষ্টিই হতে পারে স্বাস্থ্যখাতকে এক অকল্পনীয় সঞ্জীবনী শক্তি প্রদানের হাতিয়ার।

শাহরিয়ার এম সোহান
শিক্ষার্থী, ফার্মেসি বিভাগ,
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়।
shohancou2@gmail.com

All News Report

Add Rating:

0

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

ক্যান্টনমেন্ট কলেজ, যশোরের নতুন অধ্যক্ষ হলেন লেফটেন্যান্ট কর্ণেল নুসরাত নূর আল চৌধুরী

ক্যান্টনমেন্ট কলেজ, যশোরের নতুন অধ্যক্ষ হলেন লেফটেন্যান্ট কর্ণেল নুসরাত নূর আল চৌধুরী

ফেনীর ছাগলনাইয়ায় বৃদ্ধ মায়ের বিষ পানে আত্নহত্যা! আটক ৩!

ফেনীর ছাগলনাইয়ায় বৃদ্ধ মায়ের বিষ পানে আত্নহত্যা! আটক ৩!

পাগলার কান্দিপাড়ায় অজ্ঞান পার্টির কবলে ১০ বছরের মাদ্রাসা ছাত্র

পাগলার কান্দিপাড়ায় অজ্ঞান পার্টির কবলে ১০ বছরের মাদ্রাসা ছাত্র

দুই বছরেও শেষ হয়নি হাবিপ্রবির গ্রন্থাগার ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক শাখার অটোমেশনের কাজ

দুই বছরেও শেষ হয়নি হাবিপ্রবির গ্রন্থাগার ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক শাখার অটোমেশনের কাজ

ভৈরবে গাজাঁ আত্মসাতের অভিযোগে এসআই প্রত্যাহার

ভৈরবে গাজাঁ আত্মসাতের অভিযোগে এসআই প্রত্যাহার

আবারও ইউটার্ন ট্রাম্পের, 'কখনও হার মানব না'

আবারও ইউটার্ন ট্রাম্পের, 'কখনও হার মানব না'

ভালোবাসার প্রতিদান তানিয়া সুলতানা হ্যাপি

ভালোবাসার প্রতিদান তানিয়া সুলতানা হ্যাপি

পাকিস্তানসহ ১৩ টি দেশকে ভিসা দিবে না আরব আমিরাত

পাকিস্তানসহ ১৩ টি দেশকে ভিসা দিবে না আরব আমিরাত

ঘূর্ণিঝড়ের আকারে আজ রাতেই ছোবল মারতে পারে নিভার, সর্বোচ্চ গতি হতে পারে ১৪৫ কিমি

ঘূর্ণিঝড়ের আকারে আজ রাতেই ছোবল মারতে পারে নিভার, সর্বোচ্চ গতি হতে পারে ১৪৫ কিমি

কিংবদন্তী ফুটবলার ম্যারাডোনা আর নেই

কিংবদন্তী ফুটবলার ম্যারাডোনা আর নেই

প্রতিদিন ডিম খাওয়া কি ভাল? সাবধান করলেন গবেষকরা

প্রতিদিন ডিম খাওয়া কি ভাল? সাবধান করলেন গবেষকরা

আমতলীতে নদী দখল করে ইটভাটা, দ্রুত বন্ধের দাবী এলাকাবাসীর

আমতলীতে নদী দখল করে ইটভাটা, দ্রুত বন্ধের দাবী এলাকাবাসীর

পাকিস্তানে ধর্ষকের শাস্তি "পুরুষাঙ্গ" অকেজো করে দেওয়া

পাকিস্তানে ধর্ষকের শাস্তি "পুরুষাঙ্গ" অকেজো করে দেওয়া

যেনো বারী সিদ্দিকীর প্রতিচ্ছবি "রাসেল" আরটিভি'র মঞ্চে

যেনো বারী সিদ্দিকীর প্রতিচ্ছবি "রাসেল" আরটিভি'র মঞ্চে

ফ্রান্সের বিরুদ্ধে আন্দোলন, সিঙ্গাপুরে ১৫ বাংলাদেশিকে বহিষ্কার

ফ্রান্সের বিরুদ্ধে আন্দোলন, সিঙ্গাপুরে ১৫ বাংলাদেশিকে বহিষ্কার

সর্বশেষ

বিরামপুরে দু’টি সরকারি অফিসে দুবৃর্ত্তের রহস্যজনক হানা

বিরামপুরে দু’টি সরকারি অফিসে দুবৃর্ত্তের রহস্যজনক হানা

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে নবনিযুক্ত ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ও ঢাকা ১৮ আসনের এমপির শ্রদ্ধা নিবেদন

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে নবনিযুক্ত ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ও ঢাকা ১৮ আসনের এমপির শ্রদ্ধা নিবেদন

২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৩৭ জনের মৃত্যু

২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ৩৭ জনের মৃত্যু

হাবিপ্রবি গ্রীন ভয়েস শাখার উদ্যোগে বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ

হাবিপ্রবি গ্রীন ভয়েস শাখার উদ্যোগে বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ

এক ঘুমেই সপ্তাহ পার ভম্বলের

এক ঘুমেই সপ্তাহ পার ভম্বলের

আমতলী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাবের তদন্ত শুরু

আমতলী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাবের তদন্ত শুরু

গোপালগঞ্জে সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ রুখতে সচেতন নাগরিকদের মানববন্ধন

গোপালগঞ্জে সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ রুখতে সচেতন নাগরিকদের মানববন্ধন

বগুড়া ধুনট থানা পুলিশ করোনার ২য় পর্যায়ের ভয়াবহতা মোকাবেলায় মাস্ক বিতরণ

বগুড়া ধুনট থানা পুলিশ করোনার ২য় পর্যায়ের ভয়াবহতা মোকাবেলায় মাস্ক বিতরণ

অন্তর্লোকে হাওরের ঢেউ

অন্তর্লোকে হাওরের ঢেউ

দ্রুত ফেরত যেতে চান আটকেপড়া মালয়েশিয়া প্রবাসীরা

দ্রুত ফেরত যেতে চান আটকেপড়া মালয়েশিয়া প্রবাসীরা

ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদন্ড বনাম ধর্ষণের পুরষ্কার বিবাহ

ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদন্ড বনাম ধর্ষণের পুরষ্কার বিবাহ

বরগুনায় স্বাস্থ্য সহকারিদের  কর্মবিরতী ও অবস্থান কর্মসূচী

বরগুনায় স্বাস্থ্য সহকারিদের কর্মবিরতী ও অবস্থান কর্মসূচী

ম্যারাডোনার মৃত্যুতে গভীর শোক জানালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

ম্যারাডোনার মৃত্যুতে গভীর শোক জানালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

অপরাধীকে অপরাধী হিসেবেই দেখবেন: শেখ হাসিনা

অপরাধীকে অপরাধী হিসেবেই দেখবেন: শেখ হাসিনা

৭০ হাজার ৫’শ শিশুর হাম রুবেলা টিকা অনিশ্চিত, দাবী আদায়ে আমতলীতে কর্ম বিরতি

৭০ হাজার ৫’শ শিশুর হাম রুবেলা টিকা অনিশ্চিত, দাবী আদায়ে আমতলীতে কর্ম বিরতি