Feedback

কক্সবাজার, জেলার খবর

বর্ষার সমুদ্র

বর্ষার সমুদ্র
October 16
04:04pm
2020
Rofiqul Islam
Mohongonj, Netrokona:
Eye News BD App PlayStore

হিম হিম ঠান্ডায় কুয়াশায় মোড়া সমুদ্র দেখেছেন। দেখেছেন চাঁদের আলোয় সমুদ্রের ঢেউয়ের উত্তাল নাচন। কিন্তু বৃষ্টি হচ্ছে আর সেই বৃষ্টির জল পড়ছে সমুদ্রে। মিশে যাচ্ছে ঢেউয়ের সঙ্গে। জোয়ারের সময় ঢেউ যেন ফুঁসছে। প্রবল সেই ঢেউ ছুটে আসছে বেলাভ‚মির দিকে। চারদিকে চেয়ে দেখা যাবে, বৃষ্টিতে সবকিছু কেমন যেন অস্পষ্ট লাগছে। বর্ষায় সমুদ্রের এমন রূপ কি দেখেছেন ? না দেখে থাকলে বেড়িয়ে পড়–ন কিছুদিন পর, প্রবল বর্ষায়, যখন বৃষ্টির রিমঝিম শব্দে চারদিক মুখর থাকবে। কক্সবাজার কিংবা সেন্টমার্টিন অথবা কুয়াকাটায় কাটিয়ে আসুন কয়েকটি দিন। ভিন্ন এক অভিজ্ঞতার বর্ণনা জমা থাকবে আপনার জীবন খাতার পাতায়। বর্ষার সমুদ্রের ওপর আলোকপাত করেছেন রফিকুল ইসলাম।

‘বর্ষা ওই এলো বর্ষা/অঝোর ধারার জল ঝরঝরি অবিরল/ধূসর নীরস ধরা হলো সরসা।’ আমাদের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের কবিতার এই পঙ্ক্তিমালা যেন মূর্ত হয়ে উঠছে আপনার চোখের সামনে। এই সময় যদি কক্সবাজার কিংবা সেন্টমার্টিন অথবা কুয়াকাটায় যান, তাহলে অন্যধরনের অনুভ‚তিতে আচ্ছন্ন হবে আপনার হৃদয়। এছাড়া এই অফ-সিজনে হোটেলগুলো রুম ভাড়ার ক্ষেত্রে ছাড় দিচ্ছে। সৈকতে মানুষজনও থাকবে কম। নির্জনতা উপভোগ করতে পারবেন। শুরুতে কক্সবাজারের কথা বলা যাক।

কক্সবাজার 

কক্সবাজারের প্রধান আকর্ষণ হচ্ছে সমুদ্র। এখানকার ১২০ কিলোমিটার দীর্ঘ সৈকত পৃথিবীর দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত হিসেবে পরিচিত। সম্প্রতি বিশ্বব্যাপী একটি জরিপে প্রকৃতির আশ্চর্য সৃষ্টির প্রাথমিক তালিকায় স্থান পেয়েছে। 

কক্সবাজারের সমুদ্র বর্ষার সময়ে ভিন্নভাবে আপনার চোখে ধরা দেবে। বৃষ্টিতে ভেজার অভিজ্ঞতা আমাদের সবার রয়েছে। গ্রামের বাড়ির খোলা উঠোনে কিংবা শহরে বাড়ির ছাদে বৃষ্টিতে ভিজেছি আমরা শৈশবে কিংবা কৈশোরে, এমনকি মুড খারাপ থাকলে এখনো। বৃষ্টি নির্মল আনন্দে ভরিয়ে দেয় আমাদের। বৃষ্টির ফোঁটা পড়ে আমাদের মাথায়, চুলে, গড়িয়ে পড়ে শরীরেও। তখন কী যে ভালো লাগে! বৃষ্টির ধারা যখন তীরের মতো বর্ষিত হয় দেহে, তখন চোখ খোলা রাখা কঠিন হয়ে পড়ে। তবে বদ্ধ চোখেই চোখে-মুখে-শরীরে বৃষ্টিপাত অনুভব করা যায়; মনে তা অনির্বচনীয় অনুভ‚তির সৃষ্টি করে। খোলা মাঠে কিংবা পথে বন্ধুদের সঙ্গে বৃষ্টিতে ভেজা আর হৈহুল্লোড়ে মেতে ওঠার কথাও নিশ্চয় মনে পড়ে? গাছের কিংবা দালানের নিচে অনাকাঙিক্ষত বৃষ্টিতে ভেজার কথাও মনে পড়ে নিশ্চয় ? তবে তা আনন্দের নয়, বিরক্তিরই উদ্রেক করে। একথা বলার উদ্দেশ্য হলো, এই কথাটা আপনার চেতনায় গেঁথে দেওয়া যে জীবনে বর্ষার সময়ে কতবার বৃষ্টিতে ভিজেছেন কিংবা আকাশের কালো মেঘ দেখে রোমাঞ্চিত হয়েছেন, সেইসব অনুভ হয়ে যাবে বর্ষার সমুদ্র দেখে। কেননা চোখের সামনে যখন দেখবেন আদিগন্ত সমুদ্র, ধুধু করছে শুধু জল, যেন কোনো শেষ নেই। সেই সমুদ্রের মাঝে বৃষ্টির ঢল নেমেছে। ঝরঝর, ঝরছে তো ঝরছেই। সমুদ্রের বুকে নৌযান বা জাহাজগুলো কিছুক্ষণ আগেও চোখে পড়েছে আপনার। কিন্তু এখন তা দেখতে পাচ্ছেন না। সাদা একটি পর্দা যেন চোখের সামনে কেউ টাঙিয়ে রেখেছে। সামনের অনেক কিছুও দেখা যাচ্ছে না। কক্সবাজারের এই সমুদ্র সৈকতে আপনার মতো আরো অনেক রোমান্টিক পর্যটক সমুদ্রের জলে নেমেছে, তারা সবাই দৃশ্যমান নয়। 

‘বৃষ্টি/কী মিষ্টি!’ বিড়বিড় করে উঠলেন আপনি। শুধু বৃষ্টির জন্যই বৃষ্টিকে মিষ্টি লাগছে না, সাগরের উত্তাল ঢেউ যখন একের পর এক ছুটে এসে ধাক্কা দিচ্ছে আপনাকে, সেই ঢেউয়ের দোলায় দুলতে থাকার আনন্দও যোগ হয়েছে। বৃষ্টিতে বহুবার ভিজেছেন জীবনে কিন্তু তেমন আনন্দ কি কখনো পেয়েছেন? ভাবতেই মাথা নাড়লেন আপনি। আচ্ছা, প্রথম কবে যেন বৃষ্টিতে ভিজেছিলেন? মনে পড়ল, সে খুবই ছোটবেলার কথা। তখন আপনার বয়স চার কী পাঁচ। বৃষ্টি শুরু হতেই ভাইবোনদের সঙ্গে ছোট ছোট পা ফেলে, সিঁড়ি ভেঙে বাড়ির ছাদে উঠেছিলেন আপনি। হয়তো ধুপধাপ শব্দ শুনেই কিছুক্ষণ পরে ছুটে এসেছিলেন মা। মা-কে দেখেই আপনি ও আপনার ভাইবোনেরা ভয়ে শিউড়ে গিয়েছিলেন। ভেবেছিলেন মা বকবেন, সবাইকে নিচে চলে যেতে বলবেন। কিন্তু না, দেখলেন যে মা’ও আপনাদেরই মতো বৃষ্টিতে ভিজতে শুরু করলেন। তখন যে আনন্দ পেয়েছিলেন, তা ভোলার নয়। 

মায়ের কথা মনে হতেই কান্না ঝরল আপনার দুচোখ বেয়ে। সেই কান্না আর বৃষ্টির জল একাকার হয়ে গেল। আপনার সঙ্গিনীÑ স্ত্রী ও দুই কন্যা, বুঝল না আপনি কাঁদছেন। সাগর জলে মেয়েদের উচ্ছলতা, বৃষ্টিতে ভেজার আনন্দ আপনাকে আবার উল্লসিত করে তুলল। ভাবলেন, একদিন আপনার সঙ্গে এই সাগরে বৃষ্টিতে ভেজার স্মৃতিও নস্টালজিক করে তুলবে তাদের। সমুদ্র সৈকতের বালু কামড়ে আছে আপনার দুই পা, কিসের যেন স্পর্শ লাগল সেই পায়ে, ঢেউটি সরে যেতেই দেখলেন একটি কাঁকড়া। আপনার দুই মেয়ে আঁতকে উঠল। মজা পেলেন আপনি ও আপনার স্ত্রী। 

এই মজা আর আনন্দের টানেই পরদিন আপনি সপরিবারে গেলেন কক্সবাজারের ইনানী সমুদ্র সৈকতে। দেখলেন সে এক মনোরম সৈকত। সারা সৈকত জুড়ে ছড়ানো বিশালকায় সব প্রবাল পাথর স্বচ্ছ পানির মধ্যে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে মাথা বের করে আছে। আবার কোথাও কোথাও অসংখ্য সব পাথর গায়ে গায়ে জড়াজড়ি করে পানির মধ্যে দ্বীপ সৃষ্টি করে চলেছে। এই সময় হঠাৎ বৃষ্টি নামল। আর আপনি পায়ের পাতা ডোবা স্বচ্ছ পানির মধ্য দিয়ে হেঁটে একটা পাথরের দ্বীপে উঠে পড়লেন। তারপর পাথরের উপর দিয়ে হাঁটতে থাকলেন। বৃষ্টি পড়ার ফলে পিচ্ছিল হয়ে উঠছে পাথরগুলো। তাই হাঁটতে হচ্ছে সতর্কভাবে। যা আপনাকে রোমান্টিক করে তুলছে। ছোট ছোট স্বচ্ছ পানির জলাশয়ে দেখতে পাচ্ছেন অসংখ্য ছোট মাছের ঝাঁক। মাছদের তাড়া করে জলকেলিতেও মেতে উঠলেন। 

বর্ষার সমুদ্র ছাড়াও কক্সবাজারে দেখতে পারেন বৌদ্ধ মন্দির, বার্মিজ মার্কেট, হিমছড়ির ঝর্না ইত্যাদি। এছাড়া সৈকতে দাঁড়িয়ে সূর্যাস্ত দেখার অনুভ‚তিও চমৎকার। কী করে সূর্য কমলালেবুর মতো রঙ ধারণ করে চারদিকে নরম আলো ছড়িয়ে টুপ করে হঠাৎ ডুবে যায় সমুদ্রের জলেÑ দেখার মতোই দৃশ্য এটি। 

সেন্টমার্টিন

বঙ্গোপসাগরের বুকে ছোট্ট এক দ্বীপ সেন্টমার্টিন। প্রাচীন নাম নারিকেল জিঞ্জিরা। বাংলাদেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ। এর সৌন্দর্য অসাধারণ। এখানকার সৈকতেরও ভিন্ন রূপ। কক্সবাজারের চেয়ে অনেক বেশি নির্জনও। আরেকটি বৈশিষ্ট্য হলো, সৈকতের একদিকে অসংখ্য প্রবাল পাথর ছড়িয়ে-ছটিয়ে রয়েছে। এখানে এই প্রবাল দ্বীপে, বৃষ্টির মাঝে, সৈকতে ছোটাছুটি কিংবা সমুদ্রে অবগাহন করে দারুণ আনন্দ পাবেন আপনি। নানা ধরনের শঙ্খ কুড়িয়েও উচ্ছল খুশিতে মেতে উঠবে আপনার সন্তানেরা।

কুয়াকাটা 

বর্ষায় সমুদ্র দেখার আরেকটি আকর্ষণীয় স্থান হচ্ছে কুয়াকাটা। এর প্রধান আকর্ষণ, বলাই বাহুল্য, সমুদ্র সৈকত। সেখানে গেলে আপনি দেখতে পাবেন প্রস্থে ৬ কিলোমিটার ও লম্বায় ৩০ কিলোমিটার এই সৈকতটি ক্রমশ ঢালু হয়ে সমুদ্রে মিশেছে। ভৌগোলিক অবস্থানের কারণেই এই সৈকতটি কক্সবাজার সমুদ্রে সৈকত থেকে ভিন্নভাবে আপনার চোখে ধরা দেবে। আর যখন বৃষ্টির মধ্যে এই সৈকতে আপনি সময় কাটাবেন, তখন যে আনন্দ-অনুভ‚তির সঞ্চার হবে আপনার হৃদয়ে, তাও ভিন্ন। নীল আর নীলের বিন্যাসে অমিশ্রিত বেলাভ‚মি কুয়াকাটা বর্ষার সময়ে মায়া অঞ্জন বুলিয়ে দেবে আপনার চোখে। সমুদ্রের ঢেউয়ের দোলায় দুলতে দুলতে এবং বৃষ্টির জলে ভিজতে ভিজতে কী যে ভালো লাগবে আপনার তা ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়। 

বেলাভ‚মিকে ঘিরে দণ্ডায়মান বিশাল নারকেল বাগানও আপনাকে অভি ভত করবে। বৃষ্টি আর প্রবল হাওয়ার মধ্যে যখন নারকেল গাছগুলোর পাতা নড়বে ভীষণভাবে, তখন সমুদ্রের ঢেউয়ের গর্জন ও বাতাসের শোঁ শোঁ আওয়াজ এক অদ্ভুত পরিবেশের সৃষ্টি করবে। আপনার মনে হবে, নারকেল গাছের সারি হাত ধরাধরি করে মিতালি তৈরি করেছে বন্য কিশোরী সমুদ্রের সঙ্গে। 

এছাড়া সূর্যোদয় ও সূর্যাস্ত দেখার জন্য কুয়াকাটার যে সুখ্যাতি, তাও উপভোগ করতে পারেন কুয়াকাটার যে-কোনো স্থান থেকে। তবে একটু ভালোভাবে দেখতে হলে যেতে পারেন গঙ্গামতির চরে। এছাড়া ফাতরা বন, শুঁটকি পাড়া, রাখাইনদের বসতি, বৌদ্ধ মন্দির দেখতে পারেন। ভালো লাগবে। 

সতর্কীকরণ 

জোয়ার-ভাটার সময় জেনে তবেই সমুদ্রে নামবেন। হঠাৎ যদি আকাশ ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করে, প্রচণ্ড বেগে বাতাস বয়, সমুদ্রের ঢেউ উত্তাল হয়ে ওঠেÑ সেই ক্ষেত্রে সমুদ্র থেকে উঠে আসুন দ্রুত। 

কীভাবে যাবেন 

ঢাকা থেকে কক্সবাজার বাসে যাওয়া যায়। সৌদিয়া, এস আলম চ্যালেঞ্জার ইত্যাদি বাসে কক্সবাজার যেতে পারেন। এস আলমের কমলাপুর, ফকিরাপুল ও গাবতলীতে কাউন্টার আছে। ফোন নম্বর যথাক্রমে ৮৩১৫০৮৭, ৯৩৩১৮৬৪, ৯০০২৭০২। সৌদিয়া ও চ্যালেঞ্জারের ফোন নম্বর যথাক্রমে ৭১০২৪৬৫ এবং ৮৩১৭৬৮০; ৮৩১৭৫৫৭। সোহাগ ও গ্রীনল্যান্ডেও যেতে পারেন কক্সবাজার। এদের এসি বাস রয়েছে। সোহাগ-এর ফোন নম্বর ৯৩৩৪১৫২, ৮৩১৬৭৬৬, ৮১২৬২৯৩। গ্রীন লাইন : ৯৩৩৯৬২৩, ৯৩৪২৫৮০, ৮৩৫৩০০৫। এছাড়া ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম পর্যন্ত ট্রেনে এসে বাকি পথটুকু বাসে আসতে পারেন। মহানগর প্রভাতী, কর্ণফুলী এক্সপ্রেস, মহানগর গোধূলী, সুবর্ণ এক্সপ্রেস, চট্টগ্রাম মেইল, ত‚র্ণা নিশীতা ট্রেনগুলো ঢাকা-চট্টগ্রামের পথে দিনরাত চলাচল করে। আকাশপথেও কক্সবাজার যাওয়া যায়। সময় লাগে এক ঘণ্টা। 

অন্যদিকে নানাভাবে কুয়াকাটা যেতে পারেন আপনি। ঢাকার গাবতলী থেকে বাসে কুয়াকাটার উদ্দেশে যাত্রা করতে পারেন। এছাড়াও আপনি লঞ্চে বা প্লেনে হয়ে বরিশাল কুয়াকাটা যেতে পারেন। 

কোথায় থাকবেন 

কক্সবাজারে রয়েছে অসংখ্য হোটেল। পর্যটনের হোটেল শৈবাল, এসি/নন এসি রুম রয়েছে। ফোন নম্বর ০৩৪১-৬৩২৭৪-৫, হোটেল প্রবাল, ফোন : ০৩৪১-৬৩২১১; মোটেল লাবণী, ফোন : ০৩৪১-৪৭০৩। পর্যটনের ঢাকা অফিসের ফোন নম্বর ৯৮৯৯২৮৮-৯১। এছাড়া হোটেল সি-গালে উঠতে পারেন। খুবই সুন্দর পরিবেশ। ফোন : ঢাকা অফিস- ৮৩২২৯৭৩-৬। কক্সবাজার; ০৩৪১-৬২৪৮০-৯১। থাকতে পারেন প্রাসাদ প্যারাডাইসয়েও। ফোন নম্বর : ঢাকা অফিস, ৮৮১৭৪০০। হোটেল সী-গালের মতো পাঁচ তারকা আরেকটি হোটেল—হোটেল সী প্যালেস লিমিটেড। ফোন ঢাকা অফিস : ৯৫৫২৪৫৩। কক্সবাজার : ০৩৪১-৬৩৬৯২, ৬৩৭৯২, ৬৩৭৯৪, ৬৩৮২৬। মোবাইল : ০১৭১৪৬৫২২২৭, ০১৭১৪৬৫২২২৮। এছাড়া উঠতে পারেন হোটেল সায়মন  (ফোন : ০১৭১-০২২০৮৮; ০৩৪১-৬৩২৩৫), হোটেল কোরাল রীফ (০৩৪১-৬৪৭৪৪-৫, ০১৭১-১৭৩৭৩৪)। সায়মন ও কোরাল রীফের মতো তিন তারকা হোটেলের মধ্যে আরও রয়েছেÑনিটোল বে রিসোর্ট, উইনি রিসোর্ট, হোটেল সিলভার সাইন প্রাঃ লিঃ।

সেন্টমার্টিনে এখন বেশ কয়েকটি চমৎকার হোটেল-মোটেল এবং রিসোর্ট গড়ে উঠেছে। এইগুলোর মধ্যে রয়েছে—সীমানা পেরিয়ে রিসোর্ট লিঃ (ফোন : ০১৯১১১১২৯২) সেন্ট মার্টিন’স রিসোর্ট (ফোন : ০১৮১৯৪৯০১২৯), রিয়ার গেস্ট হাউজ (ফোন : ০১৮১৮৫৬২৫৫), কোরাল বøুু রিসোর্ট) ফোন : ০১৭১৩১৯০০০৭), সমুদ্র বিলাস আনন্দ আশ্রম (ফোন : ০১৭২৭৩৬৮৫৮৯, ০১৭৩৩৯০০৪০০), পান্না রিসোর্ট (ফোন : ০১৮১৯২২২২২, ০১৮২৪৫৮৮৪৪৫), লাবিবা বিলাস (ঢাকা অফিস : ৭১১৭৭৮৩, ৭১১৩৫৫। মোবাইল : ০১৭১১৬৬৮৮০০, ০১৭১৮৮৪৭৮৮০), হলিডে বাংলাদেশ (ফোন : ০১৭৩০৫৭৭৩৮৮; ০১৭৫৪৫৫৫২৪৩), রিসোর্ট ড্রিম নাইট (ফোন : ০১৮২৮১৬৫৮৪১; ০১৮১৫৫৭০৩৫৬) 

কুয়াকাটায়ও এখন বিলাসবহুল হোটেল/রিসোর্ট রয়েছে। কয়েকটির ফোন নম্বর উলে­খ করা হলো। 

হোটেল স্কাই প্যালেস (ফোন : ঢাকা অফিস : ৭১০০৫৯০; মোবাইল : ০১৭২৭-০৩০২৪৮, ০১৭১৬-৭৪৯০২৭); হোটেল নীলাঞ্জনা ইন্টারন্যাশনাল (ফোন : ০১৭১-৩০২৪০৮৭; ০১৭১২২২-৮১৪৪); পর্যটন হলিডে হোম (ফোন ঢাকা অফিস : ৯১২০৩৯২, ৮১১৭৮৫৫-১০৮) 

দ্য গোল্ডেন প্যালেস (ফোন : ঢাকা অফিস : ০১৭১৫০৬১২০১; ০১৭১১৮৮৪৩২১, বরিশাল : ০১৭১৮-৪৫০০৪০; ০১৭১১-৪৪১৬২২); সাগরকন্যা রিসোর্ট লিঃ (ফোন, ঢাকা অফিস : ৮৩১৪০৬১, ০১৭২০২০৯০২৯; পটুয়াখালী : ০১৭২০২০৯০২৯, ০১৭১১১৮১৭৯৮)। 

All News Report

Add Rating:

0

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধর: ভিডিও ভাইরাল সেলিমের ছেলের বিরুদ্ধে মামলা

নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধর: ভিডিও ভাইরাল সেলিমের ছেলের বিরুদ্ধে মামলা

শিক্ষক সংকট করোনা পরবর্তি সময়ে হাবিপ্রবিতে তীব্র সেশনজটের আশঙ্কা

শিক্ষক সংকট করোনা পরবর্তি সময়ে হাবিপ্রবিতে তীব্র সেশনজটের আশঙ্কা

হাজী সেলিমের ছেলে ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. ইরফান সেলিমের এক বছরের কারাদণ্ড

হাজী সেলিমের ছেলে ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. ইরফান সেলিমের এক বছরের কারাদণ্ড

বীমা শিল্পে নারী জাগরণের পথিকৃৎ রাবেয়া বেগম রুনা

বীমা শিল্পে নারী জাগরণের পথিকৃৎ রাবেয়া বেগম রুনা

জেনে নিন, দালাল ছাড়াই পাসপোর্ট করার সহজ উপায় !

জেনে নিন, দালাল ছাড়াই পাসপোর্ট করার সহজ উপায় !

যে কারণে হাজী সেলিমের ছেলে কে এক বছরের কারাদন্ড

যে কারণে হাজী সেলিমের ছেলে কে এক বছরের কারাদন্ড

ঠাকুরগাঁওয়ে বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়িতে ৩৩ দিন ধরে কলেজ ছাত্রীর অনশন

ঠাকুরগাঁওয়ে বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়িতে ৩৩ দিন ধরে কলেজ ছাত্রীর অনশন

এসআই আকবর কে পালাতে সহায়তাকারী কে কে  আজ জানা যাবে

এসআই আকবর কে পালাতে সহায়তাকারী কে কে আজ জানা যাবে

১লা নভেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে মাধ্যমিক শ্রেণির সিলেবাস বাস্তবায়ন কার্যক্রম

১লা নভেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে মাধ্যমিক শ্রেণির সিলেবাস বাস্তবায়ন কার্যক্রম

সমাবেশেই অসুস্থ হয়ে পড়েছেন ডা. জাফরুল্লাহ

সমাবেশেই অসুস্থ হয়ে পড়েছেন ডা. জাফরুল্লাহ

এসএসসি পরীক্ষার হবে না হবে জানুন

এসএসসি পরীক্ষার হবে না হবে জানুন

কাঠালিয়ায় নদীর পাড় থেকে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার

কাঠালিয়ায় নদীর পাড় থেকে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার

সঙ্গীত অঙ্গনে বিস্ময়কর বালক "ভাবের মামুন"

সঙ্গীত অঙ্গনে বিস্ময়কর বালক "ভাবের মামুন"

স্কুল-কলেজেও সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন হচ্ছে!

স্কুল-কলেজেও সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন হচ্ছে!

মিন্নির মতো এই ১৪ জনেরও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চান রিফাতের বোন

মিন্নির মতো এই ১৪ জনেরও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চান রিফাতের বোন

সর্বশেষ

শিশুর বিকাশ বাড়বে সুষম খাদ্য আর খেলাধুলাতেই

শিশুর বিকাশ বাড়বে সুষম খাদ্য আর খেলাধুলাতেই

বরগুনায় প্রতিমা বানাতে ব্যবহার করা হয়েছে পবিত্র কালিমা খচিত বইয়ের পৃষ্ঠা

বরগুনায় প্রতিমা বানাতে ব্যবহার করা হয়েছে পবিত্র কালিমা খচিত বইয়ের পৃষ্ঠা

ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটুক্তি: জবি শিক্ষার্থী সাময়িক বহিষ্কার

ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটুক্তি: জবি শিক্ষার্থী সাময়িক বহিষ্কার

বানারীপাড়ায় দলিল উদ্দিন মাদরাসার শিক্ষক হাফেজ আনোয়ারের ইন্তেকাল

বানারীপাড়ায় দলিল উদ্দিন মাদরাসার শিক্ষক হাফেজ আনোয়ারের ইন্তেকাল

হলোনা বাংলাদেশ-ভারতের মিলনমেলা, ইছামতিতে অশ্রুসিক্ত নয়নে দেবী দূর্গাকে বিসর্জন দিল সনাতন ধর্মাবলম্বীরা

হলোনা বাংলাদেশ-ভারতের মিলনমেলা, ইছামতিতে অশ্রুসিক্ত নয়নে দেবী দূর্গাকে বিসর্জন দিল সনাতন ধর্মাবলম্বীরা

রংপুরে ৩০ সেকেন্ডে উধাও সাড়ে ১২ লাখ টাকা, গ্রেফতার

রংপুরে ৩০ সেকেন্ডে উধাও সাড়ে ১২ লাখ টাকা, গ্রেফতার

বাঘারপাড়ায় কৃতি শিক্ষার্থীদর সংবর্ধনা ও ক্রেষ্ট বিতরণ

বাঘারপাড়ায় কৃতি শিক্ষার্থীদর সংবর্ধনা ও ক্রেষ্ট বিতরণ

কোভিড-১৯ মোকাবেলায় আশাশুনির অতিদরিদ্র ১৭’শ পরিবারের মাঝে অর্থ সহায়তা

কোভিড-১৯ মোকাবেলায় আশাশুনির অতিদরিদ্র ১৭’শ পরিবারের মাঝে অর্থ সহায়তা

আশাশুনিতে চেয়ারম্যান ডালিমের বিরুদ্ধে মামলা, মুক্তির দাবীতে মানববন্ধন

আশাশুনিতে চেয়ারম্যান ডালিমের বিরুদ্ধে মামলা, মুক্তির দাবীতে মানববন্ধন

গৌরনদীতে পানিতে ডুবে স্কুল ছাত্রের মর্মান্তিক মৃত্যু

গৌরনদীতে পানিতে ডুবে স্কুল ছাত্রের মর্মান্তিক মৃত্যু

মিন্নির মতো এই ১৪ জনেরও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চান রিফাতের বোন

মিন্নির মতো এই ১৪ জনেরও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চান রিফাতের বোন

কাপড়ের মাস্ক ব্যবহারে যেসব নিয়ম মানা জরুরি

কাপড়ের মাস্ক ব্যবহারে যেসব নিয়ম মানা জরুরি

ভ্রমণ করার সময় বমি ও মাথা ঘোরা দূর করতে যা করবেন

ভ্রমণ করার সময় বমি ও মাথা ঘোরা দূর করতে যা করবেন

ফুটবল টুর্নামেন্ট: হাজিরহাট চ্যাম্পিয়ন

ফুটবল টুর্নামেন্ট: হাজিরহাট চ্যাম্পিয়ন

যে কারণে হাজী সেলিমের ছেলে কে এক বছরের কারাদন্ড

যে কারণে হাজী সেলিমের ছেলে কে এক বছরের কারাদন্ড