Feedback

জাতীয়, রাজনীতি

মধ্যবর্তী নির্বাচন ছাড়া প্রধানমন্ত্রীর আর কোন পথ নেই

মধ্যবর্তী নির্বাচন ছাড়া প্রধানমন্ত্রীর আর কোন পথ নেই
October 16
02:17pm
2020

আই নিউজ বিডি ডেস্ক Verify Icon
Eye News BD App PlayStore

আজকে সারাদেশ ভয়ানকভাবে অসুস্থ- রোগে, যৌন নিপীড়নে, ধর্ষণে। সুখের খবর হলো আমাদের প্রধানমন্ত্রী আর তার কন্যা সুস্থ্ আছেন। তবে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা ছাড়া এই রোগের কোন চিকিৎসা নেই। এজন্য কমিশন করে, সবার সঙ্গে কথা বলে, দেশকে গণতন্ত্র দেয়া এবং মধ্যবর্তী নির্বাচন ছাড়া প্রধানমন্ত্রীর আর কোন পথ নেই।

এসব কথা বলেছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্ট্রি ডা. জাফরুল্লাহ।  আজ শুক্রবার সকালে রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সাম্প্রতিক সময়ে অব্যাহত ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের ন্যায় জঘন্য ও ঘৃণ্য অপরাধের প্রতিবাদে এই কর্মসূচির আয়োজন করে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী সংগ্রামী দল। 

এসময় ইমামদের ভূমিকা তুলে ধরে বলেন, সম্প্রতি আমাদের আলেম সমাজ একটা স্টেটমেন্ট দিয়েছেন। তারা সেখানে মূল ইস্যু হিসেবে উল্লেখ করেছেন, মেয়েদের সমতা দিতে হবে। আপনাদের মসজিদে মসজিদে খুতবায় দেশের অনাচারের বিষয়টি তুলে ধরতে হবে।  তবে এর একমাত্র চিকিৎসা হলো সুষ্ঠু গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা। গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা ছাড়া দেশের এই রোগের কোন চিকিৎসা নাই। দ্বিতীয়ত, ইমাম সাহেবরা যেন এক বক্তব্য দিয়েই খালাস না হন। 

প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহবান জানিয়ে ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, আমরা সবার বাড়িতে সুখ চাই। এজন্য কমিশন করেন, সবার সঙ্গে কথা বলেন, দেশকে গণতন্ত্র দেন। মধ্যবর্তী নির্বাচন ছাড়া আপনার কোন পথ নাই।  শিক্ষার ব্যাপারে সরকার একটি ভুল সিদ্ধান্ত নিয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, একটা কিছু ভুল পথে চললে সেটাকে কারেক্ট করা খুব কঠিন ব্যাপার হয়। ১৯৭২ সালে আমাদের পরীক্ষা নিয়ে যে সমস্যা হয়েছিল, নকলের যে সমারোহ হয়েছিল, সেটাকে বন্ধ করতে আমাদের একটা দীর্ঘ সময় লেগেছিল।

আজকে তারই উদাহরণ ধরে বলছি, সরকার একটা ভুল সিদ্ধান্ত নিয়েছে।  বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী সংগ্রামী দলের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন হানিফের সভাপতিত্বে এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন কবি আবদুল হাই শিকদার, এহসানুল হক মিলন, জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু, সেলিম হোসেন ভূইয়া, রফিক শিকদার, সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্র নেত্রী আরিফা সুলতানা রুমা প্রমূখ।

All News Report

Add Rating:

0

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

বাতিল হতে যাচ্ছে ‘কাফালা বা কপিল প্রথা’: ২০২১ সালের প্রথম ৬ মাসেই বিলুপ্তি কার্যকর হবে

বাতিল হতে যাচ্ছে ‘কাফালা বা কপিল প্রথা’: ২০২১ সালের প্রথম ৬ মাসেই বিলুপ্তি কার্যকর হবে

মোরগের আক্রমণে পুলিশ কর্মকর্তার মৃত্যু

মোরগের আক্রমণে পুলিশ কর্মকর্তার মৃত্যু

সুনামগঞ্জে সন্ত্রাসীদের অস্ত্রের আঘাতে একই পরিবারের ৮ জন আহত

সুনামগঞ্জে সন্ত্রাসীদের অস্ত্রের আঘাতে একই পরিবারের ৮ জন আহত

নাস্তিকরা উগ্রবাদী হয়ে উঠছে- শাহরিয়ার কবির

নাস্তিকরা উগ্রবাদী হয়ে উঠছে- শাহরিয়ার কবির

বাংলা সিনেমার ফিল্ম স্টাইলে দেহরক্ষী নিয়ে চলতেন ইরফান !

বাংলা সিনেমার ফিল্ম স্টাইলে দেহরক্ষী নিয়ে চলতেন ইরফান !

ভয়ে ফরাসি নাগরিকদের সতর্ক থাকার আহবান ফ্রান্সের

ভয়ে ফরাসি নাগরিকদের সতর্ক থাকার আহবান ফ্রান্সের

জয়পুরহাটে এমপি'র নামফলক ভাংচুরের অভিযোগ

জয়পুরহাটে এমপি'র নামফলক ভাংচুরের অভিযোগ

মালয়েশিয়ায় চাকরী হারানো শ্রমিকদের জন্য অনলাইনে চাকরীর আবেদন চালু করা হয়েছে

মালয়েশিয়ায় চাকরী হারানো শ্রমিকদের জন্য অনলাইনে চাকরীর আবেদন চালু করা হয়েছে

রংপুরে ছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণে জড়িত এএসআই রাহেনুল

রংপুরে ছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণে জড়িত এএসআই রাহেনুল

লালন সাইঁজির তিরোধান দিবস উপলক্ষে রাজিব শাহ'র কণ্ঠে আসছে "ধন্য আশেকি জনা"

লালন সাইঁজির তিরোধান দিবস উপলক্ষে রাজিব শাহ'র কণ্ঠে আসছে "ধন্য আশেকি জনা"

ঢাবির লাইব্রেরির পেছনে পাওয়া গেল নবজাতকের লাশ

ঢাবির লাইব্রেরির পেছনে পাওয়া গেল নবজাতকের লাশ

পটুয়াখালীতে দুই সমকামী নারী গ্রেফতার

পটুয়াখালীতে দুই সমকামী নারী গ্রেফতার

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার সম্ভাব্য তারিখ নির্ধারণ

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার সম্ভাব্য তারিখ নির্ধারণ

সিনহা হত্যা: আবারো ৫ দিনের রিমান্ডে কনস্টেবল রুবেল শর্মা

সিনহা হত্যা: আবারো ৫ দিনের রিমান্ডে কনস্টেবল রুবেল শর্মা

ইরফান সেলিম ও তার দেহরক্ষী জাহিদের রিমান্ড শুনানি আজ

ইরফান সেলিম ও তার দেহরক্ষী জাহিদের রিমান্ড শুনানি আজ

সর্বশেষ

ধারালো অস্ত্রের আঘাতে বাবার হাতে মা খুন: কী হবে মৌমিতা-মহিমার?

ধারালো অস্ত্রের আঘাতে বাবার হাতে মা খুন: কী হবে মৌমিতা-মহিমার?

মিঠাপুকুরে আমন ধানক্ষেতে কারেন্ট পোকার উপদ্রপে কৃষক জনগোষ্ঠির মাথায় হাত

মিঠাপুকুরে আমন ধানক্ষেতে কারেন্ট পোকার উপদ্রপে কৃষক জনগোষ্ঠির মাথায় হাত

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি আবারো বাড়ছে, বৃহস্পতিবার সিদ্ধান্ত

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি আবারো বাড়ছে, বৃহস্পতিবার সিদ্ধান্ত

শিশু গৃহকর্মীর মরদেহ রেখে পালানোর সময় স্বামী-স্ত্রী আটক

শিশু গৃহকর্মীর মরদেহ রেখে পালানোর সময় স্বামী-স্ত্রী আটক

নয় দিনে ৯ লাখ ৭৭ হাজার টাকা, নূরের গণচাঁদার হিসাব প্রকাশ

নয় দিনে ৯ লাখ ৭৭ হাজার টাকা, নূরের গণচাঁদার হিসাব প্রকাশ

ভুয়া চিকিৎসক ও অনিয়ম রোধে র‍্যাব এর অভিযান

ভুয়া চিকিৎসক ও অনিয়ম রোধে র‍্যাব এর অভিযান

নতুন করে আর সৌমিত্রর অবস্থার অবনতি হয়নি , ডায়ালিসিস শুরু হয়েছে

নতুন করে আর সৌমিত্রর অবস্থার অবনতি হয়নি , ডায়ালিসিস শুরু হয়েছে

গফরগাঁও পৌরসভাকে ডিজিটালভাবে নিমার্ণ করার ঘোষণা

গফরগাঁও পৌরসভাকে ডিজিটালভাবে নিমার্ণ করার ঘোষণা

মিরপুর সেনানিবাসস্থ ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজ (এনডিসি) লাইব্রেরীতে বঙ্গবন্ধু কর্ণার স্থাপন

মিরপুর সেনানিবাসস্থ ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজ (এনডিসি) লাইব্রেরীতে বঙ্গবন্ধু কর্ণার স্থাপন

লোভে পড়ে স্ত্রী সহবাসের লাইভ দেখিয়ে লাখ টাকা আয়! স্ত্রীর মামলায় যুবক কারাগারে

লোভে পড়ে স্ত্রী সহবাসের লাইভ দেখিয়ে লাখ টাকা আয়! স্ত্রীর মামলায় যুবক কারাগারে

ইসলামী ব্যাংক ছাতক শাখায় ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত

ইসলামী ব্যাংক ছাতক শাখায় ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত

রং নম্বরে পরিচয়, পরকীয়ার টানে ঘরে ছেড়ে মাইক্রোবাসে ধর্ষণের স্বীকার গৃহবধূ

রং নম্বরে পরিচয়, পরকীয়ার টানে ঘরে ছেড়ে মাইক্রোবাসে ধর্ষণের স্বীকার গৃহবধূ

আজমিরীগঞ্জে দরিদ্রের প্রণোদনা বিতরণে কমিশনারের স্বজন প্রীতির অভিযোগ

আজমিরীগঞ্জে দরিদ্রের প্রণোদনা বিতরণে কমিশনারের স্বজন প্রীতির অভিযোগ

বালিয়াডাঙ্গীতে বসতভিটার জমি নিয়ে সংঘর্ষ, আহত-৩

বালিয়াডাঙ্গীতে বসতভিটার জমি নিয়ে সংঘর্ষ, আহত-৩

শার্লি হেবদোর বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা করলেন এরদোয়ান

শার্লি হেবদোর বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা করলেন এরদোয়ান