Feedback

খোলা কলাম

গণিতে পারদর্শী আবার মানুষের মুখ চিনতে পারা রহস্যময় এক পতঙ্গ

গণিতে পারদর্শী আবার মানুষের মুখ চিনতে পারা রহস্যময় এক পতঙ্গ
October 15
02:52pm
2020
Md. Nayeem Uddin Khan
Khilgaon, Dhaka:
Eye News BD App PlayStore

প্রাচীনকাল থেকে মৌমাছি মানুষের নিকট অতি পরিচিত এক প্রকার ক্ষুদ্র, উপকারী ও পরিশ্রমী পতঙ্গ। পৃথিবীতে প্রায় ২০ হাজার প্রজাতির মৌমাছির  আছে। এগুলোর ভিতরে ভারতে বেশ কয়েক প্রজাতির মৌমাছি দেখা যায়। প্রাচীনকাল থেকেই মৌমাছি মানুষের নিকট অতি পরিচিত এক প্রকার ক্ষুদ্র, উপকারী ও পরিশ্রমী পতঙ্গ।

সাধারণত দলবদ্ধভাবে বাস করে বলে এদের সামাজিক পতঙ্গ বলা হয়। মৌমাছিরা ফুলের পরাগায়ন ঘটিয়ে বনজ, ফলজ ও কৃষিজ ফসলের উৎপাদন বাড়িয়ে দেয়। তবে মৌমাছি মধু তৈরি করে, এটা সবাই জানে। তবে এটা হয়তো অনেকেরই অজানা যে মৌমাছি গণিতে পারদর্শী এক পতঙ্গ।

হাজার হাজার বছর ধরে মানুষের কাছে মৌমাছি বুদ্ধিমত্তাবিহীন প্রাণী হিসাবে পরিচিত। আমাদের দৃষ্টিতে জৈবিক রোবট। যারা শুধু প্রকৃতি প্রদত্ত ভূমিকা পালন করে। এক শতাব্দী আগে অস্ট্রিয়ার ব্রুনউইঙ্কলে ধারণাটি ভুল প্রমাণিত হয়। শিশুকাল থেকেই কার্ল ভন ফ্রিস জানার চেষ্টা করতেন প্রাণীদের কাছে পৃথিবীটা কেমন? তিনি পরীক্ষা করতেন ছোট মাছগুলো রং কিংবা গন্ধ চিনতে পারে কিনা? এরপর সেগুলো ক্যামেরায় ধারণ করতেন। হাজারো বছর ধরে মানুষ মৌমাছিদের অদ্ভুত নৃত্য নথিভুক্ত করে এসেছে। তবে কার্ল ভন ফ্রিশের পূর্বে কেউ ভাবেনি কেন মৌমাছি এরকম অদ্ভুত ভাবে লাফালাফি করে। ভন ফ্রিশ প্রতিটি নাচের মুদ্রা নিয়ে বিস্তর গবেষণা করেন।

তিনি একটি নির্দিষ্ট মৌচাকের একটি মৌমাছিকে চিনি মিশ্রিত পানি খেতে দেন। মৌমাছিটি প্রথমে কিছু চিনি মিশ্রিত পানি খেয়ে নেয় এবং মৌচাকের দিকে রওনা হয়। ততক্ষণে ভন ফ্রিশ মৌমাছিটিকে চেনার জন্য লাল রং দিয়ে চিহ্নিত করেন। একই মৌমাছি কিছুক্ষণ পর আবার ফিরে আসে। ভন ফ্রিশ লক্ষ্য করেন, কয়েক ঘণ্টা পর ওই মৌচাক থেকে দলে দলে মৌমাছি আসতে শুরু করেছে। অথচ অন্য কোনো মৌচাক থেকে একটি মৌমাছি ও আসেনি। তিনি মধুর পরিবর্তে চিনি মিশ্রিত পানি ব্যবহার করেছিলেন, তাই মৌমাছিদের গন্ধ অনুভূতি এখানে কাজ করেনি। ভন ফ্রিশ কয়েক কিলোমিটার দূরেও চিনি মিশ্রিত পানি স্থাপন করে একই ফলাফল পান। তবে কীভাবে অন্য মৌমাছিরা চিনির উত্‍স খুঁজে পেল?

প্রথম মৌমাছিটির নৃত্যের মাঝে এক গোপন সংকেত লুকায়িত ছিল। হাজার বছর ধরে মানুষ এই লাফালাফি কে অর্থহীন মনে করলেও এটি এক জটিল বার্তা সংকেত। গণিত, জ্যোতির্বিজ্ঞান এবং সময় জ্ঞানের সমন্বয়ের এক নিখুঁত সমীকরণ। মৌমাছিরা সূর্যের অবস্থানকে ব্যবহার করে খাদ্যের উত্‍স নির্দেশ করে‌। নৃত্যের দিক সূর্যের দিকে হলে খাদ্য সূর্যের দিকে এবং বিপরীত দিকে হলে খাদ্যও বিপরীত দিকে। কৌণিক অবস্থানে হলে এদের নৃত্যের দিক ও কৌণিক বরাবরই হয়। মৌমাছি নৃত্যের ব্যপ্তিকাল খাবারের উৎসের দূরত্ব নির্দেশ করে। 

এই পদ্ধতি পৃথিবীর যেকোনো দেশে যেকোনো সময়ের জন্য সত্য। মানুষ ব্যতীত বুদ্ধিমান প্রাণী চিন্তা করলেই চোখে ভেসে ওঠে এলিয়েনের প্রতিচ্ছবি। কিন্তু আমাদের পাশেই এক অসাধারণ বুদ্ধিমান প্রাণীর বসবাস যারা কিনা গণিতে পারদর্শী। মৌমাছি সম্পর্কে কম বেশি আমরা সবাই জানি তবে এমন অনেক কিছু অজানা তথ্য রয়েছে যা আমাদের জানা নেই। আজ তাই জানবো মৌমাছি সম্পর্কে এমন ১০ টি অজানা তথ্য-

> ২০০৮ সালের একটি গবেষণায় দেখা গেছে যে, এশিয়ান মৌমাছি এবং ইউরোপীয় মৌমাছি একে অপরকে বুঝতে পারে।

> ২০১২ সালের গবেষণায় গবেষকগণ দেখেছেন যে, মৌমাছির মানুষের মুখের ছবি মনে রাখতে পারে এবং পরে দেখলে সে মুখ চিনতেও পারে।

> একটি মধু সংগ্রহকারি মৌমাছি এক সেকেন্ডে ২০০ বার তার ডানা ঝাপটায় যার ফলে এই মৌমাছি উড়ার সময় ভোঁ শব্দ হয়।

> একটি কর্মী মৌমাছি তার পুরো জীবনে গড়ে এক চা চামচের ১২ ভাগের এক ভাগ মধু সংগ্রহ করে থাকে।

> সব কর্মী মৌমাছি মহিলা হয়ে থাকে। এরা প্রায় ছয় সপ্তাহ বাঁচে এবং এই সময়ের মধ্যে সকল কাজ করে থাকে।

> পুরুষ মৌমাছি গুণ গুণ শব্দ করে। তাদের একমাত্র কাজ হল রানি মৌমাছিকে খুঁজে বের করা এবং তার সঙ্গে মিলিত হওয়া।

> আফ্রিকার মধু সংগ্রহকারি মৌমাছি হত্যাকারী মৌমাছি নামে পরিচিত। মূলত এই সকল হত্যাকারী মৌমাছি ১৯৫৬ সালে ইউরোপীয় মৌমাছি এবং আফ্রিকান মৌমাছির মিলনের ফলে জন্মায়। ব্রাজিলে এই সব মৌমাছিকে দেখা যাওয়ার পর থেকে তারা সর্বমোট এক হাজার মানুষকে হত্যা করেছে।

> প্রতিটি মৌমাছির ১৭০ টি সুগন্ধি রিসেপটরস আছে। যার দ্বারা সে বিভিন্ন ফুল শনাক্ত করতে পারে এবং তার প্রয়োজন মত খাবার ও মধু সংগ্রহ করতে পারে।

> ১৭ শতকের শেষ এবং ১৮ শতকের প্রথম দিকে রানি মৌমাছিকে রাজা মৌমাছি মনে করা হত।

> রানি মৌমাছি প্রায় পাঁচ বছর পর্যন্ত বাঁচতে পারে এবং সে গ্রীষ্মের মাসগুলোতে প্রতিদিন সর্বোচ্চ ২৫০০ টি ডিম দিয়ে থাকে।

All News Report

Add Rating:

0

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

আন্তর্জাতিক শান্তি পদক পেলেন শাপলা দেবী ত্রিপুরা

আন্তর্জাতিক শান্তি পদক পেলেন শাপলা দেবী ত্রিপুরা

নারী কেলেঙ্কারি ঘটনায় বিতর্কিত সাংসদ নাজিম উদ্দিন আহমেদ

নারী কেলেঙ্কারি ঘটনায় বিতর্কিত সাংসদ নাজিম উদ্দিন আহমেদ

প্রথমবারের মতো ' গুচ্ছ পদ্ধতিতে ' যাচ্ছে হাবিপ্রবি: উপাচার্য

প্রথমবারের মতো ' গুচ্ছ পদ্ধতিতে ' যাচ্ছে হাবিপ্রবি: উপাচার্য

নতুন ভিসা প্রাপ্ত অভিবাসী শ্রমিকদের সৌদি আরব জেতে নতুন করে বিপত্তি

নতুন ভিসা প্রাপ্ত অভিবাসী শ্রমিকদের সৌদি আরব জেতে নতুন করে বিপত্তি

ভিপি নূরের উথ্যান বিএনপির ঘুম হারাম করে দিচ্ছে

ভিপি নূরের উথ্যান বিএনপির ঘুম হারাম করে দিচ্ছে

জয়পুরহাটে চার শিশু শিক্ষার্থীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে মাদ্রাসা শিক্ষক গ্রেপ্তার

জয়পুরহাটে চার শিশু শিক্ষার্থীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে মাদ্রাসা শিক্ষক গ্রেপ্তার

জামালপুর মেলান্দহে ছয়দিন পর অটোরিকশা চালকের লাশ উদ্ধার

জামালপুর মেলান্দহে ছয়দিন পর অটোরিকশা চালকের লাশ উদ্ধার

দশ লক্ষ টাকা পুরস্কার কুখ্যাত আকবর ভুঁইয়া ধরিয়ে দিলে!

দশ লক্ষ টাকা পুরস্কার কুখ্যাত আকবর ভুঁইয়া ধরিয়ে দিলে!

জয়পুরহাটে ২২ জন মাদকসেবী ও ৭ জুয়াড়িকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব

জয়পুরহাটে ২২ জন মাদকসেবী ও ৭ জুয়াড়িকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব

তাড়াইল মডেল উপজেলা হিসেবে রুপান্তিত

তাড়াইল মডেল উপজেলা হিসেবে রুপান্তিত

২১ বছরেও আলোর মুখ দেখেনি হাবিপ্রবির অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন

২১ বছরেও আলোর মুখ দেখেনি হাবিপ্রবির অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন

কুষ্টিয়ায় ৫ বছরের এক শিশুর লাশ পরিত্যাক্ত বাথরুম থেকে উদ্ধার

কুষ্টিয়ায় ৫ বছরের এক শিশুর লাশ পরিত্যাক্ত বাথরুম থেকে উদ্ধার

আমতলীতে কোচিং সেন্টারের পরীক্ষা বন্ধ! পালিয়ে গেলেন শিক্ষক

আমতলীতে কোচিং সেন্টারের পরীক্ষা বন্ধ! পালিয়ে গেলেন শিক্ষক

কাতারে প্রবাসীদের জন্য দূতাবাসের সেবার মান উন্নয়নে নতুন উদ্যোগ

কাতারে প্রবাসীদের জন্য দূতাবাসের সেবার মান উন্নয়নে নতুন উদ্যোগ

অক্টোবরের মাঝেই ‘পিতা-মাতার ভরণপোষণ বিধিমালা’ চূড়ান্তের নির্দেশনা

অক্টোবরের মাঝেই ‘পিতা-মাতার ভরণপোষণ বিধিমালা’ চূড়ান্তের নির্দেশনা

সর্বশেষ

পলাশবাড়ীতে সেবাদানে বাড়ছে রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের গ্রাহক

পলাশবাড়ীতে সেবাদানে বাড়ছে রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের গ্রাহক

মিছবাহুর রহমান মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত

মিছবাহুর রহমান মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত

আজ বিশ্ব পরিসংখ্যান দিবস

আজ বিশ্ব পরিসংখ্যান দিবস

তালতলীতে উপ নির্বাচনের ভোট গণনা চলছে

তালতলীতে উপ নির্বাচনের ভোট গণনা চলছে

জামালপুরে পুত্রের বিরুদ্ধে পিতার সংবাদ সম্মেলন

জামালপুরে পুত্রের বিরুদ্ধে পিতার সংবাদ সম্মেলন

কুড়িগ্রামে নাগেশ্বরীতে রূপালী ব্যাংক লিমিটেড নাগেশ্বরী শাখার ভার্চুয়াল উদ্বোধন

কুড়িগ্রামে নাগেশ্বরীতে রূপালী ব্যাংক লিমিটেড নাগেশ্বরী শাখার ভার্চুয়াল উদ্বোধন

কবিতাঃতুমি আর আমি

কবিতাঃতুমি আর আমি

মিঠাপুকুরে ৪ বছরের শিশু বলাৎকারের শিকার

মিঠাপুকুরে ৪ বছরের শিশু বলাৎকারের শিকার

সরকারের পদত্যাগ মামা বাড়ির আবদার! বিএনপি’র মতো ব্যর্থ বিরোধীদল ইতিহাসে নেই

সরকারের পদত্যাগ মামা বাড়ির আবদার! বিএনপি’র মতো ব্যর্থ বিরোধীদল ইতিহাসে নেই

গোবিন্দগঞ্জ থানা বিএনপির মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

গোবিন্দগঞ্জ থানা বিএনপির মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

অসুস্থ বাবলার খোজ নিলেন বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ

অসুস্থ বাবলার খোজ নিলেন বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ

তালায় ২শত হতদিরদ্র ব্যক্তির মাঝে কাজের বিনিময় অর্থ প্রদান

তালায় ২শত হতদিরদ্র ব্যক্তির মাঝে কাজের বিনিময় অর্থ প্রদান

কুড়িগ্রামে মাকে ধর্ষণ চেষ্টার দায়ে ছেলে গ্রেফতার!

কুড়িগ্রামে মাকে ধর্ষণ চেষ্টার দায়ে ছেলে গ্রেফতার!

আমতলীতে নারী ভাইস চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে মাছ চুরি ঘটনায় বিচার দাবী সংবাদ সম্মেলন

আমতলীতে নারী ভাইস চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে মাছ চুরি ঘটনায় বিচার দাবী সংবাদ সম্মেলন

এবার সরকারই বাড়াল আলুর দাম

এবার সরকারই বাড়াল আলুর দাম