Feedback

জাতীয়, আইন-আদালত

ধর্ষণ মামলার আসামির যাবজ্জীবন সাজা বহাল রেখেছেন হাইকোর্ট

ধর্ষণ মামলার আসামির যাবজ্জীবন সাজা বহাল রেখেছেন হাইকোর্ট
October 14
10:04pm
2020
Abdul majid
Tejgoan, Dhaka:
Eye News BD App PlayStore

চৌদ্দ বছর আগে খুলনায় এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগের মামলায় আসামি ইব্রাহিম গাজীর যাবজ্জীবন সাজা বহাল রেখেছেন হাইকোর্ট। আদালত বলেছেন, শুধুমাত্র ডাক্তারি পরীক্ষা না হওয়ার কারণে ধর্ষণ প্রমাণ হয়নি বা আপিলকারী ধর্ষণ করেনি এই অজুহাতে সে খালাস পেতে পারে না। 

ভিকটিমের মৌখিক সাক্ষ্য ও অন্যান্য পারিপার্শ্বিক সাক্ষ্য দ্বারা আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে তার ভিত্তিতেই আসামিকে সাজা প্রদান করা যেতে পারে।  বিচারপতি মো. রেজাউল হক ও বিচারপতি ভীষ্মদেব চক্রবর্তীর হাইকোর্ট বেঞ্চ এ পর্যবেক্ষণ দিয়েছেন। খুলনার ইব্রাহিম গাজীর যাবজ্জীবন কারাণ্ডের সাজা বহাল রেখে এ পর্যবেক্ষণ দিয়েছেন হাইকোর্ট। হাইকোর্ট গত ২৭ ফেব্রুয়ারি এ রায় দেন। তবে বুধবার এর পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশিত হয়েছে। ওই রায়ে আদালত ভিকটিমের স্বাস্থ্য পরীক্ষার বিষয়ে উল্লেখিত পর্যবেক্ষণ দিয়েছেন। 

আদালতে আসামিপক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট আমিনুল হক হেলাল। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল জান্নাতুল ফেরদৌস রুপা। আদালতে আসামিপক্ষের যুক্তি ছিল, আদালতের আদেশ থাকার পরও প্রসিকিউশন ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষা করেনি। এছাড়া ভিকটিম যাদের প্রত্যক্ষদর্শী হিসেবে সাক্ষী করেছিল তাদের কেউ আদালতে সাক্ষী দেয়নি। এ কারণে আসামি খালাস পাবার অধিকারী। এ প্রসঙ্গে রায়ে বলা হয়েছে, ‘২০০৬ সালের ১৫ এপ্রিল ঘটনা ঘটে। আর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ট্রাইব্যুনাল আদেশ দেন ওই বছরের ১৭ মে। অর্থাৎ ৩২ দিন পরে। যদি ভিকটিমকে ওইদিনই ডাক্তারি পরীক্ষা করাও হতো, তবুও দীর্ঘদিন পর পরীক্ষা করার কারণে ধর্ষণের কোনো আলামত না পাওয়াটাই স্বাভাবিক ছিল। তবে শুধুমাত্র ডাক্তারি পরীক্ষা না করার কারণে প্রসিকিউশন পক্ষের মামলা অপ্রমাণিত বলে গণ্য হবে না।’ 

খুলনার কালিকাবাটি জামে মসজিদে আল কুরআন পড়তে গিয়ে ২০০৬ সালের ১৫ এপ্রিল ধর্ষণের শিকার হয় এক কিশোরী। এ ঘটনায় স্থানীয়ভাবে সালিশ-বৈঠক হয়। পরে ১৭ এপ্রিল থানায় মামলা করতে গেলে পুলিশ মামলা নেয়নি। এরপর ২৩ এপ্রিল আদালতে নালিশী মামলা করেন ভিকটিমের পিতা। এরপর আদালত ওই বছরের ১৭ মে ভিকটিমের স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালকে নির্দেশ দেন। ম্যাজিস্ট্রেটের প্রতিবেদনের ভিত্তিতে আসামির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। পরবর্তীতে খুলনার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল বিচার শেষে গত বছর ১৩ মার্চ এক রায়ে আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো দুইবছরের কারাদণ্ড দেন। এই রায়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল করেন ইব্রাহিম কাজী। এই আপিলের ওপর শুনানি শেষে হাইকোর্ট তার আপিল খারিজ করে গত ২৭ ফেব্রুয়ারি রায় দেন। এই রায়ের পূর্ণাঙ্গ কপি আজ প্রকাশিত হয়েছে।

All News Report

Add Rating:

0

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধর: ভিডিও ভাইরাল সেলিমের ছেলের বিরুদ্ধে মামলা

নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধর: ভিডিও ভাইরাল সেলিমের ছেলের বিরুদ্ধে মামলা

শিক্ষক সংকট করোনা পরবর্তি সময়ে হাবিপ্রবিতে তীব্র সেশনজটের আশঙ্কা

শিক্ষক সংকট করোনা পরবর্তি সময়ে হাবিপ্রবিতে তীব্র সেশনজটের আশঙ্কা

বীমা শিল্পে নারী জাগরণের পথিকৃৎ রাবেয়া বেগম রুনা

বীমা শিল্পে নারী জাগরণের পথিকৃৎ রাবেয়া বেগম রুনা

হাজী সেলিমের ছেলে ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. ইরফান সেলিমের এক বছরের কারাদণ্ড

হাজী সেলিমের ছেলে ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. ইরফান সেলিমের এক বছরের কারাদণ্ড

জেনে নিন, দালাল ছাড়াই পাসপোর্ট করার সহজ উপায় !

জেনে নিন, দালাল ছাড়াই পাসপোর্ট করার সহজ উপায় !

যে কারণে হাজী সেলিমের ছেলে কে এক বছরের কারাদন্ড

যে কারণে হাজী সেলিমের ছেলে কে এক বছরের কারাদন্ড

ঠাকুরগাঁওয়ে বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়িতে ৩৩ দিন ধরে কলেজ ছাত্রীর অনশন

ঠাকুরগাঁওয়ে বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়িতে ৩৩ দিন ধরে কলেজ ছাত্রীর অনশন

এসআই আকবর কে পালাতে সহায়তাকারী কে কে  আজ জানা যাবে

এসআই আকবর কে পালাতে সহায়তাকারী কে কে আজ জানা যাবে

১লা নভেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে মাধ্যমিক শ্রেণির সিলেবাস বাস্তবায়ন কার্যক্রম

১লা নভেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে মাধ্যমিক শ্রেণির সিলেবাস বাস্তবায়ন কার্যক্রম

সমাবেশেই অসুস্থ হয়ে পড়েছেন ডা. জাফরুল্লাহ

সমাবেশেই অসুস্থ হয়ে পড়েছেন ডা. জাফরুল্লাহ

এসএসসি পরীক্ষার হবে না হবে জানুন

এসএসসি পরীক্ষার হবে না হবে জানুন

কাঠালিয়ায় নদীর পাড় থেকে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার

কাঠালিয়ায় নদীর পাড় থেকে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার

সঙ্গীত অঙ্গনে বিস্ময়কর বালক "ভাবের মামুন"

সঙ্গীত অঙ্গনে বিস্ময়কর বালক "ভাবের মামুন"

মিন্নির মতো এই ১৪ জনেরও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চান রিফাতের বোন

মিন্নির মতো এই ১৪ জনেরও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চান রিফাতের বোন

স্কুল-কলেজেও সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন হচ্ছে!

স্কুল-কলেজেও সাপ্তাহিক ছুটি দুই দিন হচ্ছে!

সর্বশেষ

শিশুর বিকাশ বাড়বে সুষম খাদ্য আর খেলাধুলাতেই

শিশুর বিকাশ বাড়বে সুষম খাদ্য আর খেলাধুলাতেই

বরগুনায় প্রতিমা বানাতে ব্যবহার করা হয়েছে পবিত্র কালিমা খচিত বইয়ের পৃষ্ঠা

বরগুনায় প্রতিমা বানাতে ব্যবহার করা হয়েছে পবিত্র কালিমা খচিত বইয়ের পৃষ্ঠা

ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটুক্তি: জবি শিক্ষার্থী সাময়িক বহিষ্কার

ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটুক্তি: জবি শিক্ষার্থী সাময়িক বহিষ্কার

বানারীপাড়ায় দলিল উদ্দিন মাদরাসার শিক্ষক হাফেজ আনোয়ারের ইন্তেকাল

বানারীপাড়ায় দলিল উদ্দিন মাদরাসার শিক্ষক হাফেজ আনোয়ারের ইন্তেকাল

হলোনা বাংলাদেশ-ভারতের মিলনমেলা, ইছামতিতে অশ্রুসিক্ত নয়নে দেবী দূর্গাকে বিসর্জন দিল সনাতন ধর্মাবলম্বীরা

হলোনা বাংলাদেশ-ভারতের মিলনমেলা, ইছামতিতে অশ্রুসিক্ত নয়নে দেবী দূর্গাকে বিসর্জন দিল সনাতন ধর্মাবলম্বীরা

রংপুরে ৩০ সেকেন্ডে উধাও সাড়ে ১২ লাখ টাকা, গ্রেফতার

রংপুরে ৩০ সেকেন্ডে উধাও সাড়ে ১২ লাখ টাকা, গ্রেফতার

বাঘারপাড়ায় কৃতি শিক্ষার্থীদর সংবর্ধনা ও ক্রেষ্ট বিতরণ

বাঘারপাড়ায় কৃতি শিক্ষার্থীদর সংবর্ধনা ও ক্রেষ্ট বিতরণ

কোভিড-১৯ মোকাবেলায় আশাশুনির অতিদরিদ্র ১৭’শ পরিবারের মাঝে অর্থ সহায়তা

কোভিড-১৯ মোকাবেলায় আশাশুনির অতিদরিদ্র ১৭’শ পরিবারের মাঝে অর্থ সহায়তা

আশাশুনিতে চেয়ারম্যান ডালিমের বিরুদ্ধে মামলা, মুক্তির দাবীতে মানববন্ধন

আশাশুনিতে চেয়ারম্যান ডালিমের বিরুদ্ধে মামলা, মুক্তির দাবীতে মানববন্ধন

গৌরনদীতে পানিতে ডুবে স্কুল ছাত্রের মর্মান্তিক মৃত্যু

গৌরনদীতে পানিতে ডুবে স্কুল ছাত্রের মর্মান্তিক মৃত্যু

মিন্নির মতো এই ১৪ জনেরও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চান রিফাতের বোন

মিন্নির মতো এই ১৪ জনেরও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চান রিফাতের বোন

কাপড়ের মাস্ক ব্যবহারে যেসব নিয়ম মানা জরুরি

কাপড়ের মাস্ক ব্যবহারে যেসব নিয়ম মানা জরুরি

ভ্রমণ করার সময় বমি ও মাথা ঘোরা দূর করতে যা করবেন

ভ্রমণ করার সময় বমি ও মাথা ঘোরা দূর করতে যা করবেন

ফুটবল টুর্নামেন্ট: হাজিরহাট চ্যাম্পিয়ন

ফুটবল টুর্নামেন্ট: হাজিরহাট চ্যাম্পিয়ন

যে কারণে হাজী সেলিমের ছেলে কে এক বছরের কারাদন্ড

যে কারণে হাজী সেলিমের ছেলে কে এক বছরের কারাদন্ড