Feedback

যশোর, জেলার খবর

খায়রুল বাসার – একজন নিভৃতচারী নাট্যব্যাক্তিত্ব

খায়রুল বাসার – একজন নিভৃতচারী নাট্যব্যাক্তিত্ব
October 12
11:58pm
2020
Abul Hasan Tuhen
Jashore shadre, Jashore -7400:
Eye News BD App PlayStore

খায়রুল বাসার – একজন নিভৃতচারী নাট্যব্যাক্তিত্ব, গণনাট্য আন্দোলনের সন্মুখযোদ্ধা, চলচ্চিত্রপরিচালক, অভিনেতা, আবৃত্তিকার এবং সর্বোপরি একজন বীরমুক্তিযোদ্ধা। জন্ম ১৩ অক্টোবর ১৯৫০, সাতক্ষীরায়। এই প্রিয়নাট্যজনের জন্মদিনে অনন্ত শুভকামনা।

সেই স্কুলজীবন থেকেই বয়স্কাউট, দেয়াল ম্যাগাজিন এবং অভিনয়ের প্রতি আসক্ত ছিলেন তিনি। ১৯৬৫ সালে মেট্রিক পাশের পর পাড়ার বড়ভাইদের নিয়ে ‘প্রগতি সংঘ’ নামে একটা নাটকের দল গঠন করে মঞ্চে নামেন। ১৯৬৮ সালে তিনি খুলনার খালিশপুরে শ্রমিকদের নিয়ে পথনাটকের দল গঠন করেন এবং ট্রাকে করে বিভিন্ন অঞ্চলে পথনাটকের মাধ্যমে মুক্তির আন্দোলনে জড়িয়ে পড়েন। ঊনসত্তরের উত্তাল গণঅভ্যুত্থানে সক্রিয় অংশগ্রহণ করেন। ১৯৭১ সালের ৭ই মার্চ বঙ্গবন্ধুর  ঐতিহাসিক ভাষণের পর তিনি চাকরি থেকে চলে যান সাতক্ষীরায়। স্বাধীনতা সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়েন। প্রথমে ৮নং সেক্টরে বগুড়া বোচাডাঙ্গা ক্যাম্পে ট্রেনিং নেন,  তারপর চলে যান ওপারে ট্রানজিট ক্যাম্পে। প্রশিক্ষণ নেওয়ার সময় রবিন সেনগুপ্ত নামে বসিরহাটের একজন নাট্যপ্রেমিকের  সাথে তার পরিচয় ঘটে। তার মাধ্যমে খায়রুল বাসার  উৎপল দত্তের লেখা কিছু নাটকের বই পড়ার সুযোগ পান। সেখানে ট্রেনিং এর ফাঁকে শরণার্থী শিবিরে নাটকের মহড়া করেন। মুক্তাঞ্চলে ও ট্রানজিট ক্যাম্পে নাটকের মাধ্যমে মুক্তিযোদ্ধাদেরকে উদ্বীপ্ত করেন। তারপর ১৯৭১ সালের জুন/ জুলাই মাসে দূর্বার গতিতে সন্মুখ সমরে ঝাঁপিয়ে পড়েন। কখনো মুখোমুখি সংঘর্ষে কখনো গেরিলা আক্রমণে অংশগ্রহণ করেন। ৭ই ডিসেম্বর সশস্ত্র সংগ্রামের মাধ্যমে পাকআর্মির কবল থেকে সাতক্ষীরা শহর মুক্ত করেন।

১৯৭১ সালের ২৮শে ডিসেম্বর সদ্যস্বাধীন দেশে সাতক্ষীরা মহাকুমার শহরে ‘বাংলাদেশ সংসদ’ নামে সাংস্কৃতিক সংসদ গঠন করেন। ১৯৭২ সালের ২১শে ফেব্রুয়ারি ভাষাশহীদ দিবসে সাতক্ষীরায় ‘রক্ত অশ্রুপন’ নামে একটি পত্রিকা প্রকাশ এবং গণসঙ্গীতের আসর করেন তিনি। ১৯৭২ সালের ২৬শে মার্চ খুলনা নাট্য নিকেতন মঞ্চে দেশের প্রথম স্বাধীনতা দিবসে মঞ্চনাটক ‘বিপ্লবী বাংলাদেশ’ মঞ্চস্থ করেন। তিনি বলেন - সেটা ছিল মুক্ত স্বাধীন দেশের প্রথম মঞ্চনাটক। সেই নাটকটা তিনি লিখেছিলেন শরণার্থী শিবিরের ক্যাম্পে বসে। তারপর জহির রায়হানের গল্প অবলম্বনে ‘আর কত দিন’ নাটকটি মঞ্চস্থ করেন খুলনা নাট্য নিকেতন অডিটোরিয়ামে  এবং বিপুল দর্শকপ্রিয়তা পান। 

১৯৭৬ সালে জাতীয় নাট্যোৎসবে সারা বাংলাদেশ থেকে ২২টা নাটকের দল অংশ নেয়। সেখানে তার রচিত ও অভিনীত খুলনা জেলা থেকে আগত প্রগতি সংঘের ‘জীবন এখানে কোরাস গান’ নাটকটি পুরষ্কৃত হয়। সেবছরেই ঢাকায় এসে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া সাতক্ষীরার কিছু ছেলে-মেয়েকে নিয়ে একটি নাট্যগোষ্ঠী তৈরি করেন খরুল বাসার, যার নাম ‘অস্বীকার থিয়েটার’। তখন নাটকের রিহার্সাল ও মঞ্চায়ন হতো বাংলা একাডেমির তিন তলায়। সেখানে এর আগে ঢাকা থিয়েটারের ‘শকুন্তলা’ মঞ্চস্থ হয়েছিলো।

কিছুদিন পর ‘অস্বীকার নাট্যগোষ্ঠী’ ভেঙে গেলে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক মেজবাহ কামালের সাথে ‘বিবর্তন নাট্য দলে’ যোগ দেন। ‘পানকৌড়ি’, ‘পদ্মা আমার মা’ সহ বেশকিছু নাটকের রিহার্সেল করেন টিএসসিতে। মঞ্চস্থ করেন ব্রিটিশ কাউন্সিল,  মহিলা সমিতি মঞ্চ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হলে। একসময় বিবর্তন বিলুপ্ত হলে তিনি যোগ দেন ‘ঢাকা থিয়েটারে’। সেখানে  ‘কীর্তনখোলা’ এবং ‘কেরামত মঙ্গল’ নাটকে দীর্ঘদিন অভিনয় করেন। ১০ ডিসেম্বর ১৯৯১সালে সর্বশেষে তৈরি করেন ‘গণনাট্য কেন্দ্র’ এবং সেটা নিয়ে তিনি এগিয়ে যান বহুদূর। তাদের প্রথম কাজ ছিল শম্ভু মিত্রের ‘চাঁদ বণিকের পালা’। সেই অসাধারন মঞ্চায়ন দর্শকদেরকে নাড়া দিয়েছিলো বিপুলভাবে।

১৯৭৮ সালে কাজী আবু জাফর সিদ্দিকীর হাত ধরে বিটিভির সিরিজ নাটক ‘আবিষ্কার’এ অভিনয় করেন তিনি। তখনো অবশ্য বিটিভির তালিকাভুক্ত শিল্পী হননি। ১৯৮০ সালে  অডিশন দিয়ে নিয়মিত শিল্পী হিসেবে বিটিভিতে অভিনয় করেন এবং নাটক রচনা করেন। তার লেখা ছয় সাতটা  নাটক প্রচারিত হয়। কাজী নজরুল ইসলামের গল্পকে খায়রুল বাশার নাট্যরূপ দিয়েছিলেন ১৯৮৫ সালে। নাম ‘বনের পাপিয়া’, কাজী আবু জাফর সিদ্দিকী প্রযোজিত সেই নাটকে অভিনয় করেছিলেন - লিপি খন্দকার, আল মামুন,  ফাল্গুনী আহমেদ প্রমুখ শিল্পীবৃন্দ। নাটকটি দর্শকমহলে ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়।

খায়রুল বাসারের নাট্যরূপ দেয়া, লাকি ইনাম এবং সালেক খান অভিনীত ‘কালো আকাশ’ নাটকটিও দর্শকদের মাঝে বিপুল আলোড়ন তোলে। তার লেখা ‘হঠাৎ হাওয়ায়’ নাটকটাও উল্লেখযগ্য। নাট্যকার হিসেবে তিনি বেশ সুনাম অর্জন করেন। একটি মজার গল্প তার খুব মনে পড়ে। কাজী আবু জাফর সিদ্দিকী তাকে ঘরে রেখে বাইরে থেকে আটকে দিতেন। কারণ বিকেল বেলা নাটকের রিহার্সেল। তার আগেই তাকে পান্ডুলিপির কাজ শেষ করতে হতো। 

পাশাপাশি তিনি চলচ্চিত্রেও কাজ শুরু করেন। ১৯৮৬ সালে তাঁর পরিচালিত এবং অভিনীত ‘উল্টোরথ’ নামে একটি বাংলা পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র মুক্তি পায়। ছবির পেছনে তার অনেক শ্রম নিষ্ঠা সততা কাজ করেছে কিন্তু ছকেবাঁধা গল্পের বাইরে বলে ছবিটা তেমন সাড়া পায়নি। ১৯৮৯ সলে হুমায়ূন আহমেদের গল্প অবলম্বনে মুস্তাফিজুর রহমান পরিচালিত বিটিভি  নির্মিত প্রথম চলচ্চিত্র ‘শঙ্খনীল কারাগার’এ  কাজ করেন তিনি।

১৯৯৪ সালে প্যাকেজ নাটকের শুরুর দিকে তিনি ‘সমৃদ্ধ প্রহর’ ও ‘প্রাকৃতজন’ তৈরী করে সুসমালোচিত হন। তরপর তিনি ‘পলাতকা’, ‘দুধ পোড়া ঘ্রান’ ‘হৃদয়ে বসতি’, ‘অচেনা অরণ্য’, ‘ছাকনি’, ‘গন্তব্য সুন্দরবন’, ‘গাজনের বাজনা বাজে’, ‘চন্দ্রবিন্দু, সহ আরো অনেক সুন্দর সুন্দর প্যাকেজ নাটক উপহার দেন আমাদেরকে। নাটকগুলো সুধীমহলে ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়।

তারপর কিছুদিন প্রবাস জীবন কাটিয়ে মাটির টানে দেশে ফিরেছেন এবং স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন। গণনাট্য কেন্দ্রের মঞ্চনাটক আজো সফলভাবে চলমান। ‘ঈমান আলীর স্মৃতি স্টেশন’ নামে সর্বশেষ  নাটকটির হাজারতম প্রথম প্রদর্শনী হয়েছিল মার্চ ২০২০ সালে।

তিনি মনে করেন তার সবচেয়ে ভালো কাজ গণনাটক। যা নিয়ে তিনি তেঁতুলিয়া থেকে শুরু করে টেকনাফ পর্যন্ত সাধারণ মানুষের খুব কাছে গেছেন। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে বিভিন্ন গ্রামে গ্রামে নিয়ে গিয়ে খুব সাধারন মানুষকে নিয়ে তিনি নাটক করেছেন। কৃষক, মজুর ও শ্রমিকদেরকে নিয়ে তিন পথনাটক করেছেন এবং তাদের অকৃত্রিম ভালোবাসা পেয়েছেন। শুধু তাই নয়, সেইসব প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষদেরকে তিনি সমবেত করেছেন ঢাকায়, রবীন্দ্র সরোবরে, নাটকের মঞ্চে। তিনি মনে করেন - নাটকের ভূবনে এটাই তার সবচেয়ে বড় সফলতা এবং সবচেয়ে প্রিয় কাজ। তিনি নাটককে ছড়িয়ে দিয়েছেন সাধারণ মানুষের মাঝে। ‘মুক্তিযুদ্ধ এবং গ্রামবাংলায় গণনাটক’ নামে তার অভিজ্ঞতাকে তিনি লিপিবদ্ধ করেছেন তার বইতে।

এই প্রচারবিমুখ মানুষটা সারাজীবন সৃজনশীল কাজ করেছেন আমাদের জন্য। এই প্রিয় নাট্যব্যাক্তিত্ব, গণনাট্যআন্দোলনের অগ্রগামী সৈনিক এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা খায়রুল বাসারের সুস্থ্য সুন্দর ও নিরাপদ জীবন কামনা করি।

All News Report

Add Rating:

0

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

ফ্রান্সের আরও ওয়েবসাইট৩৫টি হ্যাক করল Royal Battler BD এবং Bangladesh Civilian Force ।

ফ্রান্সের আরও ওয়েবসাইট৩৫টি হ্যাক করল Royal Battler BD এবং Bangladesh Civilian Force ।

কিশোরগঞ্জে জুয়ার আসরে র‌্যাবের হানা, আটক ১০

কিশোরগঞ্জে জুয়ার আসরে র‌্যাবের হানা, আটক ১০

ধর্ষণের কারন ও উৎস্য মোবাইলে পর্ণো ছবি ও যৌন উত্তেজক ঔষধ

ধর্ষণের কারন ও উৎস্য মোবাইলে পর্ণো ছবি ও যৌন উত্তেজক ঔষধ

‘হু আর ইউ ' অ্যাম আই এ ক্রিমিনাল? র‍্যাবকে মদ্যপ হাজীপুত্র

‘হু আর ইউ ' অ্যাম আই এ ক্রিমিনাল? র‍্যাবকে মদ্যপ হাজীপুত্র

দুই বিদেশি কুকুর ও ১০ দেহরক্ষী নিয়ে এলাকায় চক্কর দিতেন ওয়ার্ড কাউন্সিলর ইরফান!

দুই বিদেশি কুকুর ও ১০ দেহরক্ষী নিয়ে এলাকায় চক্কর দিতেন ওয়ার্ড কাউন্সিলর ইরফান!

আবারো দুঃসংবাদ দিলো আবহওয়া অধিদপ্তর

আবারো দুঃসংবাদ দিলো আবহওয়া অধিদপ্তর

ক্রেডিট ফি কমানোর দাবি হাবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের

ক্রেডিট ফি কমানোর দাবি হাবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের

সুদের টাকা দিতে ব্যর্থ হওয়ায় স্ত্রীকে ঋণদাতার হাতে তুলে দিলেন স্বামী

সুদের টাকা দিতে ব্যর্থ হওয়ায় স্ত্রীকে ঋণদাতার হাতে তুলে দিলেন স্বামী

রিফাত হত্যা: অপ্রাপ্তবয়স্ক ৬ আসামিকে আদালতে হাজির করেছে পুলিশ

রিফাত হত্যা: অপ্রাপ্তবয়স্ক ৬ আসামিকে আদালতে হাজির করেছে পুলিশ

Royal Battler BD এবং Bangladesh Civilian Force এর একত্র আক্রমণ এ ফ্রান্সের আরো ৩০ ওয়েব সাইট দখল

Royal Battler BD এবং Bangladesh Civilian Force এর একত্র আক্রমণ এ ফ্রান্সের আরো ৩০ ওয়েব সাইট দখল

পাকুন্দিয়া পল্লী দারিদ্র্য বিমোচন ফাউন্ডেশনে ঋন জালিয়াতি ও দুর্নীতি

পাকুন্দিয়া পল্লী দারিদ্র্য বিমোচন ফাউন্ডেশনে ঋন জালিয়াতি ও দুর্নীতি

বিশ্ব দরবারে উজ্জ্বল বাংলাদেশ

বিশ্ব দরবারে উজ্জ্বল বাংলাদেশ

রাজীবপুরে ইয়াবাসহ ৩ মাদক কারবারি আটক!

রাজীবপুরে ইয়াবাসহ ৩ মাদক কারবারি আটক!

বড় ভাইয়ের পরিবর্তে বিয়ে করতে এলো ছোট ভাই, ৬০ হাজার টাকা জরিমানা

বড় ভাইয়ের পরিবর্তে বিয়ে করতে এলো ছোট ভাই, ৬০ হাজার টাকা জরিমানা

‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়’ সিনেমার সেই ছোট্ট সরদার বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন

‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়’ সিনেমার সেই ছোট্ট সরদার বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন

সর্বশেষ

৪টি লক্ষণে বুঝবেন শিশু এডিনয়েড রোগে আক্রান্ত, কী করবেন

৪টি লক্ষণে বুঝবেন শিশু এডিনয়েড রোগে আক্রান্ত, কী করবেন

রংপুরে জাতীয়তাবাদী যুবদলের ৪২তম প্রতিষ্ঠা বাষির্কী পালিত

রংপুরে জাতীয়তাবাদী যুবদলের ৪২তম প্রতিষ্ঠা বাষির্কী পালিত

মেয়েদের পিরিয়ডের সময় যেসব খাবার বিরূপ প্রভাব ফেলে

মেয়েদের পিরিয়ডের সময় যেসব খাবার বিরূপ প্রভাব ফেলে

জেনে নিন সকালে চা-কফি পানের সঠিক সময়

জেনে নিন সকালে চা-কফি পানের সঠিক সময়

প্রয়াত আ’লীগ নেতা সাইফুল ইসলাম মাস্টারের ছেলের জানাজায় এমপি আয়েন উদ্দিন

প্রয়াত আ’লীগ নেতা সাইফুল ইসলাম মাস্টারের ছেলের জানাজায় এমপি আয়েন উদ্দিন

ভয়ে ফরাসি নাগরিকদের সতর্ক থাকার আহবান ফ্রান্সের

ভয়ে ফরাসি নাগরিকদের সতর্ক থাকার আহবান ফ্রান্সের

শহীদ রাসেল দিবসে শ্রীমঙ্গলে ওয়ার্কার্স পার্টির আলোচনাসভা আজ

শহীদ রাসেল দিবসে শ্রীমঙ্গলে ওয়ার্কার্স পার্টির আলোচনাসভা আজ

দক্ষতা উন্নয়নে মুক্তপাঠ

দক্ষতা উন্নয়নে মুক্তপাঠ

যে সবজি ত্বকের বার্ধক্যের ছাপ দূর করবে

যে সবজি ত্বকের বার্ধক্যের ছাপ দূর করবে

বাংলাদেশিদের দেড় ঘণ্টার হামলায় ধরাশয়ী ফ্রান্সের সেই ওয়েসাইট

বাংলাদেশিদের দেড় ঘণ্টার হামলায় ধরাশয়ী ফ্রান্সের সেই ওয়েসাইট

মাইক্রোবায়োলজি সমাচার

মাইক্রোবায়োলজি সমাচার

রাজশাহীতে পিআইসি‘র কর্মকর্তার সাথে কাউন্সিলর আনারের মত বিনিময়

রাজশাহীতে পিআইসি‘র কর্মকর্তার সাথে কাউন্সিলর আনারের মত বিনিময়

মেমো চাওয়ায় রোগীর স্বজনকে মারলো ক্লিনিক মালিক

মেমো চাওয়ায় রোগীর স্বজনকে মারলো ক্লিনিক মালিক

সৌমিত্র চ্যাটার্জির অবস্থা আরো সঙ্কটজনক: কাজ করছে না স্নায়ু, বিকল হয়ে আসছে কিডনিও

সৌমিত্র চ্যাটার্জির অবস্থা আরো সঙ্কটজনক: কাজ করছে না স্নায়ু, বিকল হয়ে আসছে কিডনিও

সুদের টাকা দিতে ব্যর্থ হওয়ায় স্ত্রীকে ঋণদাতার হাতে তুলে দিলেন স্বামী

সুদের টাকা দিতে ব্যর্থ হওয়ায় স্ত্রীকে ঋণদাতার হাতে তুলে দিলেন স্বামী