Feedback

অপরাধ, আরও...

বিবেকের দংশন (২য় পার্ট)

বিবেকের দংশন (২য় পার্ট)
October 12
11:29am
2020
MOHAMMAD ABDULLAH
Katakhali (old Motihar), Rajshahi:
Eye News BD App PlayStore

“বিবেকের দংশন” এর ১ম পার্ট গত ০৮/১০/২০২০ তারিখ আইনিউজে প্রকাশিত হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় ২য় পার্ট :

এশার নামাজ পড়ে সামান্য খেয়ে ভাবনার জগতে প্রবেশ, দেখি তারা সেখানে সক্রিয়। তারা আমাকে জানান দেয় ঘটনার প্রতিবাদে আজকে ঘুমেরা অবরোধ ডেকেছে। তাই ঘুমের চিন্তা বাদ দিয়ে নির্ঘুম রাত্রী যাপনের প্রস্তুতি গ্রহণ করো। যথা ভাবনা তথা কাজ, ভুলে যাওয়ার চেষ্টা করছি, পারছিনা।

মনে হচ্ছে আমার আপন বোন হিংস্র ক্ষুধার্ত হায়েনা দলের কবলে পড়েছে। বীভৎস কায়দায় ছিড়েছুড়ে খেতে শুরু করেছে তাকে। আর বাঁচার তাগিদে বারবার হাতছানি দিয়ে আমাকে ডাকছে। নিরুপায় আমি নিজের জীবন বাঁচাতে নিরাপদ দূরত্বে দাঁড়িয়ে সাধ্যাতীত চিৎকার করেছি, কিন্তু কেউ আসে নাই। “ভাই বাঁচা, ভাই আমাকে বাঁচা” গগন বিদারী বোনের সেই আর্তনাদ যেন গরম উত্তপ্ত শিশা আমার কর্ণকুহর দিয়ে হৃদয়ে প্রবেশ করছে। আর তার দহনে আমার হৃদয় চৌচির হয়ে রক্তক্ষরণ শুরু হয়। আর সঞ্চালিত সেই রক্ত শোধনযন্ত্রে শোধিত হয়ে লাল বর্ণ সাদা হয়ে চোখ দিয়ে গড়িয়ে পড়ছে।

সে যে আমার আস্থার, নির্ভরতার এবং হৃদয় উজাড় করা ভালোবাসার একমাত্র বড় বোন, আর আমি তার আদরের ছোট ভাই। দোকানপাট বাজার হাটে তার একাধিক জিনিস চায়। তার হউক বা না হউক আমার হতেই হবে। আবার আমার ভাগেরটা যখন খেয়ে ফেলি, কিংবা নষ্ট করে ফেলি কিংবা হারিয়ে ফেলি তখন তার ভাগেরটা আমাকে দিতে একটুও কার্পণ্য করেনি। ছোট থাকাতে একসাথে গোল্লা ছুট, কানামাছি, লুকোচুরি, লুডু, পুতুল কত রকম খেলা খেলেছি। খেলার ছলে কিংবা দুষ্টামির বলে তাকে কেউ কিছু বললে তার গোষ্ঠী উদ্ধার করে ছেড়েছি। একটা মার দিলে দশটা মেরেছি, না পারলে তার হাতে কামড় বসিয়ে তাকে উচিত শিক্ষা দিয়েছি। সময় গড়িয়ে যত বড় হয়েছি, একে অন্যের প্রতি আদর, স্নেহ, ভালোবাসা দায়িত্ব কর্তব্য ততই বৃদ্ধি পেয়েছে। বাবা-মা’র কাছে কোন কিছুর বায়না ধরলে অনেক সময় তারা বকাবকি করেছে, ফলে ভাত খায়নি অনেকক্ষণ বাড়ি ফিরিনি। সেও খায়নি যখন ফিরেছি, লক্ষ্মিসোনা ভাই আমার, রাগ করে না বলে আদর সোহাগ করে আমাকে ভাত খাওয়ায়েছে। তার বই এর ভাজে রাখা কিংবা মাটির ব্যাংক ভেঙ্গে জমানো টাকা আমাকে দিয়ে আমার হাসি খরিদ করছে। তিন সাড়ে তিন বছর হলো তার বিয়ে হয়েছে, ফুটফুটে একটা বাবুও হয়েছে। বিয়ের সময় আমাদের ছেড়ে যেতে তার সে কী কান্না? আমরা একে অপরকে জড়িয়ে ধরে অনেক কেঁদেছি। আহ! আমার প্রতি ছিলো তার আদর স্নেহ মাখা একরাশ ভালোবাসা। যে বোন আমার এত কিছু, মায়াভরা তার মুখ, আদর স্নেহ, ভালোবাসা দিয়ে গড়া তার দেহ, যত্নে আগলে রাখা তার সম্ভ্রম, কেড়ে নিলো তার সবকিছু, ছিড়ে খেলো কিছু ঐ নরপশু।

আকাশ বাতাস প্রকম্পিত করে করতে চাই চিৎকার, পারিনা, পারিও না জানাতে তাদের ধিক্কার। পরম ভালোলাগা আর দরদ মাখা ভালোবাসার এমন বোনের এমন করুণ নির্মম, নিষ্ঠুর ও জঘন্য পরিণতি দেখে নিজের বাঁচার তাগিদ হারিয়ে ফেলি। চোখে আসে জল, অসাড় হয় দেহ, মনে থাকেনা কোন বল। বেঁচে ফিরি যখন দেখি সে আমার কল্পিত বোন, বাস্তবে নহে, নহে মোর আপন।

ঘুম নেই আগেই বলেছি, ঘটনার প্রতিবাদে ঘুমের রাজ্যে অবরোধ চলছে। স্বপ্নের রাজপথে দীপ্ত শ্লোগান, "ধর্ষক নিপাত যাক, নারীর সম্ভ্রম রক্ষা পাক।" এপাশ ফিরি ওপাশ ফিরি কখনো উঠি কখনো বসি, আবার কখনো মেঝেতে পায়চারি করতে থাকি। মানুষ কীভাবে এত নিচে নামতে পারে? হাজারো অস্থিরতায় ছটপট করতে থাকি। আমার দেয়া নিরাপত্তা আর নির্ভরতার আদর মাখা চাদর গায়ে দিয়ে পাশেই শায়িত জীবন সঙ্গিনী, সারাদিনের ধকল কাটাতে ঘুমিয়ে গেছে, দেখি তার প্রেম আর ভালোবাসা মাখা ঘুমন্ত মুখখানি। পাশেই বিভোর ঘুমে মগ্ন আমাদের প্রেমের ফসল, বছর পূর্ণ হয়নি তার, বড্ড দুষ্ট আর মিষ্টি হয়েছে। নাম রেখেছি “হুরুম মাকছুরা খিয়াম রোদসী” অর্থাৎ জান্নাতের তাবুতে অপেক্ষমান আয়তনয়তা পবিত্র সাথী, যাদের পূর্বে কখনো কোন জ্বিন ও মানুষ স্পর্শ করেনি। সুরা রহমান-৭২ ও ৭৪। “রোদসী” অর্থ  আকাশ, স্বর্গ, মর্ত্য, পৃথিবী যখন হবে ষোড়শী, জ্ঞান গুনে হবে অনন্যা পূর্ণিমার চাঁদের মত রূপ লাবণ্য মাখা, হবে সে এক রূপসী।

বর্তমান বাস্তবতার প্রেক্ষাপটে আল্লাহ না করুক, আমার ভালোবাসার তন্বী আর তার নাড়ি ছেড়া আমাদের একমাত্র তনয়া এমন নরপিশাচদের কুদৃষ্টিতে পড়ুক। কল্পিত বোনকে ঘিরেই এই অবস্থা! সত্যি সত্যি যদি আমার জীবনে এমন ঘটনা আসে, উফ! ভাবতেই মরে যায়, বেঁচে যায, যখন দেখি ওটা আমার ভাবনা আমার কল্পনা।

আবেগ আর দুশ্চিন্তা ঝেড়ে ফেলে পড়ার টেবিলে গিয়ে বসি। যে কোন ঘটনার প্রতিবাদ নিন্দা জানানোর প্রধান হাতিয়ার হচ্ছে কলম। এটি ছোট্ট আর সহজলোভ্য হলেও এর গুরুত্ব আরশে আজিম পর্যন্ত। তাইতো আল্লাহ তায়ালা পবিত্র কুরআন মজিদে এর নামে একটি সুরা (ক্বলাম)দিয়েই ক্ষান্ত হননি এ সুরার শুরুতেই তার শপথ করেছেন। “নুন ওয়াল ক্বলামি ওমা ইয়াসতুরুন” অর্থাৎ নুন- শপথ কলমের এবং উহার যাহা তাহারা লিপিবদ্ধ করে।(সুরা ক্বলাম-১)। কলমের বিচরণ ভূমি সাদা পাতা। বিছিয়ে দিলাম তাকে বললাম লিখতে। সে বলে কি লিখবো?

বললাম, মহান রবের দেওয়া স্বর্গ থেকে আনা প্রেম আর ভালোবাসা যে নববধূ প্রিয় মানুষটির জন্য দীর্ঘদিন ধরে সঞ্চিত আর যত্নে আগলে রেখেছিলো তা মানুষরূপী কিছু নরপশুর দল কেড়ে নিয়েছে, তার বিরুদ্ধে লেখ। সে বললো, আমি পারবো না। প্রচণ্ড রাগে ছুড়ে ফেললাম তাকে। বললাম সময়ে অসময়ে লেখার জন্য ফুটর ফুটর করে এখন বলছো পারবো না! ধমক দিলাম তাকে। নিজের মুরদ নেই, আমাকে বলছে লিখতে, জবাব দেয় আমাকে।

ঘুম নেই অস্থিরতা চঞ্চলতা উদ্বিগ্নতা আর বিবেকের দংশন আমাকে কুঁড়ে কুঁড়ে খাচ্ছে। এগিয়ে গেলাম তার কাছে, হাত ধরে নিয়ে আসলাম, হৃদয়ের দরজাটা খুলে দিয়ে তাকে নিয়ে প্রবেশ করলাম সেখানে। প্রচণ্ড ঝড় বইছে সেথায়। এক কোণে রক্ষিত বিবস্ত্র বোনের খণ্ডিত সেই ভিডিওটি তাকে দেখালাম। কাঁপতে শুরু করলো প্রতিবাদে ফেটে পড়লো। শুরু হলো তার প্রতিবাদের পথ চলা, শেষ করে ফেললো খাতা, দেখি জাগ্রত হয়ে গেছে উষা। রচিত হলো বিবেকের দংশন ও তার পটভূমি।

পরিশেষে ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায়। দোষীদের উপযুক্ত বিচার দাবী করছি। আসুন আমরা সবাই মিলে এক হয়ে এ নরপিশাচদের প্রতিহত করি, সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তুলি। আর যারা ভাবছেন এ ঘটনায় আমার কোন দায় দায়িত্ব নেই এবং এ ঘটনার আমি ও আমার কেউ ভুক্তভুগি নই, কাজেই এবিষয়ে আমার কিছু না বলায় শ্রেয়। তাদের উদ্দেশ্যে একটি কথা বলে শেষ করবো, আর তা হলো আপনারা জাহাজের উপর তলার বাসিন্দা, দেখছেন নিচ তলার মানুষ জাহাজ ফুটো করছে প্রতিবাদ করছেন না। বলবো আপনারা বোকার স্বর্গে বাসই করছেন না ঘুমও পাড়ছেন, পাড়ুন!

 

রাজশাহী, ০৫ অক্টোবর ২০২০

মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ, রা.বি স্কুল

বি.দ্র-৩য় পার্ট ছন্দের তালে “বিবেকের দংশন” কবিতায় প্রকাশ করা হবে।

All News Report

Add Rating:

0

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

স্পিডবোট ডুবে নিখোঁজ, কনস্টেবলসহ ৫ জনের মরদেহ উদ্ধার

স্পিডবোট ডুবে নিখোঁজ, কনস্টেবলসহ ৫ জনের মরদেহ উদ্ধার

ইতালি সিজনাল ভিসার সচেতনার দিকসমূহ, নইলে আপনিও হতে পারেন প্রতারণার শিকার: পর্ব-০৫

ইতালি সিজনাল ভিসার সচেতনার দিকসমূহ, নইলে আপনিও হতে পারেন প্রতারণার শিকার: পর্ব-০৫

মুরগির সাথে যৌনতা, ধরা খেয়ে সাজা খাটছেন যুবক!

মুরগির সাথে যৌনতা, ধরা খেয়ে সাজা খাটছেন যুবক!

প্রধান শিক্ষকদের বকেয়া টাইমস্কেল প্রদান ও সহকারী শিক্ষকদের ১০ম গ্রেডে উন্নীত সহ ১০ দফা দাবীতে ঢাকায় সংবাদ সম্মেলন।

প্রধান শিক্ষকদের বকেয়া টাইমস্কেল প্রদান ও সহকারী শিক্ষকদের ১০ম গ্রেডে উন্নীত সহ ১০ দফা দাবীতে ঢাকায় সংবাদ সম্মেলন।

আলোচনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কন্যা পুতুল

আলোচনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কন্যা পুতুল

বগুড়ায় লম্পটকে কুপিয়ে ধর্ষণ থেকে রক্ষা পেলেন গৃহবধূ

বগুড়ায় লম্পটকে কুপিয়ে ধর্ষণ থেকে রক্ষা পেলেন গৃহবধূ

ফ্রান্সে মহানবীকে নিয়ে ব্যঙ্গ কার্টুন প্রদর্শন, নবীপ্রেমিকদের ফরাসি পণ্য বর্জনের ডাক

ফ্রান্সে মহানবীকে নিয়ে ব্যঙ্গ কার্টুন প্রদর্শন, নবীপ্রেমিকদের ফরাসি পণ্য বর্জনের ডাক

টাকাভর্তি ব্যাগ নিয়ে ঘুরছে আওয়ামী লীগ নেতার ছেলে!

টাকাভর্তি ব্যাগ নিয়ে ঘুরছে আওয়ামী লীগ নেতার ছেলে!

জয়পুরহাটে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা

জয়পুরহাটে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা

দামি ওষুধ-তেল বা চর্বি লোভে জ্যান্ত ডলফিন কেটে টুকছে গ্রামবাসী

দামি ওষুধ-তেল বা চর্বি লোভে জ্যান্ত ডলফিন কেটে টুকছে গ্রামবাসী

জামালপুরে ট্রেনে কাটাপড়ে ভাঙারি ব্যবসায়ীর মৃত্যু

জামালপুরে ট্রেনে কাটাপড়ে ভাঙারি ব্যবসায়ীর মৃত্যু

মারা গেলেন ব্যারিস্টার রফিকুল হক

মারা গেলেন ব্যারিস্টার রফিকুল হক

করোনার দ্বিতীয় ধাক্কা, আবারও পূর্ণ হতে যাচ্ছে হাসপাতাল!

করোনার দ্বিতীয় ধাক্কা, আবারও পূর্ণ হতে যাচ্ছে হাসপাতাল!

পী‌রের আস্তানায় খাদেমের মে‌য়ের রহস্যজনক মৃত্যু

পী‌রের আস্তানায় খাদেমের মে‌য়ের রহস্যজনক মৃত্যু

ভৈরবে দুই বিদেশি আটক

ভৈরবে দুই বিদেশি আটক

সর্বশেষ

ট্রাম্প ভোট দেয়ার সময় পাশে ছিলেন না মেলানিয়া

ট্রাম্প ভোট দেয়ার সময় পাশে ছিলেন না মেলানিয়া

বিডিবিএল ভবনের আগুন নিয়ন্ত্রণে

বিডিবিএল ভবনের আগুন নিয়ন্ত্রণে

'আসসালামু আলাইকুম-আল্লাহ হাফেজ' ভুল ব্যাখ্যার অভিযোগে ঢাবির অধ্যাপক জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা

'আসসালামু আলাইকুম-আল্লাহ হাফেজ' ভুল ব্যাখ্যার অভিযোগে ঢাবির অধ্যাপক জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা

ধর্ষনের শাস্তি মৃত্যুদন্ড আইন নির্ধারণ জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে এনডিএফ'র সংবাদ সম্মেলন

ধর্ষনের শাস্তি মৃত্যুদন্ড আইন নির্ধারণ জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে এনডিএফ'র সংবাদ সম্মেলন

অচল ৯টি বিমান বিক্রি করবে সিভিল অ্যাভিয়েশন

অচল ৯টি বিমান বিক্রি করবে সিভিল অ্যাভিয়েশন

বে-নামাজির শাস্তি

বে-নামাজির শাস্তি

মুহাম্মদ সা.কে অবমাননা করে বিশ্বমুসলিমের কলিজায় ছুরিকাঘাত করেছে ফ্রান্স’-হেফাজত মহাসচিব

মুহাম্মদ সা.কে অবমাননা করে বিশ্বমুসলিমের কলিজায় ছুরিকাঘাত করেছে ফ্রান্স’-হেফাজত মহাসচিব

আজ নবমী, মণ্ডপে মণ্ডপে বেজে চলেছে বিদায়ের সুর

আজ নবমী, মণ্ডপে মণ্ডপে বেজে চলেছে বিদায়ের সুর

মেঘের আড়ালে উজ্জ্বল তারকা "রাজকুমার জয়"

মেঘের আড়ালে উজ্জ্বল তারকা "রাজকুমার জয়"

পাথরঘাটায় পুকুরে কীটনাশক দিয়ে মাছ নিধনের অভিযোগ

পাথরঘাটায় পুকুরে কীটনাশক দিয়ে মাছ নিধনের অভিযোগ

উত্তরণের কার্যক্রম পরিদর্শন করলেন এনজিও বিষয়ক ব্যুরোর মহাপরিচালক

উত্তরণের কার্যক্রম পরিদর্শন করলেন এনজিও বিষয়ক ব্যুরোর মহাপরিচালক

ফ্রান্সে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড

ফ্রান্সে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড

চলন্ত পাথরের রহস্য উন্মোচন হলো শত বছর পর

চলন্ত পাথরের রহস্য উন্মোচন হলো শত বছর পর

চুরির অপবাদে এক কিশোরকে বেধরক মার

চুরির অপবাদে এক কিশোরকে বেধরক মার

প্রেমিকার লাশ ফেলে পালানোর সময় প্রেমিক আটক

প্রেমিকার লাশ ফেলে পালানোর সময় প্রেমিক আটক