Feedback

জাতীয়

ধর্ষন এবং রাজনৈতিক দায়বদ্ধতা

ধর্ষন এবং রাজনৈতিক দায়বদ্ধতা
October 07
09:21pm
2020
Shah alam Talukdar
Sylhet, Sylhet:
Eye News BD App PlayStore

গত কয়েক মাসে মহামারীর মতো যেভাবে ধর্ষনের খবর বৃদ্ধি পেয়েছে তা যে সব রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় হয়েছে তা কিন্তু নয়,কিন্তু এর বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই পাওয়া গেছে ক্ষমতার অপব্যবহার। এর প্রধান কারণ হচ্ছে বিচারহীনতা অথবা ক্ষমতার দাপট।এটা এখন অনেক ক্ষেত্রে ছোয়াচে রোগের মতো হয়ে যাচ্ছে।দেশে ধর্ষন এতো বেশি হচ্ছে যে,যার কাছেই অতিরিক্ত ক্ষমতা রয়েছে এবং সাথে রয়েছে বিষাক্ত মানসিকতা,সে ভাবছে,আমার উপর কথা বলবে এমন সাহস কার আছে,অনেক সরকারি কর্মকর্তা এ বিষয় নিয়ে কথা বলতে ভয় পান কারণ প্রায় সব জায়গাতেই স্থানীয় প্রভাব বিস্তারকারী কিছু মানুষ রয়েছেন,যাদেরকে ডিঙ্গিয়ে কিছু করা সম্ভব হয়ে উঠে না।

ধর্ষন কেন হঠাৎ এতো বেড়ে গেলো?এই প্রশ্ন অনেকের মাঝেই ঘুরপাক খায় হয়তো।কিছু কিছু সময় মানুষের মন থেকে যখন শাস্তির ভয় এক্কেবারে উঠে যায় তখন সে আর আগ- পিছ চিন্তা করে না।বিশেষ করে যদি সে সরকার দলের হয় এবং এর আগেও বিভিন্ন অপকর্মে জড়িত থাকা সত্ত্বেও নেতার প্রিয়জন হওয়ায় ছাড় পেয়ে যায়,তখন আর সে কি ধরনের অপরাধ করছে তা নিয়ে বিশেষ মাথা ঘামানো প্রয়োজন মনে করে না।কারণ উপরে সুরক্ষা ত রয়েছেই।তবে সবসময় যে এটাই কারণ তা কিন্তু নয়।মানসিক বিকারগস্ত কিছু মানুষও এধরণের অপকর্ম ঘটায়,যারা নারীকে কেবল ভোগের বস্তু ভাবে।

সম্প্রতি সারাদেশে যেসকল ঘটনা ঘটছে তার মধ্যে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই স্থানীয় প্রভাববিস্তারকারীর আস্কারা পেয়েই অপকর্ম ঘটাতে সুবিধা হয়েছে এই সব মানুষ রুপি জানোয়ারদের।সিলেটের এমসি কলেজ হোস্টেলে যে ঘটনা ঘটেছে তার পেছনে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ ভাবে গ্রুপিং রাজনীতি ছিলো অন্যতম কারণ।দীর্ঘদিন থেকে এইসব এলাকায় অপরাধ সংঘটিত হয়ে আসছে এবং এইসকল অপরাধ প্রবণতা স্থানীয় রাজনীতিবীদদের অজানা নয়,কিন্তু নিজ দলের কর্মী হওয়ায় স্বভাবতই সবাই চুপ ছিলেন।

যেকোনো অপরাধ তো আর একদিনে সংঘটিত হয়না,পর্যায়ক্রমে তা বৃদ্ধি পায়।অন্যদিকে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে গৃহবধু নির্যাতনের প্রধান আসামি যে একজন  সিএনজি চালক ছিলো কিন্তু হঠাৎ করেই সরকার দলের ছত্রছায়ায় এসে নিজ এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব গড়ে তুলে,যার প্রমাণ হচ্ছে একমাস পার হওয়ার পরও নির্যাতিতা প্রতিবাদ করতে যায়নি।প্রশ্ন উঠে স্থানীয় প্রশাসনকে নিয়েও,তারা এতোদিন কি করছিলেন?যেসব ঘটনা সামনে এসেছে সেগুলো নিয়েই আমাদের আলোচনা কিন্তু যেসকল ঘটনা এখনো আলোর মুখ দেখেনি সেই সংখ্যা কি নিতান্ত কম।এটা ঠিক যে একজন ব্যাক্তির অপরাধের দায় পুরোপুরি তার সংগঠন কে দেওয়া যায়না আবার এটাও ঠিক যে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করলেই সেই দায় এড়ানো যায়না।রাজনীতিকে ক্যাডার নির্ভর না করে বরং সুস্থ ধারার রাজনীতি থাকলে প্রশ্রয় পাবে না কোন ধর্ষক।এটাই প্রত্যাশা।


(কবি এবং মানবাধিকার কর্মী)

All News Report

Add Rating:

0

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

বিদেশ গমনে ইচ্ছুক সবাইকে নিতে হবে ই-পাসপোর্টঃ বন্ধ হচ্ছে এমআরপি (MRP) কার্যক্রম

বিদেশ গমনে ইচ্ছুক সবাইকে নিতে হবে ই-পাসপোর্টঃ বন্ধ হচ্ছে এমআরপি (MRP) কার্যক্রম

শিক্ষামন্ত্রী বরাবর খোলা চিঠি

শিক্ষামন্ত্রী বরাবর খোলা চিঠি

নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধর: ভিডিও ভাইরাল সেলিমের ছেলের বিরুদ্ধে মামলা

নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধর: ভিডিও ভাইরাল সেলিমের ছেলের বিরুদ্ধে মামলা

ফ্রান্সে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড

ফ্রান্সে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড

প্রেমিকার লাশ ফেলে পালানোর সময় প্রেমিক আটক

প্রেমিকার লাশ ফেলে পালানোর সময় প্রেমিক আটক

ফ্রান্সে নবীকে নিয়ে কটুক্তি, যা বললেন আজহারী

ফ্রান্সে নবীকে নিয়ে কটুক্তি, যা বললেন আজহারী

জেনে নিন, দালাল ছাড়াই পাসপোর্ট করার সহজ উপায় !

জেনে নিন, দালাল ছাড়াই পাসপোর্ট করার সহজ উপায় !

হাজী সেলিমের ছেলে ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. ইরফান সেলিমের এক বছরের কারাদণ্ড

হাজী সেলিমের ছেলে ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. ইরফান সেলিমের এক বছরের কারাদণ্ড

হযরত মোহাম্মদ (সা.) অবমাননা: ফ্রান্সের ওয়েবসাইট হ্যাক করল বাংলাদেশি হ্যাকারর

হযরত মোহাম্মদ (সা.) অবমাননা: ফ্রান্সের ওয়েবসাইট হ্যাক করল বাংলাদেশি হ্যাকারর

কিশোরগঞ্জে অগ্নিকান্ডে দগ্ধ ৭ জন বার্ন ইউনিটে ভর্তি

কিশোরগঞ্জে অগ্নিকান্ডে দগ্ধ ৭ জন বার্ন ইউনিটে ভর্তি

মিটার ১০হাজার, খুঁটি ৩০হাজার: টাকা না দেওয়ায় গৃহবধূ লাঞ্ছিত

মিটার ১০হাজার, খুঁটি ৩০হাজার: টাকা না দেওয়ায় গৃহবধূ লাঞ্ছিত

ম্যাখোঁর মানসিক চিকিৎসা দরকার, পাল্টা জবাব ফ্রান্সের

ম্যাখোঁর মানসিক চিকিৎসা দরকার, পাল্টা জবাব ফ্রান্সের

৩ বছরে স্বর্ণের হরফে পবিত্র কুরআন লিখলেন ৩৩ বছরের এই নারী!

৩ বছরে স্বর্ণের হরফে পবিত্র কুরআন লিখলেন ৩৩ বছরের এই নারী!

এসআই আকবর কে পালাতে সহায়তাকারী কে কে  আজ জানা যাবে

এসআই আকবর কে পালাতে সহায়তাকারী কে কে আজ জানা যাবে

১লা নভেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে মাধ্যমিক শ্রেণির সিলেবাস বাস্তবায়ন কার্যক্রম

১লা নভেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে মাধ্যমিক শ্রেণির সিলেবাস বাস্তবায়ন কার্যক্রম

সর্বশেষ

চুনারুঘাটে পাখি শিকারীকে  ১মাসের কারাদন্ড প্রদান।

চুনারুঘাটে পাখি শিকারীকে ১মাসের কারাদন্ড প্রদান।

জুম অ্যাপের মাধ্যমে কোরআন শিক্ষা।

জুম অ্যাপের মাধ্যমে কোরআন শিক্ষা।

মোহাম্মদ ইয়াছিনকে সম্মাননা দিলেন কাতারে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত

মোহাম্মদ ইয়াছিনকে সম্মাননা দিলেন কাতারে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত

হাফিজিয়া  মাদ্রাসা থেকে দুই শিশু শিক্ষার্থী নিখোঁজ

হাফিজিয়া মাদ্রাসা থেকে দুই শিশু শিক্ষার্থী নিখোঁজ

গাইবান্ধায় নিম্নচাপে পানিতে ভাসছে আমন ধান

গাইবান্ধায় নিম্নচাপে পানিতে ভাসছে আমন ধান

বীমা শিল্পে নারী জাগরণের পথিকৃৎ রাবেয়া বেগম রুনা

বীমা শিল্পে নারী জাগরণের পথিকৃৎ রাবেয়া বেগম রুনা

ঠাকুরগাঁওয়ে বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়িতে ৩৩ দিন ধরে কলেজ ছাত্রীর অনশন

ঠাকুরগাঁওয়ে বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়িতে ৩৩ দিন ধরে কলেজ ছাত্রীর অনশন

কোনভাবে ডিম খেলে ওজন কমবে : হাফ নাকি পুরো সিদ্ধ

কোনভাবে ডিম খেলে ওজন কমবে : হাফ নাকি পুরো সিদ্ধ

গাইবান্ধায় ৫৮২টি পুজা মন্ডপে শান্তিপূর্ণভাবে প্রতিমা বির্সজন

গাইবান্ধায় ৫৮২টি পুজা মন্ডপে শান্তিপূর্ণভাবে প্রতিমা বির্সজন

শ্যামনগরে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শারদীয়া দুর্গোৎসবের সমাপ্তি

শ্যামনগরে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শারদীয়া দুর্গোৎসবের সমাপ্তি

ইউএনও কর্তৃক ফেন্সিডিল ও গাঁজা আটক

ইউএনও কর্তৃক ফেন্সিডিল ও গাঁজা আটক

প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে কিশোরগঞ্জে শেষ হলো, শারদীয় দূর্গাপূজা

প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে কিশোরগঞ্জে শেষ হলো, শারদীয় দূর্গাপূজা

হাজী সেলিমের ছেলে ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. ইরফান সেলিমের এক বছরের কারাদণ্ড

হাজী সেলিমের ছেলে ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. ইরফান সেলিমের এক বছরের কারাদণ্ড

মালয়এশিয়ায় আবার লক ডাউন

মালয়এশিয়ায় আবার লক ডাউন

গোবিন্দগঞ্জে স্কুল ছাত্রী অপহরন মামলার বাদীকে ভয়-ভীতি প্রদর্শনের প্রতিবাদে সংবাদ সন্মেলন

গোবিন্দগঞ্জে স্কুল ছাত্রী অপহরন মামলার বাদীকে ভয়-ভীতি প্রদর্শনের প্রতিবাদে সংবাদ সন্মেলন