Feedback

জেলার খবর, বরগুনা

‘মুছা বন্ড’ রিফাত শরীফ হত্যার অন্যতম আসামি এখনও অধরা

‘মুছা বন্ড’ রিফাত শরীফ হত্যার অন্যতম আসামি এখনও অধরা
September 19
05:45pm
2020
Akhtaruzzaman
Barguna, Barguna:
Eye News BD App PlayStore

আলোচিত বরগুনার রিফাত শরীফ হত্যার অন্যতম আসামি ‘মুছা বন্ড’ ছাড়াই মামলার রায় হতে চলেছে। অন্য সকল আসামি গ্রেপ্তার বা আদালতে আত্মসমর্পণ করলেও মুছা এখনও অধরা। বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) এই মামলায় প্রাপ্তবয়স্ক আসামিদের বিচারিক কার্যক্রম শেষ হয়েছে। আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর রায় ঘোষণার দিন ধার্য করেছেন বরগুনার জেলা ও দায়রা জজ মো. আছাদুজ্জামান।১৫ মাস আগে মানুষকে স্তম্ভিত করে দেওয়া ওই হত্যাকান্ডের পর পুলিশ যে ২৪ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেয়, তাদের মধ্যে প্রাপ্তবয়স্ক ১০ জনের বিচার চলে জজ আদালতে। বাকি ১৪ জন অপ্রাপ্তবয়স্ক হওয়ায় বরগুনার শিশু আদালতে আলাদাভাবে তাদের বিচার চলছে। প্রাপ্ত বয়স্ক ১০ আসামির মধ্যে নিহত রিফাত শরীফের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিও রয়েছেন। এ মামলার ২৩ আসামি গ্রেপ্তার হয়েছেন বা আদালতে আত্মসমর্পণ করেছেন। এর মধ্যে ছয় কিশোর অপরাধী সংশোধনাগারে রয়েছেন। আর মিন্নিসহ নয়জন জামিনে রয়েছেন।‘মুছা বন্ড’ মামলার এজাহারের প্রধান আসামি ‘নয়ন বন্ডের’ সহযোগী ও বন্ড গ্রুপে ‘মুছা ভাই’ হিসেবে পরিচিত ছিল।

‘নয়ন বন্ড’ পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে মারা যায়। ফলে পুলিশের অভিযোগপত্রে তার আসেনি।  পুলিশের অভিযোগপত্রে ‘মুছা বন্ড’কে ৫নং আসামি এব্ং সরাসরি হত্যাকান্ডে জড়িত থাকার অভিযোগ আনা হয়।  অনুসন্ধানে নির্ভরযোগ্য কিছু সূত্রে প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, ‘মুছা বন্ডের’ বাড়ি বেতাগী উপজেলার সরিষামুড়ি কালিকাবাড়ি এলাকায়। তার বাবা আবুল কালাম ১০-১২ বছর আগে বরগুনা শহরে এসে ভাড়া বাসায় পরিবার নিয়ে বসবাস করতেন। তিনি করাতকলের শ্রমিক ছিলেন। মা গৃহপরিচারিকার কাজ করতেন। কিশোর বয়সে মুছা প্রথম আলোচনায় আসে ছাগল চুরি করে। ২০১৫ সালে শহরের কলেজ সড়ক এলাকায় একটি ছাগল চুরির পর স্থানীয়রা তার মাথা ন্যাড়া করে জুতোর মালা গলায় দিয়ে শহর প্রদক্ষিণ করায়। পরে পরিবারের পক্ষ থেকে তাকে ঢাকায় পাঠিয়ে দেওয়া হয়। কিন্ত কিছু দিন পর আবার বরগুনায় ফিসে আসে।  এরপর বরগুনা শহরে ছাত্রাবাস থেকে মোবাইল কেড়ে নিয়ে এসে ছাত্রদের কাছ থেকে টাকা আদায় করতো মুছা ও তার বন্ধুরা।

ইতোমধ্যে মুছার বড় ভাই আল-আমিন ঢাকা থেকে বরগুনায় ফিরে এসে মুছাকে বিদ্যুতের মিস্ত্রির কাজে লাগায়। এক পর্যায়ে মুছার পরিচয় হয় বন্ড গ্রুপ০০৭ এর প্রধান ‘নয়ন বন্ডের’ সঙ্গে। তখন থেকে তার নামের শেষে বন্ড উপাধি যুক্ত হয়ে ‘মুছা বন্ড’ নাম হয়। তবে গ্রুপের সদস্যরা ও এলাকার ছেলেরা তাকে ‘মুছা ভাই’ বলে ডাকতো। ঘটনার পর থেকে স্বপরিবারে নিরুদ্দেশ রিফাত শরীফ হত্যার পরও মুছার পরিবার শহরের ধানসিঁড়ি এলাকার ভাড়া বাসায় ছিলেন। কিন্ত চার্জশিটে আসামি হওয়ার পর পরিবারের সবাই নিরুদ্দেশ। এলাকায় খোঁজ নিলে কেউ তাদের সন্ধান দিতে পারেনি। মুছার বাবা যে করাতকলে চাকরি করতেন, সেখানে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, রিফাত হত্যার পর তিনি কাজে অনিয়মিত ছিলেন। ঘটনার মাস দুয়েক পর তিনি আর কাজে আসেননি। শহরের বেশ কয়েকজন ইলেকট্রিশিয়ানের কাছে তার ভাই আল-আমিনের সম্পর্কে জানতে চাইলে কেউ সন্ধান দিতে পারেননি। উজ্জ্বল নামের একজন ইলেকট্রিশিয়ান জানান, রিফাত হত্যার পর মাস খানেক আল-আমিন বরগুনায় ছিলেন, এরপর তিনি ঢাকা চলে যান। সরিষামুড়ি গ্রামের লোকজন জানান, দীর্ঘ বছর ধরে মুছার পরিবার গ্রামছাড়া। হত্যাকান্ডের পর তাদের এলাকায় দেখা যায়নি। ফেসবুকে নিয়মিত ‘মুছা বন্ড’ গত ৪ সেপ্টেম্বর ‘মুছা বন্ড’ নামের আইডি থেকে একটি ছবি পোস্ট করা হয়। এতে ক্যাপশনে লেখা, ‘অন্ধকার আমার ভালো লাগে’। এর আগে ২২ আগস্ট কয়েকজনের সঙ্গে তোলা ‘মুছা বন্ডের’ একটি ছবি পোস্ট করা হয়। এছাড়াও ১৭ জুন পোস্ট করা একটি ছবিতে তাকে একটি ফুটওভার ব্রিজের উপর দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়; এতে ক্যাপশন লেখা রয়েছে, ‘এখন আর চিন্ত করি না, বিপদ যে দিয়েছে, সে বিপদ থেকে মুক্ত করে দেবে’।

‘মুছা বন্ড’ নামের এই আইডির বন্ধু তালিকায় থাকা বেশ কয়েকজন আইডিটি ‘মুছা বন্ডের’ বলে নিশ্চিত করে বলেন, ওই আইডিতে তাকে প্রায়ই সক্রিয় থাকতে দেখা যায়। পরিচয় গোপন রাখার শর্তে কয়েকজন জানান, ‘মুছা বন্ডের সঙ্গে ম্যাসেঞ্জারে তাদের চ্যাটিংও হয়েছে।’  পুলিশের বক্তব্য মামলার তদন্ত কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির বর্তমানে পিরোজপুরের ইন্দুরকানি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত। যোগাযোগ করা হলে তিনি মোবাইল ফোনে বলেন, মুছার বিরুদ্ধে ঘটনায় জড়িত থাকার তথ্য মিলেছে, স্ইে কারণে তাকে অভিযোগপত্রে আসামি করা হয়েছে। তাকে গ্রেপ্তারের সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়েছে পুলিশ।  গত বছরের ২৬ জুন সকাল সোয়া ১০টার দিকে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে প্রকাশ্যে রামদা দিয়ে কুপিয়ে রিফাত শরীফকে গুরুতর জখম করা হয়। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

All News Report

Add Rating:

0

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

কুলাউড়ার রবিরবাজারে ট্রাকের ধাক্কায় প্রাণ হারালো শিশু

কুলাউড়ার রবিরবাজারে ট্রাকের ধাক্কায় প্রাণ হারালো শিশু

প্রেম করে  বিয়ে,পরকীয়া করে সন্তানসহ টাকা নিয়ে উধাও প্রবাসীর স্ত্রী

প্রেম করে বিয়ে,পরকীয়া করে সন্তানসহ টাকা নিয়ে উধাও প্রবাসীর স্ত্রী

কবরস্থানে নড়ে  ওঠা সেই শিশু মারা গেছে

কবরস্থানে নড়ে ওঠা সেই শিশু মারা গেছে

স্ত্রীর কাছ থেকে তালাকের নোটিশ পেয়ে  দুধ দিয়ে গোসল করলেন স্বামী

স্ত্রীর কাছ থেকে তালাকের নোটিশ পেয়ে দুধ দিয়ে গোসল করলেন স্বামী

তাড়াইলে জাতীয় পার্টির নেতা ইয়াবাসহ আটক

তাড়াইলে জাতীয় পার্টির নেতা ইয়াবাসহ আটক

বরিশালে অচেতন অবস্থায় নারী কর্মকর্তাকে নদী থেকে উদ্ধার

বরিশালে অচেতন অবস্থায় নারী কর্মকর্তাকে নদী থেকে উদ্ধার

নবাবগঞ্জে প্রেমিকের বাড়িতে টিভি দেখতে গিয়ে একাধিক বার ধর্ষণের শিকার কলেজ ছাত্রী

নবাবগঞ্জে প্রেমিকের বাড়িতে টিভি দেখতে গিয়ে একাধিক বার ধর্ষণের শিকার কলেজ ছাত্রী

পত্রিকায় হারানো বিজ্ঞপ্তি দেখে এগিয়ে যেতেন ভুয়া ওসি

পত্রিকায় হারানো বিজ্ঞপ্তি দেখে এগিয়ে যেতেন ভুয়া ওসি

ভোতা অস্ত্রের আঘাতে রায়হানের  মৃত্যু হয়েছে

ভোতা অস্ত্রের আঘাতে রায়হানের মৃত্যু হয়েছে

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপ আরও ঘণীভূত নিম্নচাপে রূপ নেওয়ার আশঙ্কা

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপ আরও ঘণীভূত নিম্নচাপে রূপ নেওয়ার আশঙ্কা

ঢাকা থেকে রোম সরাসরি একটি ফ্লাইট পরিচালনা করবে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স

ঢাকা থেকে রোম সরাসরি একটি ফ্লাইট পরিচালনা করবে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স

মিঠাপুকুরে স্বাক্ষর জালিয়াতির মাধ্যমে ৩লক্ষাধিক টাকার বিল উত্তোলনের অভিযোগ

মিঠাপুকুরে স্বাক্ষর জালিয়াতির মাধ্যমে ৩লক্ষাধিক টাকার বিল উত্তোলনের অভিযোগ

যুব অধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক তারেক রহমানকে ডিবি পরিচয়ে  তুলে নেওয়ার অভিযোগ

যুব অধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক তারেক রহমানকে ডিবি পরিচয়ে তুলে নেওয়ার অভিযোগ

আমতলীতে অতিবর্ষনে জনজীবন বিপর্যস্থ, জলাবদ্ধতায় তলিয়ে গেলে আমন ধানের ক্ষেত

আমতলীতে অতিবর্ষনে জনজীবন বিপর্যস্থ, জলাবদ্ধতায় তলিয়ে গেলে আমন ধানের ক্ষেত

বক্তব্য প্রত্যাহারের জন্য অধ্যাপক জিয়া রহমানকে আইনী নোটিশ

বক্তব্য প্রত্যাহারের জন্য অধ্যাপক জিয়া রহমানকে আইনী নোটিশ

সর্বশেষ

১২শ’ পিচ ইয়াবা উদ্ধার, পিতা-ছেলেসহ আটক ৫

১২শ’ পিচ ইয়াবা উদ্ধার, পিতা-ছেলেসহ আটক ৫

নারীর অধিকার ও নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠায় আজীবন কাজ করেছেন আল্লামা আহমদ শফী রহ.

নারীর অধিকার ও নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠায় আজীবন কাজ করেছেন আল্লামা আহমদ শফী রহ.

সরিষাবাড়ীতে মন্দিরের উন্নয়নে ঢেউটিন দিলেন মেয়র প্রার্থী সুমন চাকলাদার

সরিষাবাড়ীতে মন্দিরের উন্নয়নে ঢেউটিন দিলেন মেয়র প্রার্থী সুমন চাকলাদার

বঙ্গোপসাগরের লঘুচাপ নিম্মচাপে পরিণত, মোংলা বন্দর থেকে ২৪০ কিলোমিটার দুরত্বে অবস্থান

বঙ্গোপসাগরের লঘুচাপ নিম্মচাপে পরিণত, মোংলা বন্দর থেকে ২৪০ কিলোমিটার দুরত্বে অবস্থান

মিঠাপুকুরে জায়গীর বাসষ্টান্ড সিসি ক্যামেরার আওতাভুক্ত

মিঠাপুকুরে জায়গীর বাসষ্টান্ড সিসি ক্যামেরার আওতাভুক্ত

চূড়ান্ত বিতর্কে করোনা নিয়ে ট্রাম্প-বাইডেনের দ্বন্দ্ব

চূড়ান্ত বিতর্কে করোনা নিয়ে ট্রাম্প-বাইডেনের দ্বন্দ্ব

ভারতের উত্তর প্রদেশে দাড়ি রাখায় বরখাস্ত মুসলিম পুলিশ কর্মকর্তা

ভারতের উত্তর প্রদেশে দাড়ি রাখায় বরখাস্ত মুসলিম পুলিশ কর্মকর্তা

সারদেশে বৃষ্টি চলবে, জলোচ্ছ্বাসের সতর্কতা

সারদেশে বৃষ্টি চলবে, জলোচ্ছ্বাসের সতর্কতা

দিনাজপুরে তামাকের আইন বহির্ভুত বিজ্ঞাপন

দিনাজপুরে তামাকের আইন বহির্ভুত বিজ্ঞাপন

বৈরী আবহাওয়া : বরিশালের অভ্যন্তরীণ রুটে লঞ্চ চলাচল বন্ধ

বৈরী আবহাওয়া : বরিশালের অভ্যন্তরীণ রুটে লঞ্চ চলাচল বন্ধ

ইরান কি সত্যিই মার্কিন নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করছে?

ইরান কি সত্যিই মার্কিন নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করছে?

বগুড়ায় সাবেক স্ত্রীকে হত্যা, স্বামীর যাবজ্জীবন

বগুড়ায় সাবেক স্ত্রীকে হত্যা, স্বামীর যাবজ্জীবন

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার সাথে সব ধরনের নৌ-যোগাযোগ বন্ধ

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার সাথে সব ধরনের নৌ-যোগাযোগ বন্ধ

শেরপুরে পূজা মন্ডপে ভ্রাম্যমাণ টহলে আনসার সদস্যরা

শেরপুরে পূজা মন্ডপে ভ্রাম্যমাণ টহলে আনসার সদস্যরা

বন কিনে দেয়ার লোভ দেখিয়ে পাঁচ বছরের শিশুকে ধর্ষণ

বন কিনে দেয়ার লোভ দেখিয়ে পাঁচ বছরের শিশুকে ধর্ষণ