Feedback

আরও..., গল্পসল্প

আমার প্রথম বিমান ভ্রমণ???

আমার প্রথম বিমান ভ্রমণ???
September 16
04:57pm
2020
Md.Sahel
Dokkin Surma, Sylhet, প্রতিনিধি:
Eye News BD App PlayStore

এককথায় অসাধারণ…! তার চেয়েও অসাধারণ তার প্রেক্ষাপট। আজ সেয়ার করি…।  নিজের পয়সাতেই বিমানে চড়েছি, কারোর সাহায্য লাগেনি। আর যাত্রাপথে একটা ২ ঘন্টার লে ওভার টাইম ছিল, দিল্লীতে।  মনে পড়ে, তখন আমি সদ্য M.Tech পাশ করেছি। আর গবেষণায় উচ্চ শিক্ষার সুযোগ খুঁজছি।  সত্যি বলতে কি, ভারতে যে কয়টা প্রতিষ্ঠানে interview দেই, তার একটাতেও নির্বাচিত হইনি। অবশ্য প্রতিষ্ঠান গুলিতে কিছু সর্বভারতীয় নামি গবেষণাগার ও IITও ছিল।  মনে পড়ে খুবই মনমরা ছিলাম। কারণ গবেষণায় উচ্চ শিক্ষার আকাঙ্ক্ষা মনে থাকলেও আমি এই দেশেই করতে চেয়েছিলাম। স্বপ্নভঙ্গ ঘটেছিল বলতে পারেন।  তবে এই ফাঁকে আমি আমার শিক্ষকের পরামর্শ মতো ৩টি ইউরোপীয় ও একটি কোরীয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদন ও গবেষণা প্রস্তাব পাঠিয়ে রেখেছিলাম। কোরীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের আমার প্রস্তাব পছন্দ হয়, এবং কাজ শুরু করতে বলে।  হাতে চাঁদ বলতে পারেন সেই মুহূর্তে। চটজলদি ভিসার ব্যবস্থা হয়, এবং বিদেশ পাড়ি দেওয়ায় প্রস্তুতি শুরু হয়। 

প্রসঙ্গত: উল্লেখ্য, ঠিক এই সময়েই IIT Guwahati থেকেও admission letter চলে আসে। কিন্তু আমার বিদেশযাত্রার প্রস্তুতি সমাপ্ত। তাই কোরীয়া যাব স্থির করি।  আর এক্ষেত্রে অর্থের ব্যবস্থা আমিই করি, বা করতে পেরেছিলাম কারণ আমার মোটা টাকা স্কলারশিপ ছিল M.Tech এর সময় যা আমার প্রয়োজনের চেয়ে অনেক বেশি। সুতরাং কিঞ্চিত অর্থবল ছিল।  যাক, প্রসঙ্গে ফিরি। মনে পড়ে আমার পুরো পরিবার আর আমাদের ভাড়াটে অবাঙালি সিংঘল আঙ্কেল কলকাতা এয়ারপোর্টে এসেছিলেন। আঙ্কেলের আবার আমার কোরীয়া যাত্রা পছন্দ করছিলেন না, কারণ দেশটিকে তার পছন্দ নয়। আমাকে বোঝাতে হয়েছিল কেন যাচ্ছি?  তখন নতুন টার্মিনাল তৈরি হয়নি। পুরোনো টার্মিনালে ৩০টাকার টিকিটে ভিসিটররা ঢুকতে পারতেন। মনে পড়ে যখন সিক্যুরিটি কর্ডন পেড়োচ্ছি, বুক ঢুকপুক করছে আর মায়ের ছলছল করা চোখটা দেখতে পাচ্ছিলাম।    এরপর, গেট নাম্বার দেখে নির্দিষ্ট ফ্লাইটে ওঠা এবং দিল্লী নামা পুরোটাই ছিল নতুন অভিজ্ঞতা। এয়ার ইন্ডিয়া ফ্লাইট ছিল, তাই আর এয়ার হোস্টেস নিয়ে কোন কথা বললাম না।

যা দিল সব খেয়ে নিয়েছিলাম। দিল্লীতে নেমে বেড়িয়ে এসে মনে পড়ল, আমার লাগেজ কই? (তখন ও জানিনা এ লাগেজ আমি সিওলে নেমে পাব)। টেনশন হয়ে গেল। সিআরপি জওয়ানকে ধরলাম। সে তো ঢুকতে দেবেনা। শেষে পাশে একজন আমার বোর্ডিং পাস দেখে টেখে ব্যপারটা বোঝালো। উনিই বললেন এবার ইমিগ্রেশন কাউন্টারে যেতে।  গেলাম। তখনও জানতাম না আরেকটা অভিজ্ঞতা অপেক্ষা করছে। লাইন দিলাম, হাতে পাশপোর্ট। কাউন্টারের মহিলার কাছে পৌঁছে গেলাম। উনি বললেন, immigration form কোথায়? আমি বললাম, সেটা কি?  আবার এক প্রশ্ন এলো, কিছু বুঝতে পারলাম না।  স্বাভাবিক ভাবেই বের করে দেওয়া হল। আমি কিন্তু তখনও জানিনা, immigration form কি, কোথায় পাওয়া যায়?  শেষে আবার কেউ একজন বলেছিলেন দিল, এয়ার ইন্ডিয়ার কাউন্টারে যেতে। যাক এরপর ওখানে গিয়ে ব্যাপারটা স্পষ্ট হল।  ইমিগ্রেশন পেড়োলাম, পাশপোর্টে ছাপ পড়লো।   

তারপরের ঘটনা খুব স্মুথ বলা যায়। কারণ একবার প্লেনে চড়ে ফেলেছি। তবে এবারের ফ্লাইট টা ইন্টারন্যাশনাল, আর আকারে বড়। টিভি আছে। ৯ ঘন্টার সফর ছিল, একটা স্টপ ছিল হংকংয়ে। দুবার এয়ার পকেটে পড়েছিলাম। ব্যাস। আর কিছু ঘটেনি প্লেন থেকে নামা পর্যন্ত। ও হ্যাঁ, পাশে দুটি কোরীয়ান মেয়ে বসেছিল যারা বাড়ি ফিরছে। নতুন দেশে নেমেই নতুন যে বিপদ টি অপেক্ষা করছিল, তার থেকে বাঁচতে এরাই যে ত্রাতা হয়ে দাঁড়াবে, সেটি আবার তখন আমি জানতাম না। সে গল্প আরেকদিনের। আজ বিমানযাত্রাতেই থাক।  সত্যি বলতে কি, সেই কোরীয়া আমি বেশীদিন থাকিনি। এই দেশে ফিরেই গবেষণার কাজ শুরু করি। আজ আমি বছরে অন্তত ৫-৬ টা এয়ার ট্রাভেল করি, কখনো তারও বেশি। আমার স্ত্রী ইন্ডিগোর প্রাক্তন গ্রাউন্ড স্টাফ, আর শালী প্রাক্তন এয়ার হোস্টেস। বলতে পারেন‌ বিমানযাত্রা রেল যাত্রার কাছাকাছি আমাদের কাছে।  কিন্তু ঐ একটা দিনের অভিজ্ঞতা যে আমাকে কতকিছু শিখিয়েছে, তার তুলনা কোন কিছুর সাথেই চলেনা।

All News Report

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

বগুড়ায় ডেকে নিল বান্ধবী, ধর্ষণ করল ‘যুবলীগ নেতা’!

বগুড়ায় ডেকে নিল বান্ধবী, ধর্ষণ করল ‘যুবলীগ নেতা’!

হাটহাজারী মাদ্রাসা পরিচালনায় তিন শিক্ষক, বাবুনগরী পেলেন ২ দায়িত্ব

হাটহাজারী মাদ্রাসা পরিচালনায় তিন শিক্ষক, বাবুনগরী পেলেন ২ দায়িত্ব

এনএসআই ও বিজিবি’র যৌথ অভিযানে বিপুল পরিমাণ মাদকসহ আটক-১

এনএসআই ও বিজিবি’র যৌথ অভিযানে বিপুল পরিমাণ মাদকসহ আটক-১

ঘোড়াঘাটের ইউএনও ওয়াহিদাকে ওএসডি, স্বামীকে বদলী

ঘোড়াঘাটের ইউএনও ওয়াহিদাকে ওএসডি, স্বামীকে বদলী

পাইকগাছায় নার্সের স্বর্নের লকেট ছিনতাই করে পালানোর সময় দু'কলেজ ছাত্র আটক

পাইকগাছায় নার্সের স্বর্নের লকেট ছিনতাই করে পালানোর সময় দু'কলেজ ছাত্র আটক

কে হচ্ছেন হেফাজতের পরবর্তী আমির

কে হচ্ছেন হেফাজতের পরবর্তী আমির

সাবেক ওসি প্রদীপের সকল স্থাবর ও অস্থাবর সম্পত্তি ক্রোকের আদেশ

সাবেক ওসি প্রদীপের সকল স্থাবর ও অস্থাবর সম্পত্তি ক্রোকের আদেশ

রৌমারীতে চর লাঠিয়াল ডাঙ্গা এলাকায় নতুন হাটের সূচনা সমন্ধে আলোচনা সভা

রৌমারীতে চর লাঠিয়াল ডাঙ্গা এলাকায় নতুন হাটের সূচনা সমন্ধে আলোচনা সভা

আমতলীতে সড়ক দুর্ঘটনায় পল্লী চিকিৎসক নিহত

আমতলীতে সড়ক দুর্ঘটনায় পল্লী চিকিৎসক নিহত

কবিতাঃ বৃষ্টি জলের ছোঁয়া

কবিতাঃ বৃষ্টি জলের ছোঁয়া

শায়েস্তাগঞ্জ থানার ওসিসহ ৫ জন প্রত্যাহার

শায়েস্তাগঞ্জ থানার ওসিসহ ৫ জন প্রত্যাহার

নামাজ পড়িয়ে বাড়ি ফেরার পথে খুন মসজিদের ইমাম

নামাজ পড়িয়ে বাড়ি ফেরার পথে খুন মসজিদের ইমাম

মসজিদে বিস্ফোরণ: গ্রেফতার মোবারক রিমান্ডে

মসজিদে বিস্ফোরণ: গ্রেফতার মোবারক রিমান্ডে

আবরারের বাবা অসুস্থ: মামলার প্রথম দিনেই সাক্ষ্য গ্রহণ হয়নি

আবরারের বাবা অসুস্থ: মামলার প্রথম দিনেই সাক্ষ্য গ্রহণ হয়নি

আদালতের ছয় তলা থেকে সেই মজনুর লাফিয়ে পড়ার চেষ্টা

আদালতের ছয় তলা থেকে সেই মজনুর লাফিয়ে পড়ার চেষ্টা

সর্বশেষ

আন্তঃ আফগান বৈঠক ফলপ্রসূ নয়!

আন্তঃ আফগান বৈঠক ফলপ্রসূ নয়!

বিএসএফের তাড়ায় নিখোঁজ বাবার জন্য সন্তানদের অপেক্ষা

বিএসএফের তাড়ায় নিখোঁজ বাবার জন্য সন্তানদের অপেক্ষা

হচ্ছে না শিকদার বাড়ির সবচেয়ে বড় দূ্র্গা পূজা

হচ্ছে না শিকদার বাড়ির সবচেয়ে বড় দূ্র্গা পূজা

মহিষ চুরির অভিযোগে চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রকে ১৯ বছর দেখিয়ে মামলা

মহিষ চুরির অভিযোগে চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রকে ১৯ বছর দেখিয়ে মামলা

সন্ধ্যার পর রাজধানীতে স্বস্তির বৃষ্টি

সন্ধ্যার পর রাজধানীতে স্বস্তির বৃষ্টি

করোনা সচেতনতা বৃদ্ধিতে এবার শায়েস্তাগঞ্জ জংশনে পটনাট্য

করোনা সচেতনতা বৃদ্ধিতে এবার শায়েস্তাগঞ্জ জংশনে পটনাট্য

নির্মমতার চরম পর্যায়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন

নির্মমতার চরম পর্যায়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন

আদালতের ছয় তলা থেকে সেই মজনুর লাফিয়ে পড়ার চেষ্টা

আদালতের ছয় তলা থেকে সেই মজনুর লাফিয়ে পড়ার চেষ্টা

একাধিকবার বাড়ানো যাবে বিদ্যুৎ ও জ্বালানির দাম

একাধিকবার বাড়ানো যাবে বিদ্যুৎ ও জ্বালানির দাম

নবীনগরে লাল সবুজ উন্নয়ন সংঘের উদ্যোগে ৫০০ শত তালের বীজ রোপণ

নবীনগরে লাল সবুজ উন্নয়ন সংঘের উদ্যোগে ৫০০ শত তালের বীজ রোপণ

প্রাতিষ্ঠানিক ই-মেইল পাবে জবি শিক্ষার্থীরা: জবি উপাচার্য

প্রাতিষ্ঠানিক ই-মেইল পাবে জবি শিক্ষার্থীরা: জবি উপাচার্য

মদ তৈরীর কারখানা আবিস্কার,  সৈনিকলীগ নেতাসহ গ্রেপ্তার ২

মদ তৈরীর কারখানা আবিস্কার, সৈনিকলীগ নেতাসহ গ্রেপ্তার ২

দক্ষিণাঞ্চলের অন্যতম দর্শনীয় স্থান ৫শ বছরের পুরাতন প্রাচীনতম মসজিদকুঁড় মসজিদ

দক্ষিণাঞ্চলের অন্যতম দর্শনীয় স্থান ৫শ বছরের পুরাতন প্রাচীনতম মসজিদকুঁড় মসজিদ

শাজাহানপুরে ব্র্যাক স্কুলের এক শিক্ষিকার ১০ হাজার টাকা জারিমানা

শাজাহানপুরে ব্র্যাক স্কুলের এক শিক্ষিকার ১০ হাজার টাকা জারিমানা

নাগরপুরে আঁখ ক্ষেত থেকে অজ্ঞাত নারীর লাশ উদ্ধার

নাগরপুরে আঁখ ক্ষেত থেকে অজ্ঞাত নারীর লাশ উদ্ধার