Feedback

সাহিত্য

অধ্যাবসায়

অধ্যাবসায়
September 14
09:31pm
2020
Ashraful.khan
wazirpur, Barishal:
Eye News BD App PlayStore

 অধ্যাবসায় আমাদের জীবন কাহিনির একটা গুরুপ্তপূর্ন বিষয় অধ্যাবসায় যার যত এই বিষয়ে হুশিয়ার থাকবে তার উন্নতি ততই ভালো হবে।মানব জীবনে পরিশ্রম করার একটা নিদিষ্ট দিক রয়েছে তার মধ্য প্রধান দিক হলো অধ্যাবসায়। অধ্যাবসায়ের ফলে মানুষ তার কঠোর জীবন চিনতে পারে বাস্তব কত কঠিনঅধ্যবসায় সময়ের সাথে জীবন, জীবনের সাথে কর্ম ও অধ্যবসায়-একই বিনিসুতোর মালায় গাথা। একটি কে বাদ দিয়ে অন্য টি কে কল্পনা করা যায় না।এ পৃথিবীতে যে কোনো কাজ করতে গেলে সফলতা ও নিষ্ফলতা উভয় প্রকার ঘটনা ঘটে থাকে। অধ্যবসায় জীবনের চাবিকাঠি। অধ্যবসায় ছাড়া মানব জীবনে উন্নতির আশা কল্পনা মাত্র। মানুষ জীবনকে সাজাতে চায়, সফলতা করতে চায়, কিন্তু জীবনের পথ খুব সহজ নয়। জীবনের সব কাজই সহজে সমাধা হয় না। অনেক কাজেই প্রথমবারে সফলতা আসে না।এমনকি পরের বার ও সফলতা নাও আসতে পারে। কিন্তু এতে হতাশ হলে চলবে না।বার বার চেষ্টা করতে হয়। তাতে একসময় সাফল্য আসবেই। সাফল্য লাভের এই প্রয়াসই অধ্যবসায়।


এই ধারনাকে কবি ফুটিয়ে তুলেছেন একটি প্রবাদতুল্য একটি কবিতায়: পারিব না একথা টি বলিও না আর, একবার না পারিলে দেখ শত বার। সাধন ও অধ্যবসায় দ্বারা মানুষ অসাধ্যকে সাধন করতে পারে। জীবনে সফল হতে চান একাগ্রতা ও নিষ্ঠা। সফলতা পথের প্রথম ও অনিবার্য শর্ত হলো অধ্যবসায়।সেরা ৫টি ফ্রি মোবাইল ক্লিনিং অ্যাপস্    একমাত্র অধ্যবসায়ের বলেই মানুষ জীবনের চলার পথে সকল বাধা বিপত্তি মোকাবেলা করে সফলতা শীর্ষে আরোহণ করতে পারে।যে কোনো কাজে সফলতা ও ব্যর্থতা এ দুটো আসতে পারে। ব্যর্থতাকে মেনে নিয়ে হতাশ হয়ে বসে থাকলে চলবে না। বরং ধৈর্য ও নিষ্ঠার সাথে সফলতা না আসা পর্যন্ত চেষ্টা করে যেতে হবে। অসাধারণ কাজ গুলো শক্তি নয়, অসীম ধৈর্য দিয়ে সম্পন্ন করতে হয়। মানুষের জীবন যাপনের ধরন যেমন পাল্টাচ্ছে, তেমনি মানুষ নতুন নতুন জিনিসের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করছে।আর এ থেকে উদ্ভাবন করে নিচ্ছে চাহিদা মতো জিনিস।হাল ছাড়ার বাহানা মানুষকে কোনো সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে পারে না। জীবনে সফলতার জন্য দুটি জিনিসের প্রয়োজন:জেদ আর আত্মবিশ্বাস। সাফল্য একটি বিজ্ঞান, সঠিক উপাদান মিশালে তুমি সঠিক ফলাফল পাবে।যার কথার চেয়ে কাজের পরিমাণ বেশি, সাফল্য তার কাছে এসেই ধরা দেয়,কারন যে নদী যত গভীর তার বয়ে যাওয়ার শব্দ তত কম। 


  সাধারণ মানুষ যতক্ষন ভালো লাগে, ততক্ষন কাজ করে।আর অসাধারন সফল মানুষেরা ভালো না লাগলেও যতক্ষন কাজ শেষ না হয় ততক্ষন কাজ বন্ধ করে না। অধ্যবসায় মানুষকে স্বরনীয় বরনীয় করে রাখতে পারে। একমাত্র অধ্যবসায়ের গুনেই মানুষ নিজের জীবনকে সুষমান্ডিত করে দেশ ও জাতির কাছে স্বরনীয়-বরনীয় হতে পারে। তা উপলব্ধি করতে পারে। আমরা সৃষ্টির সেরা জীব আমাদের রয়েছে শক্তি মনোবল দৃঢ় বিশ্বাস যার উপর ভর করে আমরা তৈরী করছি উন্নতের সিডি। আমি কেমন সেটা দেখার বিষয় না বিষয় হলো আমার ব্যবহার আচরন যা দিয়ে একটা মানুষের ভালো মন্দ যাচাই করা যায়।পরিশ্রম আমাদেরকে সাফল্য এনে দেয় কিন্তু সৎ পথের পরিশ্রম একটু বেশি সাফল্য এনে দেয়।    বাচ্চাদের জন্য চমৎকার ৭টি ফ্রি শিক্ষামূলক অ্যাপ    আমরা সবসময় তার কাছ থেকে শিক্ষা অর্জন করবো যার শিক্ষার দাম এতটাই বেশি যে আমাদের কে প্রকৃত শিক্ষায় শিক্ষিত করবে। আশা আমাদের একটাই ভালো কিছু করা। সবাই চায় নিজের মতো করে বাঁচতে নিজেকে সবার মাঝে হারিয়ে দিতে।তবে সময় আমদের কখনও সঠিক কিছু শিখায় আবার কখনও যা শিক্ষা দেয় তা আমাদের স্নৃতি হিসাবে রয়ে যায়।আমাদের মনে একটাই প্রশ্ন যা আমাদের সবসময় যে কিছু কিছু মানুষ খারাপ কেনো? হ্যা হয়ত তার ভালো হওয়ার সময় টা ভালো ছিলো না


তাই তবে যে পরিশ্রমের মাজে নিজেকে লুকিয়ে দেয় সে বুজে সময় টা তার জন্য কতটা খারাপ। হ্যা সমাজে বসবাস করার জন্য সব সময় গুলো কে নিজের সাথে মানাইয়া নিতে হয়।যেহেতু ভালো কিছু করার মাজে ভালো কিছু হয় সেহেতু ভালো কেই কাজে লাগাতে হবে৷ মানুষ তার স্বপ্ন কে বাস্তবে রুপ দিতে তার মিশতে হয় প্রতিকূল ধ্বংসাত্মক পরিবেশের সাথে তবে হাল ছেডে দেয়ার জন্য কখনও লড়াই করও না কারন সেটা সবথেকে দুঃখ ময় হয় কেননা আপনার সাফল্য হয়ত আপনার জন্য এই অপেক্ষা করছিলো কিন্তু আপন করতে পারেন নাই কারন আপনার মনোবল সেই প্রর্যন্ত ছিলো যতক্ষণ আপনি সুখ গুলো হাতের নাগালে পাবেন।তবে দুঃখ আসার সাথে সাথে এই ছেডে দিলেন হাল।।    Facebook post  হায় হায় অধ্যাবসায় বলে যে একটা কথা আছে তার কোনো মূল্য আপনার কাছ থেকে পায় নাই এই সমাজ।এভাবেই হয়ত বদলে যায় সমাজ আর সমাজের কিছুসভ্যতার এই প্রহরে শান্তির খোজে আমরা গুনে গুনে হাটি হাটি পা পা করে সন্ধান করতে ব্যাস্ত থাকি। আর যাই হোক স্বাধীন রাষ্ট্রের নাগরিক আমরা শান্তি এক দিন আসবেই আমাদের।


প্রয়োজন অনাবিল ধর্য আর পরিশ্রম তো থাকছেই আপনি যেমন আশার আলোয় ঘুরে প্রতিষ্ঠিত করছেন নিজের সুখ সময় জীবন ঠিক তেমনি অন্য কেউ আপনার সুখের সগ্ঙি হওয়ার জন্য আগমন হতে যাচ্ছে খেয়াল রাখতে হবে তার যেনো কোনো অযন্ত না হয়।আমরা কখনও বিভাষন আর সম্যতা বজায় রাখতে শিখি নাই।শিখছি কিভাবে মানুষের খতি করা যায় তাই আজ এই পরিনতি সুখ নেই আমাদের কপালে।    যখন দেশ স্বাধীন হয়েছিলো তখন তো অফুরন্ত সুখ ছিলো গেলো কই সব সুখ? গেছে যারা দেশের দালাল তাদের কাছে যারা আমাদের এই মাতৃভূমি বার বার বিক্রি করে খাচ্ছে যারা অপরাধের দেয়ালে আছে আটকা খমতার জলে ডুবে আছে।তাদের আছে সুখ আর শান্তি, যাই হোক রাজনীতি করা ভালো তবে যেখানে জনগনের উপকারে আসে সেখানে রাজনীতি করা খুবই ভালো।তবে জাতির পিতার জন্য আছে অনেক অনেক সালাম । অফুরন্ত ভালোবাসা আছে!। আসলে ভাবা যায় না মানুষ কত টা নিচে নামতে পারে হ্যা এটা অন্য কথা যেটা হলো বিনা পরিশ্রম না করে জীবন বদলানোর কিছু যেমন একটা মানুষের গুছানো পুজি যদি থাকে আর তার দূরর্বলতার সুযোগ নিয়ে যদি সেটা তার থেকে আহরন করা যায় তাকে কিন্তু বলে চুরি করা। ধর্মে বলা হয়েছে অসৎ পথের টাকা পয়সা কখনও সফলতা হয় না। বরং অসৎ পথের টাকা পয়সা সবসময় নিচু করতে সাহায্য করে।

All News Report

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

বগুড়ায় নেশা ও যৌন উত্তেজক ঔষধ অত:পর

বগুড়ায় নেশা ও যৌন উত্তেজক ঔষধ অত:পর

বদলে যাচ্ছে বাংলাদেশ মার্কিন নীতি

বদলে যাচ্ছে বাংলাদেশ মার্কিন নীতি

আমতলীতে দুই একর জমির রোপা আমনের চারা উপড়ে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা

আমতলীতে দুই একর জমির রোপা আমনের চারা উপড়ে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা

পাবনা-৪ আসনে ভোট চলছে

পাবনা-৪ আসনে ভোট চলছে

ধর্ষণের অভিযোগ: বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের গঠিত তদন্ত কমিটির সময় বেড়েছে

ধর্ষণের অভিযোগ: বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের গঠিত তদন্ত কমিটির সময় বেড়েছে

ব্যবহার করা কন্ডোম ধুয়ে প্যাকেটে ভরে বিক্রি

ব্যবহার করা কন্ডোম ধুয়ে প্যাকেটে ভরে বিক্রি

ডাক্তারি পরীক্ষায় ধর্ষণের আলামত মিলেছে, অনশন করা সেই প্রেমিকার

ডাক্তারি পরীক্ষায় ধর্ষণের আলামত মিলেছে, অনশন করা সেই প্রেমিকার

একশ দেশের গানে শেখ মিলন

একশ দেশের গানে শেখ মিলন

স্বামীকে আটকে রেখে গৃহবধূকে গণধর্ষণের প্রতিবাদে উত্তাল এমসি কলেজ

স্বামীকে আটকে রেখে গৃহবধূকে গণধর্ষণের প্রতিবাদে উত্তাল এমসি কলেজ

সিলেটে তরুণী ধর্ষণ, পুলিশ খুঁজছে ৬ ছাত্রলীগ নেতাকে

সিলেটে তরুণী ধর্ষণ, পুলিশ খুঁজছে ৬ ছাত্রলীগ নেতাকে

খালেদার উন্নত চিকিৎসা: দল ও পরিবারের দুই মত

খালেদার উন্নত চিকিৎসা: দল ও পরিবারের দুই মত

হৃদয়কে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন

হৃদয়কে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন

কি অপরাধ ছিলো আদিবাসী মেয়েটির

কি অপরাধ ছিলো আদিবাসী মেয়েটির

কৃষি কর্মকর্তা পদে প্যানেলে নিয়োগের দাবীতে দ্বিতীয় দিনে অনির্দিষ্টকালের অবস্থান

কৃষি কর্মকর্তা পদে প্যানেলে নিয়োগের দাবীতে দ্বিতীয় দিনে অনির্দিষ্টকালের অবস্থান

ধর্ষণ এবং রাষ্ট্রের দায়

ধর্ষণ এবং রাষ্ট্রের দায়

সর্বশেষ

ভারত ইজরায়েল নতুন চুক্তি

ভারত ইজরায়েল নতুন চুক্তি

ধর্ষক যে দলের হোক, শাস্তি অবশ্যই পেতে হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ধর্ষক যে দলের হোক, শাস্তি অবশ্যই পেতে হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ড্রাইভার মালেকের স্বাস্থ্য ও প্রেসিডেন্ট নিক্সনের ওয়াটারগেট

ড্রাইভার মালেকের স্বাস্থ্য ও প্রেসিডেন্ট নিক্সনের ওয়াটারগেট

কবিতা

কবিতা

বিশ্ব পর্যটন দিবসে প্রধানমন্ত্রীর বাণী

বিশ্ব পর্যটন দিবসে প্রধানমন্ত্রীর বাণী

যারা অপকর্ম করেছে তারা নামধারী ছাত্রলীগ এদের কমিটি নেই ---আল নাহিয়ান খান জয়

যারা অপকর্ম করেছে তারা নামধারী ছাত্রলীগ এদের কমিটি নেই ---আল নাহিয়ান খান জয়

অন্যরকম বন্ধুত্বের গল্প !!

অন্যরকম বন্ধুত্বের গল্প !!

প্রেমিক বিয়ে না করলে আত্মহত্যা করবে স্কুলছাত্রী!

প্রেমিক বিয়ে না করলে আত্মহত্যা করবে স্কুলছাত্রী!

বিশ্বখ্যাত উপন্যাস ‘ডক্টর জিভাগো’ ও বরিস পাস্তেরনাক

বিশ্বখ্যাত উপন্যাস ‘ডক্টর জিভাগো’ ও বরিস পাস্তেরনাক

আমরা সৌভাগ্যবান শেখ হাসিনার মত একজন রাষ্ট্রনায়ক পেয়েছি

আমরা সৌভাগ্যবান শেখ হাসিনার মত একজন রাষ্ট্রনায়ক পেয়েছি

১২ হাজার শূকর মারা হবে ভারতের আসামে, সোয়াইন ফ্লু সংক্রমণের শঙ্কা

১২ হাজার শূকর মারা হবে ভারতের আসামে, সোয়াইন ফ্লু সংক্রমণের শঙ্কা

ফরমালিন মুক্ত আম সহজে চেনার উপায়

ফরমালিন মুক্ত আম সহজে চেনার উপায়

শিক্ষক নেতৃত্বের দক্ষতা উন্নয়ন

শিক্ষক নেতৃত্বের দক্ষতা উন্নয়ন

হিন্দু ভাইয়ের মুখাগ্নি করল মুসলিম বোন

হিন্দু ভাইয়ের মুখাগ্নি করল মুসলিম বোন

ধনীদের গ্লুকোজ খেয়ে ব্যাটিংয়ে নামতে বললেন সেওয়াগ!

ধনীদের গ্লুকোজ খেয়ে ব্যাটিংয়ে নামতে বললেন সেওয়াগ!