Feedback

গল্পসল্প

বাঘ-সিংহের লড়াই

বাঘ-সিংহের লড়াই
September 14
02:59pm
2020
Md.Sahel
Dokkin Surma, Sylhet, প্রতিনিধি:
Eye News BD App PlayStore

অনেকদিন আগের কথা। এক দেশে বড় একটি বন ছিল। সেই বনে বাস করতো বাঘ, সিংহ, হাতি, ভল্লুক, বানর, হরিণ, খরগোশ, শিয়াল, জিরাফ, জেব্রা, গাধা ও নানান প্রজাতির পাখি। বাঘ ও সিংহের অত্যাচারে বনের নিরীহ পশু-পাখিরা অতিষ্ঠ ছিল। তাদের বাঁচার কোনো উপায় ছিল না। সুযোগ পেলেই বাঘ-সিংহ তাদের শিকার করত। তাদের অত্যাচার থেকে কীভাবে রক্ষা পাওয়া যায় তার একটা উপায় বের করার জন্য নিরীহ পশু-পাখিরা বনের মধ্যে একটা গোপন বৈঠক করল। 


গোপন বৈঠকে পশু-পাখিরা বিভিন্ন মতামত পেশ করল। কেউ বলল : বাঘ-সিংহকে মেরে ফেলতে হবে, কেউ বলল : তাদের ফাঁদে ফেলতে হবে, কেউ বলল : আমরা একত্রিত হয়ে তাদের সঙ্গে লড়াই করব। আবার কোনো কোনো পশুপাখি বলল : আমরা যদি বাঘ-সিংহকে মেরে ফেলতে পারি তাহলে আর কোনো চিন্তা থাকবে না এ কথা সত্য কিন্তু তারা সংখ্যায় কম হলেও আমাদের চেয়ে অনেক শক্তিশালী। তাদের সঙ্গে লড়াই করার সাহস আমাদের কারোরই নেই। আর শিয়াল বলল : হাতির গায়ে অনেক শক্তি। সে যদি আমাদের সাহায্য করে তাহলে আমরা অবশ্যই জিতব। একথা শুনে হাতি বলল : বাঘ-সিংহের সঙ্গে লড়াই করার মতো সাহস আমাদের নেই। আমরা তাদের সঙ্গে লড়াই করতে পারব না। 


ভিন্ন ভিন্ন পশুর ভিন্ন ভিন্ন মত হওয়ার কারণে পশুপাখিরা কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারছিল না। এমন সময় একটা খরগোশ বলল : আমার মাথায় একটা বুদ্ধি এসেছে। আর তা হলো- কোনোভাবে যদি বাঘ-সিংহের মধ্যে একটা দ্ব›দ্ব বাধিয়ে দেয়া যায়, তাহলে আমাদের উদ্দেশ্য সফল হবে। খরগোশের কথা শুনে পশু-পাখিরা বলল : এখন বল তা কীভাবে সম্ভব? খরগোশ তার পরিকল্পনার কথাটি সবার সামনে উপস্থাপন করল। খরগোশের পরিকল্পনার কথা শুনে তারা বেশ খুশি হলো। অবশেষে বনের পশু-পাখিরা তার পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করার জন্য খরগোশকেই দায়িত্ব দিল।  খরগোশ তার পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করার জন্য একদিন বাঘের সর্দারের সঙ্গে দেখা করার উদ্দেশে তার গুহায় গেল। বাঘের সঙ্গে দেখা করে খরগোশ বলল : রাজা মশাই অনুমতি দিলে একটা কথা বলতে পারি। ‘বল কী বলবি?’ বাঘ উত্তর দিল।  : আপনি বনের রাজা।


বনের পশুপাখিরা আপনাকে অনেক শ্রদ্ধা করে। আমরা অনেকদিন ধরে লক্ষ করেছি যে, প্রতিদিন খাবারের সন্ধানে আপনাকে কত না কষ্ট করতে হয়। আমরা চাই আপনি এখন থেকে গুহাতে বসে থাকবেন। আমরা আপনার জন্য খাবারের ব্যবস্থা করে দেব। আমরা পালাক্রমে আপনার জন্য খাবার নিয়ে আসব। আর না হয় আমাদের মধ্য থেকে কেউ কেউ খাবার হয়ে আপনার সামনে হাজির হব। আপনার মতো বাঘের পেটে যেতে পারলে আমরা নিজেদের ধন্য মনে করব। কিন্তু সমস্যা হলো…?  : কী সমস্যা? বল আমাকে কী করতে হবে?  : বলছিলাম কী রাজা মশাই, বনের মধ্যে কতগুলো দুষ্টু সিংহ বাস করে। তারা আমাদের ধরে ধরে খেয়ে ফেলে। আপনাদের গায়ে তো অনেক শক্তি। একবার যদি ওদের সঙ্গে আপনারা লড়াই করতেন তাহলে তারা আর কেউ প্রাণে বাঁচতো না। সিংহের সর্দার সব সময় নিজেকে বনের রাজা বলে দাবি করে। ওই সর্দার আপনাকে খুব হিংসা করে। ওকে একটা উপযুক্ত শাস্তি দিতে হবে। তাছাড়া সিংহদের মৃত্যু হলে আপনাদের খাবারের আর কোনো চিন্তা করতে হবে না। 


: হ্যাঁ, ঠিক বলেছিস। সিংহের সর্দারের বড্ড বাড় বেড়েছে। ওকে একটা উপযুক্ত শাস্তি দেয়া দরকার। রাজা হওয়ার সাধ যেন ওর চিরতরে মিটে যায়। তুই একটা কাজ কর। ওই দুষ্টু সিংহের সর্দারের সঙ্গে আমার একটা লড়াইয়ের ব্যবস্থা করে দে।  : অবশ্যই দেব। আপনি কোনো চিন্তা করবেন না। বনের সব পশুপাখি আপনার পক্ষে রয়েছে। রাজা মশাই, অনুমতি দিলে এখন আসতে পারি?  : ঠিক আছে যা। তবে যা বললাম তা যেন মনে থাকে।  খরগোশ বাঘের কাছ থেকে বিদায় নিয়ে সিংহের সর্দারের উদ্দেশে রওনা দিল। সিংহের বিরুদ্ধে খরগোশ বাঘের সর্দারকে যেভাবে কান ভাঙিয়েছে ঠিক সেভাবেই বাঘের বিরুদ্ধে সিংহের সর্দারের কান ভাঙালো। খরগোশের কথা শুনে বাঘের প্রতি সিংহটি ভীষণ রেগে গেল। সিংহ বললো


: তাহলে বাঘের সঙ্গে লড়াই করার জন্য দ্রুত একটা ব্যবস্থা করে ফেল। আমি লড়াইয়ের মাধ্যমে প্রমাণ দিতে চাই কার শক্তি বেশি। বাঘকে একটা উপযুক্ত শিক্ষা দিতেই হবে।  যাহোক, বাঘ-সিংহের লড়াইয়ের জন্য একটা দিন ধার্য করা হলো। ওইদিন বনের সব পশু-পাখি উপস্থিত হলো। বনে যত বাঘ-সিংহ ছিল তারাও লড়াই মাঠে উপস্থিত হলো। সবাই লড়াই দেখার জন্য মাঠের চারদিকে গোল হয়ে দাঁড়িয়ে আছে। তারা অপেক্ষা করছে কখন লড়াই শুরু হবে। প্রথমে বাঘ ও সিংহের সর্দারের মধ্যে লড়াই শুরু হলো। দু’জনায় প্রচণ্ড শক্তিশালী। লড়াই করতে করতে তারা হাঁপিয়ে গেল। এক পর্যায়ে তারা মরার মতো হয়ে গেল।


সর্দারের মৃত্যু হবে এটা কোনোভাবেই মানা যায় না। তাই উপস্থিত অন্যান্য বাঘ ও সিংহরাও লড়াইয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ল। শুরু হলো প্রচণ্ড লড়াই। দীর্ঘ সময় লড়াই চলল। এতে বেশিরভাগ বাঘ-সিংহের মৃত্যু হলো। মাত্র কয়েকটি বাঘ-সিংহ কোনোরকমে প্রাণে বেঁচে থাকল। লড়াই করার মতো তাদের গায়ে তখন কোনো শক্তি-সামর্থ্য ছিল না। সন্ধ্যার আগে আগে লড়াই শেষ হলো। তারা মরার মতো মাঠের ভেতর পড়ে থাকল। তারপর পশু-পাখিরা যে যার মতো বাড়িতে ফিরে গেল।  পরেরদিন সকালে পশু-পাখিরা লড়াই মাঠে গিয়ে দেখল যে, গতকাল যেসব বাঘ-সিংহ জীবিত ছিল তারা কেউই বেঁচে নেই। অর্থাৎ গতকালের লড়াইয়ে বনের সব বাঘ-সিংহের মৃত্যু হয়। সব বাঘ-সিংহের মৃত্যু হওয়ায় বনের পশু-পাখিরা খুব খুশি হলো। তারা খরগোশকে ধন্যবাদ জানাল। এরপর থেকে পশু-পাখিরা নির্ভয়ে বনের মধ্যে সুখে-শান্তিতে জীবনযাপন করতে থাকল।

All News Report

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

শাকিল বাড়ি ফিরেছে,তবে মৃত

শাকিল বাড়ি ফিরেছে,তবে মৃত

দেশের বাজারে বর্তমান স্বর্ণের দাম

দেশের বাজারে বর্তমান স্বর্ণের দাম

স্মৃতির পাতায় অমলিন প্রিয় ক্যাম্পাস

স্মৃতির পাতায় অমলিন প্রিয় ক্যাম্পাস

নূরদের বিরুদ্ধে মামলাকারী তরুণীর এবার শাহবাগ থানায় মামলা

নূরদের বিরুদ্ধে মামলাকারী তরুণীর এবার শাহবাগ থানায় মামলা

পাপিয়া দম্পতির যাবজ্জীবন সাজা দাবি রাষ্ট্রপক্ষের

পাপিয়া দম্পতির যাবজ্জীবন সাজা দাবি রাষ্ট্রপক্ষের

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০ লক্ষ টাকার বীমা দাবী প্রদান করেছে প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০ লক্ষ টাকার বীমা দাবী প্রদান করেছে প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স

রোববার থেকে সৌদির নতুন ভিসা

রোববার থেকে সৌদির নতুন ভিসা

সুনামগঞ্জ সমাচার

সুনামগঞ্জ সমাচার

বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ  মামলার তথ্য ও প্রমাণাদী চেয়ে তদন্ত কমিটির জরুরি প্রেস বিজ্ঞপ্তি

বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ মামলার তথ্য ও প্রমাণাদী চেয়ে তদন্ত কমিটির জরুরি প্রেস বিজ্ঞপ্তি

প্রথম ম্যাচে জয় পায় কলকাতা নাইট রাইডার্স

প্রথম ম্যাচে জয় পায় কলকাতা নাইট রাইডার্স

দুর্নীতি দমনে প্রধানমন্ত্রীকে পরামর্শ দিলেন ড. জাফরুল্লাহ

দুর্নীতি দমনে প্রধানমন্ত্রীকে পরামর্শ দিলেন ড. জাফরুল্লাহ

আত্মহত্যা !!

আত্মহত্যা !!

পেটের ব্যাথা সইতে না পেরে স্কুলছাত্রী কীটনাশক পানে আত্মহত্যা

পেটের ব্যাথা সইতে না পেরে স্কুলছাত্রী কীটনাশক পানে আত্মহত্যা

ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ মামলায় বিবিসির সাংবাদিকের সাক্ষ্য

ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ মামলায় বিবিসির সাংবাদিকের সাক্ষ্য

মোদির বাংলাদেশ নীতির সমালোচনায় রাহুল গান্ধী

মোদির বাংলাদেশ নীতির সমালোচনায় রাহুল গান্ধী

সর্বশেষ

ষড়যন্ত্রই বিএনপির রাজনৈতিক দর্শন : ওবায়দুল কাদের

ষড়যন্ত্রই বিএনপির রাজনৈতিক দর্শন : ওবায়দুল কাদের

প্রগতি লাইফের ৪লক্ষ ৯৬হাজার টাকার বীমাদাবী পরিশোধ

প্রগতি লাইফের ৪লক্ষ ৯৬হাজার টাকার বীমাদাবী পরিশোধ

মানুষ মত দেখতে অদ্ভুত প্রাণীটির দেখা মিলল পৃথিবীতে!

মানুষ মত দেখতে অদ্ভুত প্রাণীটির দেখা মিলল পৃথিবীতে!

কক্সবাজার জেলায় ৮ থানার ওসিসহ ২৬৪ জন পুলিশ কর্মকর্তার বদলি!

কক্সবাজার জেলায় ৮ থানার ওসিসহ ২৬৪ জন পুলিশ কর্মকর্তার বদলি!

লক্ষ্মীপুরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রধান শিক্ষকের মৃত্যু

লক্ষ্মীপুরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রধান শিক্ষকের মৃত্যু

লক্ষ্মীপুরে কলেজ ছাত্রের ঝুলন্ত লাশ উদ্দার!

লক্ষ্মীপুরে কলেজ ছাত্রের ঝুলন্ত লাশ উদ্দার!

রাজশাহী মেয়রের উদ্যোগে নতুন রূপ পাচ্ছে ঐতিহ্যবাহী সোনাদীঘি

রাজশাহী মেয়রের উদ্যোগে নতুন রূপ পাচ্ছে ঐতিহ্যবাহী সোনাদীঘি

দীপিকার হাজিরাতে হতে পারে বিশৃঙ্খলা? কঠোর নিরাপত্তায় ঘেরা হচ্ছে NCB-র অফিস!

দীপিকার হাজিরাতে হতে পারে বিশৃঙ্খলা? কঠোর নিরাপত্তায় ঘেরা হচ্ছে NCB-র অফিস!

সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির স্ত্রীর মৃত্যুতে শেখ আব্দুল আজিজের শোক প্রকাশ

সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির স্ত্রীর মৃত্যুতে শেখ আব্দুল আজিজের শোক প্রকাশ

আজমিরীগঞ্জে বিয়ের প্রলোভনে কিশারী ধর্ষণ, আটক ১

আজমিরীগঞ্জে বিয়ের প্রলোভনে কিশারী ধর্ষণ, আটক ১

ভয়ংকর পরিকল্পনা ছিলো ট্রাম্পের

ভয়ংকর পরিকল্পনা ছিলো ট্রাম্পের

সাতক্ষীরায় প্রতারণার অভিযোগে পিতা পুত্রসহ আটক আরও দুইজন

সাতক্ষীরায় প্রতারণার অভিযোগে পিতা পুত্রসহ আটক আরও দুইজন

বয়স্ক ভাতার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে

বয়স্ক ভাতার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে

ভারতে নিষিদ্ধ হচ্ছে জাকির নায়েকের পিস টিভি ও ইউটিউব চ্যানেল

ভারতে নিষিদ্ধ হচ্ছে জাকির নায়েকের পিস টিভি ও ইউটিউব চ্যানেল

নবীনগরে পৃথক আদেশে ইউএনও-ওসি বদলী

নবীনগরে পৃথক আদেশে ইউএনও-ওসি বদলী