Feedback

খোলা কলাম, গল্পসল্প

নাসিরুদ্দিন হোজ্জার গল্প সংগ্রহ - ০৩

নাসিরুদ্দিন হোজ্জার গল্প সংগ্রহ - ০৩
September 13
07:29pm
2020
Md. Nayeem Uddin Khan
Khilgaon, Dhaka, প্রতিনিধি:
Eye News BD App PlayStore

১৫) ভেবেছিলাম তুমি অশুভ

রাজার মেজাজ খারাপ। রাজপ্রাসাদ থেকে বেরিয়ে শিকারে যাওয়ার পথে হোজ্জা সামনে পড়ে গেলেন।

‘শিকারে যাওয়ার পথে হোজ্জার সামনে পড়ে যাওয়াটা আমার ভাগ্যের জন্য খারাপ’, প্রহরীদের রাগত গলায় বললেন রাজা। ‘আমার দিকে ওকে তাকাতে দিয়ো না-চাবুকপেটা করে ওকে পথ থেকে সরিয়ে দাও।’

প্রহরীরা তা-ই করল।

শিকার কিন্তু ভালোই হলো।

রাজা হোজ্জাকে ডেকে পাঠালেন।

‘আমি সত্যি দুঃখিত, হোজ্জা। ভেবেছিলাম তুমি অশুভ। কিন্তু তুমি তা নও।’

‘আপনি ভেবেছিলেন আমি অশুভ!’ হোজ্জা বললেন। ‘আপনি আমাকে দেখার পর ভালো শিকার করেছেন। আর আমি আপনাকে দেখে চাবুকপেটা খেয়েছি। কে যে কার অশুভ, বুঝলাম না।’


১৬) আমি একজন চোরাচালানি

গাধার পিঠে চেপে হোজ্জা প্রায়ই ইরান, গ্রিস চলে যান। প্রতিবারই গাধার পিঠে দুই বোঝা খড় চাপিয়ে নিয়ে যেতেন এবং ফিরে আসতেন পায়ে হেঁটে। প্রতিবার তাঁকে তল্লাশি করা হতো বেআইনি সামগ্রীর খোঁজে। কিছুই পাওয়া যেত না।

‘কী নিয়ে যান আপনি, হোজ্জা?’

‘আমি একজন চোরাচালানি।’

কয়েক বছর পর হোজ্জার অবস্থা আরও রমরমা। মিসরের উদ্দেশে রওনা দিলেন। সেখানে একদিন এক সীমান্তরক্ষী তাঁর সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন।

‘বলুন হোজ্জা, কী করে গ্রিস ও ইরানের আইন ফাঁকি দিয়ে গেলেন আর এখানেও বেশ ভালোই আছেন, কী চোরাচালান করতেন যে কখনোই ধরা যেত না?’

‘গাধা।’


১৭) তুর্কোমানের ষাঁড়

এক তুর্কোমানের ষাঁড় হোজ্জার বাগানের বেড়া ভেঙে ভেতরে ঢুকে তছনছ করে দিয়ে মালিকের কাছে ফিরে গেল। হোজ্জা পুরো ব্যাপারটা লক্ষ করলেন, তারপর একটা বেত নিয়ে বেরিয়ে এসে ষাঁড়টাকে পেটাতে শুরু করলেন।

‘কোন সাহসে আমার ষাঁড়কে আপনি পেটাচ্ছেন!’ তুর্কোমান চেঁচিয়ে বলল।

‘কিছু মনে করবেন না আপনি’, হোজ্জা বললেন, ‘ও পুরো ব্যাপারটা জানে। এটা ওর আর আমার ব্যাপার!’


১৮) অতিথিপরায়ণ ব্যক্তি

একদিন এক চায়ের স্টলে হোজ্জা সবাইকে বললেন, ‘আমি একজন অতিথিপরায়ণ ব্যক্তি।’

‘বেশ, তাহলে আজ দুপুরে আমাদের সবাইকে খাওয়ান’, সবচেয়ে চতুরজন কথাটা বলল।

হোজ্জা তাদের নিয়ে নিজ বাসার দিকে রওনা দিলেন।

বাড়ির কাছে এসে হোজ্জা বললেন, ‘আমি আগে আগে বাসায় গিয়ে স্ত্রীকে বলি আর তোমরা আসতে থাকো।’

খবরটা শোনার পর স্ত্রী রেগে আগুন, ‘ঘরে কোনো খাবার নেই, ওদের ফিরে যেতে বলো।’

‘তা পারব না, আমি যে অতিথিপরায়ণ, তার একটা সুনাম আছে।’

‘বেশ, তাহলে তুমি ওপরের তলায় গিয়ে বসো; আমি ওদের বলছি তুমি বেরিয়ে গেছ, বাড়িতে নেই।’

এক ঘণ্টা পর অতিথিরা এসে দরজায় ধাক্কা দিল আর বলতে লাগল, ‘আমাদের ভেতরে ঢুকতে দাও হোজ্জা।’

হোজ্জার স্ত্রী দরজা খুলে বেরিয়ে এলেন।

‘হোজ্জা তো বাড়ি নেই।’

‘সেকি আমরা তো তাকে বাড়িতে ঢুকতে দেখেছি আর দরজার দিকে লক্ষ রেখেছি তার ঢোকার পর থেকে। বের তো হয়নি।’

স্ত্রী চুপ করে গেলেন।

ওপরতলার জানালা দিয়ে হোজ্জা পুরোটাই দেখছিলেন। নিজেকে ধরে রাখতে না পেরে জানালা দিয়ে ঝুঁকে বললেন, ‘আমি কি পেছনের দরজা দিয়ে বাইরে যেতে পারি না?’


১৯) মরুভূমিতে দৌড়

‘আমি যখন মরুভূমিতে গিয়েছিলাম তখন আমার কারণে একটি বেদুইন গোষ্ঠী দৌড়ের ওপর ছিল।’ একদিন হোজ্জা বললেন সবাইকে গর্বের সঙ্গে।

‘কিন্তু কীভাবে?’

‘একেবারে সহজ। হঠাৎ ওদের সামনে দিয়ে যেই দৌড় লাগিয়েছি, অমনি পুরো দলটা আমার পিছু পিছু দৌড় লাগাল, ব্যস।’


২০) তুমি একটা নেকড়ে

হোজ্জার এক প্রতিবেশী শিকারে গিয়ে নেকড়ের কবল থেকে এক ভেড়াকে বাঁচিয়ে বাড়ি নিয়ে আসে, পালবে বলে। শিকারির যত্নে ভেড়াটি দিন দিন নাদুস-নুদুস হয়ে উঠল। একদিন শিকারির লোভ হলো ভেড়ার মাংস খাওয়ার জন্য। তাই জবাই করতে উদ্যত হতেই ভেড়াটি ভয়ে বিকট শব্দে চিত্কার জুড়ে ছিল। ভেড়ার চিত্কারে হোজ্জার ঘুম গেল ভেঙে। ব্যাপারটা বোঝার জন্য সঙ্গে সঙ্গে প্রতিবেশীর বাড়িতে ছুটে গেলেন হোজ্জা।

হোজ্জাকে দেখে শিকারি প্রতিবেশী লজ্জিত গলায় বললেন, ‘এই ভেড়াটার প্রাণ বাঁচিয়ে ছিলাম একবার।’

‘তাহলে ও তোমাকে গালি দিচ্ছে কেন?’

‘গালি দিচ্ছে?’

‘ভেড়া বলছে, “তুমি একটা নেকড়ে”।’


২১) স্মৃতিশক্তি বাড়ানোর ওষুধ

হোজ্জা একবার স্মৃতিশক্তি বাড়ানোর জন্য এক হেকিমের কাছ থেকে ওষুধ নিয়েছিলেন।

কয়েক মাস পর হোজ্জা তাঁর হেকিমের কাছে গেলেন ওই ওষুধ আনার জন্য।

‘আচ্ছা, গতবার তোমাকে কী ওষুধ দিয়েছিলাম, একেবারেই মনে করতে পারছি না।’

‘তাহলে ওই ওষুধ এখন থেকে আপনি নিজেই খাবেন’, হোজ্জা বিনীত গলায় বললেন।


২২) কে বেশি পেটুক

নাসিরুদ্দিন হোজ্জার বাড়িতে তাঁর কিছু বন্ধু এসেছেন। অতিথিদের তরমুজ দিয়ে আপ্যায়ন করলেন হোজ্জা। বন্ধুদের সঙ্গে খেতে বসলেন হোজ্জা নিজেও।

হোজ্জার পাশেই বসেছিলেন তাঁর এক দুষ্টু বন্ধু। তরমুজ খেয়ে খেয়ে বন্ধুটি হোজ্জার সামনে তরমুজের খোসা রাখছিলেন। খাওয়া শেষে দেখা গেল, হোজ্জার সামনে তরমুজের খোসার স্তূপ।

দুষ্টু বন্ধুটি অন্যদের বললেন, ‘দেখেছেন কাণ্ড? হোজ্জা কেমন পেটুক? তার সামনে তরমুজের খোসার স্তূপ হয়ে গেছে’!

হোজ্জা হেসে বললেন, ‘আর আমার বন্ধুটির সামনে দেখছি একটা খোসাও নেই! উনি খোসাশুদ্ধ খেয়েছেন! এখন আপনারাই বলুন, কে বেশি পেটুক!’

----------------চলবে....

All News Report

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

নিখোঁজের ২০ ঘন্টা পর  আমতলীতে যুবকের মরদেহ উদ্ধার

নিখোঁজের ২০ ঘন্টা পর আমতলীতে যুবকের মরদেহ উদ্ধার

শাকিল বাড়ি ফিরেছে,তবে মৃত

শাকিল বাড়ি ফিরেছে,তবে মৃত

মানুষ মত দেখতে অদ্ভুত প্রাণীটির দেখা মিলল পৃথিবীতে!

মানুষ মত দেখতে অদ্ভুত প্রাণীটির দেখা মিলল পৃথিবীতে!

নূরদের বিরুদ্ধে মামলাকারী তরুণীর এবার শাহবাগ থানায় মামলা

নূরদের বিরুদ্ধে মামলাকারী তরুণীর এবার শাহবাগ থানায় মামলা

দেশের বাজারে বর্তমান স্বর্ণের দাম

দেশের বাজারে বর্তমান স্বর্ণের দাম

স্তন  নিয়ে  প্রশ্ন করায় বেজয় চটে গেলেন শার্লিন চোপড়া

স্তন নিয়ে প্রশ্ন করায় বেজয় চটে গেলেন শার্লিন চোপড়া

স্মৃতির পাতায় অমলিন প্রিয় ক্যাম্পাস

স্মৃতির পাতায় অমলিন প্রিয় ক্যাম্পাস

পাপিয়া দম্পতির যাবজ্জীবন সাজা দাবি রাষ্ট্রপক্ষের

পাপিয়া দম্পতির যাবজ্জীবন সাজা দাবি রাষ্ট্রপক্ষের

রোববার থেকে সৌদির নতুন ভিসা

রোববার থেকে সৌদির নতুন ভিসা

বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ  মামলার তথ্য ও প্রমাণাদী চেয়ে তদন্ত কমিটির জরুরি প্রেস বিজ্ঞপ্তি

বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ মামলার তথ্য ও প্রমাণাদী চেয়ে তদন্ত কমিটির জরুরি প্রেস বিজ্ঞপ্তি

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০ লক্ষ টাকার বীমা দাবী প্রদান করেছে প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০ লক্ষ টাকার বীমা দাবী প্রদান করেছে প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স

সুনামগঞ্জ সমাচার

সুনামগঞ্জ সমাচার

আত্মহত্যার কারণ ও তার সুস্পষ্ট সমাধান

আত্মহত্যার কারণ ও তার সুস্পষ্ট সমাধান

পেটের ব্যাথা সইতে না পেরে স্কুলছাত্রী কীটনাশক পানে আত্মহত্যা

পেটের ব্যাথা সইতে না পেরে স্কুলছাত্রী কীটনাশক পানে আত্মহত্যা

অখ্যাত স্কুলের বিখ্যাত শিক্ষকঃ একজন হামিদ স্যার

অখ্যাত স্কুলের বিখ্যাত শিক্ষকঃ একজন হামিদ স্যার

সর্বশেষ

মিয়ানমারের সঙ্গে যোগাযোগ করার পরামর্শ: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

মিয়ানমারের সঙ্গে যোগাযোগ করার পরামর্শ: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

এবার স্বর্ণপদক জিতলো ইঁদুর!

এবার স্বর্ণপদক জিতলো ইঁদুর!

বাংলাদেশের ২ জেলা যুক্ত করে নেপালের নতুন মানচিত্র প্রকাশ!

বাংলাদেশের ২ জেলা যুক্ত করে নেপালের নতুন মানচিত্র প্রকাশ!

পৃথিবী রক্ষায় শেখ হাসিনার পাঁচ প্রস্তাব

পৃথিবী রক্ষায় শেখ হাসিনার পাঁচ প্রস্তাব

৫৪,০০০ রোহিঙ্গাকে পাসপোর্ট দিতে সৌদির চাপ: কি করবে বাংলাদেশ

৫৪,০০০ রোহিঙ্গাকে পাসপোর্ট দিতে সৌদির চাপ: কি করবে বাংলাদেশ

এই দিন দিন না সামনে আরো দিন আছে কি বললেন: রিজভী

এই দিন দিন না সামনে আরো দিন আছে কি বললেন: রিজভী

পুঁজিবাজারে চলতি বছর আসছে না ২৭ বিমা কোম্পানি

পুঁজিবাজারে চলতি বছর আসছে না ২৭ বিমা কোম্পানি

ভূমিহীন ও নাগরিক অধিকার ভিত্তিক নেতা এড. আব্দুর রহিমের মৃত্যু বার্ষিকী পালিত

ভূমিহীন ও নাগরিক অধিকার ভিত্তিক নেতা এড. আব্দুর রহিমের মৃত্যু বার্ষিকী পালিত

তারা যতই ষড়যন্ত্র করুক কিন্তু সফল হবে না

তারা যতই ষড়যন্ত্র করুক কিন্তু সফল হবে না

১২৪ বোতল ফেন্সিডিলসহ ২জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

১২৪ বোতল ফেন্সিডিলসহ ২জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

ইতিহাসের আজকের দিনে

ইতিহাসের আজকের দিনে

নিখোঁজের ২০ ঘন্টা পর  আমতলীতে যুবকের মরদেহ উদ্ধার

নিখোঁজের ২০ ঘন্টা পর আমতলীতে যুবকের মরদেহ উদ্ধার

''মুসলিম হয়েও পুজো নিয়ে পোস্ট!''

''মুসলিম হয়েও পুজো নিয়ে পোস্ট!''

যুবানকে আদরে করে শুভশ্রী বললেন 'মাই লিভিং ডল', ভাইরাল ছবি

যুবানকে আদরে করে শুভশ্রী বললেন 'মাই লিভিং ডল', ভাইরাল ছবি

দেশের বিভিন্নস্থানে বৃষ্টির পূর্বাভাস, সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত

দেশের বিভিন্নস্থানে বৃষ্টির পূর্বাভাস, সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত