Feedback

সারাবিশ্ব

নিহত কঙ্গোর দাঁত ছাড়া এর কিছুই অবশিষ্ট ছিল না

নিহত কঙ্গোর দাঁত ছাড়া এর কিছুই অবশিষ্ট ছিল না
September 13
05:12pm
2020

আই নিউজ বিডি ডেস্ক Verify Icon
Eye News BD App PlayStore

আততায়ীর হাতে নিহত কঙ্গোর স্বাধীনতার নায়ক এবং প্রথম প্রধানমন্ত্রী প্যাট্রিস লুমুম্বার মরদেহের একটি দাঁত ছাড়া এর কিছুই অবশিষ্ট ছিল না৷ এবার সেটিই তার পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বেলজিয়াম৷  কয়েক দশক ধরে এ রায়ের মাধ্যমে কঙ্গোর সঙ্গে বেলজিয়ামের দেনদরবার চলছিল৷ দীর্ঘ আইনি লড়াইয়ের পর লুমুম্বার পরিবার অবশেষে জয় পেয়েছে৷ বেলজিয়ামের এক আদালত তার মরদেহের অবশিষ্টাংশ কঙ্গোয় তার পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেয়ার রায় দিয়েছে৷ 

১৯৬০ সালে ঔপনিবেশিক শাসনের বিরুদ্ধে লড়াই করে মাত্র ৩৪ বছর বয়সে সদ্য স্বাধীন কঙ্গোর প্রথম প্রধানমন্ত্রী হন প্যাট্রিস লুমুম্বা৷ কয়েক মাস পরই সেনা অভ্যুত্থানে ক্ষমতা দখল করেন সেনাপ্রধান মোবুতু সেসে সেকো৷

তখন লুমুম্বাকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠানো হয়৷ বিচ্ছিন্নতাবাদীরা ১৯৬১ সালে তাকে ফায়ারিং স্কোয়াডে হত্যা করে৷ এমনকি যাতে তার কবর তীর্থস্থানে পরিণত না হয়, সেজন্য লুমুম্বার মরদেহও অ্যাসিডে পুড়িয়ে দেয়া হয়৷  জানা যায়, মরদেহ পুড়িয়ে ফেলার পর সেখানে উপস্থিত থাকা এক পুলিশ কর্মকর্তা সে দাঁত সরিয়ে নিজের কাছে রেখে দিয়েছিলেন৷

এ দাঁত সত্যিই লুমুম্বার কিনা তা নিশ্চিত হতে প্রয়োজন ডিএনএ টেস্ট৷ কিন্তু বেলজিয়ামের ফেডারেল প্রসিকিউটরের দপ্তরের মুখপাত্র এরিক ফন ডুয়েসে জানান, এই দাঁতের ডিএনএ পরীক্ষা করার উপায় নেই৷ তিনি বলেন, ‘এমন টেস্ট করতে গেলে দাঁতটাই নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থেকে যায়৷’ বিচারকেরা অবশ্য যেখান থেকে এই দাঁত উদ্ধার করা হয়েছে, তাতে এটি যে লুমুম্বারই তা নিশ্চিত হয়েছেন৷

তবে এ বিষয়ে ডুয়েসে বিস্তারিত জানাতে রাজি হননি৷ প্যাট্রিস লুমুম্বার মেয়ে জুলিয়ানা জানিয়েছেন, এই রায়ে তার পরিবার অনেক খুশি হয়েছে৷ এটা একটা দারুণ বিজয়৷ যে দেশ ও দেশের স্বাধীনতার জন্য আমার বাবা প্রাণ দিয়েছেন, মৃত্যুর ৬০ বছর পর তার মরদেহের অবশিষ্টাংশ তার পূর্বপুরুষের মাটিতে ফেরত আসছে৷ প্যাট্রিস লুমুম্বার ছেলে ফ্রাঁসোয়া লুমুম্বা বলেন, তিনি মনে করেন বেলজিয়াম সরকারের উচিত দ্রুত এই দাঁত কঙ্গোর রাজধানী কিনশাসায় পাঠানোর উদ্যোগ নেয়া৷ সূত্র: ডয়েচে ভেলে।

All News Report

সম্পর্কিত সংবাদ

ট্রেন্ডিং

বরগুনার রিফাত হত্যাঃ স্ত্রী মিন্নিসহ ৬ জনের মৃত্যুদণ্ড

বরগুনার রিফাত হত্যাঃ স্ত্রী মিন্নিসহ ৬ জনের মৃত্যুদণ্ড

সীমান্তে নিখোঁজ হওয়ার ১১ দিন পর মৃতদেহ উদ্ধার

সীমান্তে নিখোঁজ হওয়ার ১১ দিন পর মৃতদেহ উদ্ধার

যাদের ভিসার মেয়াদ শেষ তাদের বিষয়ে কিছু করার নেই: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

যাদের ভিসার মেয়াদ শেষ তাদের বিষয়ে কিছু করার নেই: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

মাধ্যমিকে ফেল করা মাহাবুব এখন সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র

মাধ্যমিকে ফেল করা মাহাবুব এখন সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র

মিন্নিসহ সব আসামীদের সাজা চাইলেন রিফাতের বোন

মিন্নিসহ সব আসামীদের সাজা চাইলেন রিফাতের বোন

রিফাত হত্যার মাস্টারমাইন্ড মিন্নি: রাষ্ট্রপক্ষ

রিফাত হত্যার মাস্টারমাইন্ড মিন্নি: রাষ্ট্রপক্ষ

ইউএনও ওয়াহিদা খানম হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাচ্ছেন

ইউএনও ওয়াহিদা খানম হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাচ্ছেন

মাজহারের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুললেন শাওন

মাজহারের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুললেন শাওন

৩০ দিনের মধ্যে জাহালমকে ১৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেবে ব্র্যাক ব্যাংক

৩০ দিনের মধ্যে জাহালমকে ১৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেবে ব্র্যাক ব্যাংক

মিনিকেট চালের দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে খাদ্য মন্ত্রণালয়

মিনিকেট চালের দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে খাদ্য মন্ত্রণালয়

বিএনপির সাবেক সভাপতি লৎফর রহমান মিন্টুর ইন্তিকাল

বিএনপির সাবেক সভাপতি লৎফর রহমান মিন্টুর ইন্তিকাল

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটি বৃদ্ধি নিয়ে যা বললেন মন্ত্রী

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটি বৃদ্ধি নিয়ে যা বললেন মন্ত্রী

খাদ্যনালী কেটে ফেললেন নার্স, সংকটাপন্ন রুগি

খাদ্যনালী কেটে ফেললেন নার্স, সংকটাপন্ন রুগি

স্পর্শকাতর স্থানে হাত ডান্স গুরুর, যা বললেন নোরা

স্পর্শকাতর স্থানে হাত ডান্স গুরুর, যা বললেন নোরা

রাজশাহীতে কিশোরী ধর্ষণ মামলায় বরখাস্ত ফাদার গ্রেপ্তার

রাজশাহীতে কিশোরী ধর্ষণ মামলায় বরখাস্ত ফাদার গ্রেপ্তার

সর্বশেষ

গল্প

গল্প

ভারতের স্থলবন্দর খুলে দেয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ভারতের স্থলবন্দর খুলে দেয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

স্টপেজ

স্টপেজ

দেশের মানুষ ধর্ষণ, দূর্নীতি ও টাকা পাচারের ভোগান্তির স্বীকার হচ্ছেঃ ভিপি নুর

দেশের মানুষ ধর্ষণ, দূর্নীতি ও টাকা পাচারের ভোগান্তির স্বীকার হচ্ছেঃ ভিপি নুর

মাদ্রাসায় কর্মচারী নিয়োগ: ৬পদে ৪জন চেয়ারম্যান পরিবারের লোক!

মাদ্রাসায় কর্মচারী নিয়োগ: ৬পদে ৪জন চেয়ারম্যান পরিবারের লোক!

ফুসফুস ভালো রেখে জীবনযাপন করার জন্য এই ৭টি খাবার খাওয়া উচিৎ

ফুসফুস ভালো রেখে জীবনযাপন করার জন্য এই ৭টি খাবার খাওয়া উচিৎ

সজিনা পাতার গুণাগুণ

সজিনা পাতার গুণাগুণ

ডিমলায় ঢাকা সেচ্ছাসেবী সংগঠনের সমন্বয় বৃক্ষ ও টিউবওয়েল বিতরণ

ডিমলায় ঢাকা সেচ্ছাসেবী সংগঠনের সমন্বয় বৃক্ষ ও টিউবওয়েল বিতরণ

ঠাকুরগাঁওয়ে নিজের বলার মতো গল্প ফাউন্ডেশনের হাজার তম দিন উদযাপন

ঠাকুরগাঁওয়ে নিজের বলার মতো গল্প ফাউন্ডেশনের হাজার তম দিন উদযাপন

হবিগঞ্জের জি কে গউছের নাকে অস্ত্রোপাচার

হবিগঞ্জের জি কে গউছের নাকে অস্ত্রোপাচার

পদ্মায় নৌকাডুবি থামবে কবে?

পদ্মায় নৌকাডুবি থামবে কবে?

আজমিরীগঞ্জে ভেঙ্গে যাওয়া রাস্তা মেরামতের উদ্যোগ নিলো উপজেলা প্রশাসন

আজমিরীগঞ্জে ভেঙ্গে যাওয়া রাস্তা মেরামতের উদ্যোগ নিলো উপজেলা প্রশাসন

দুর্নীতি ও দুঃশাসন ছাড়া এই সরকারের বড় অর্জন কিছুই নেই : ডা: শাহাদাত

দুর্নীতি ও দুঃশাসন ছাড়া এই সরকারের বড় অর্জন কিছুই নেই : ডা: শাহাদাত

কুমিল্লার নগর উদ্যান থেকে গরীব শিশুরা বঞ্চিত, রাইডে চরলে গুনতে হবে টাকা

কুমিল্লার নগর উদ্যান থেকে গরীব শিশুরা বঞ্চিত, রাইডে চরলে গুনতে হবে টাকা

সাভারে আবারও এক নারী শ্রমিক গণধর্ষণের শিকার

সাভারে আবারও এক নারী শ্রমিক গণধর্ষণের শিকার