About Us
Md. Sorif Uddin - (Sylhet)
প্রকাশ ৩১/০৮/২০২০ ০৯:০৭পি এম

ছোট ছেলের পর ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলেন মা-বাবা ও ভাই

ছোট ছেলের পর ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলেন মা-বাবা ও ভাই Ad Banner

দুই বছর আগে ঘরের ছোট ছেলে সনাতন ধর্ম ত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার পর এবার ওই পরিবারের আরও ৩ জন সদস্য ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন। ঘটনাটি সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার পৌর শহরের ইকড়ছই গ্রামে। ঘরের ছোট ছেলে মো. সুলেমান হোসেন সৈকত (সুদীপ কর) ২০১৮ সালে সনাতন ধর্ম ত্যাগ করার ২ বছর পর তার বাবা-মা ও বড়ভাই ইসলাম ধর্ম গ্রহন করেন।  শনিবার (২৯ আগস্ট) সকালে জগন্নাথপুর উপজেলায় বিশিষ্ট আলেম আব্দুল লতিফ চৌধুরী ফুলতলি (ফুলতলি সাহেব) এর দ্বিতীয় ছেলে সাহেবজাদা মাওলানা নজমুদ্দিন চৌধুরীর মাধ্যমে পরিবারের বাকি সদস্যরা ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন।


এ সময় মো. সুলেমান হোসেন সৈকতের বাবা কবিন্ড করের নাম রাখা হয় মো. ইব্রাহিম হোসেন, মায়ের নাম অনিতা রানী দাস থেকে মোছা. রহিমা বিবি ও সুলেমনা মিয়ার বড় ভাই রতন করের নাম রাখা হয় মো. ইসমাইল হোসেন।  পরিবার সূত্রে জানা যায়, জগন্নাথপুর উপজেলার পৌর শহরে ইকড়ছই গ্রামে ব্যবসায়ী কবিন্ড রায় বতর্মান মো. ইব্রাহিম হোসেনের ছোট ছেলে বর্তমান সুলেমান হোসেন সৈকত ২ বছর আগে সনাতন ধর্ম ত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে। ধর্মত্যাগ করা নিয়ে তার পরিবারের মধ্যে কোনও সমস্যা না থাকায় পরিবারের সাথেই থাকতে তাকে সৈকত। পরিবারের সাথে থাকায় সে প্রথমেই ইসলামের বার্তা নিজের ঘরেই পৌছাতে শুরু করে।


প্রথমদিকে তার পরিবারের কোন সদস্য রাজি না হলেও তার দীর্ঘ চেষ্টার এক পর্যায়ে গেল শুক্রবার তার পরিবারের সকল সদস্য রাজি হন ইসলাম ধর্ম গ্রহণের জন্য। ওইদিন বিকেলেই সুলেমান হোসেন সৈকত তার পরিবারের সদস্যদের নিয়ে সাহেবজাদা মাওলানা নজমুদ্দিন চৌধুরীর বাড়িতে গেলে তিনি তাদের শনিবার সকালে এসে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার কথা জানান। উনার কথা মতোই শনিবার সকালে সুলেমান হোসেন সৈকত তার বাবা-মা ও বড় ভাইকে নিয়ে মওলানা সাহেবের বাসায় গেলে তিনি তাদের ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করান।  


২ বছর আগে ধর্মান্তরিত হওয়া মো. সুলেমান হোসেন সৈকত বলেন, আমি আমার বন্ধু ও বিভিন্ন সময়ে মানুষের কাছ থেকে শুনেছি ইসলাম ধর্ম শান্তির ধর্ম। পরবর্তীতে আমি এটি নিয়ে ভেবে দেখি এবং নিজেও ইসলাম ধর্ম সম্পর্কে পড়াশুনা করি এবং সেখান থেকেই ইসলাম ধর্মের প্রতি আমার ভালোবাসা তৈরি হয়। এজন্য আমি ২ বছর আগেই সনাতন ধর্ম ত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম ত্যাগ করি। ইসলাম ধর্মে চলে যাওয়ায় আমার পরিবার আমাকে ঘর থেকে বের করে দেয়নি। তারা আমাকে তাদের ছোট ছেলে মতোই রেখেছেন।


আমি বাড়িতে থেকেই নামাজ, রোজা ও কোরআন তেলাওয়াত করেছি। পরবর্তীতে আমি আমার ঘরের মানুষদের ইসলাম ধর্মের বার্তা পৌছাতে থাকি। এক সময় পরিবারের মানুষজন রাজি না হলেও একটা সময় তারা মেনে নেন। যার পরিপ্রেক্ষিতে গেল শনিবার আমার বাবা, মা ও বড় ভাই ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে। 


মো. সুলেমা হোসেনের বাবা ইব্রাহিম হোসেন বলেন, আমার ছেলে আগেই ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছে। তার ইসলাম ধর্মের প্রতি ভালোবাসা ও আমাদের ইসলাম ধর্ম সম্পর্কে বুঝাতে থাকে এবং আমরাও একসময় বুঝতে পারি ইসলাম ধর্ম শান্তির ধর্ম। বর্তমানে পরিবারের সবাই এখন ইসলাম ধর্ম গ্রহণকরেছি। আমরা আমাদের দোকানে নাম সুদীপ টি স্টল থেকে নাম থেকে ফুলতলি রেস্টুরেন্ট রেখেছি এবং মিলাদও পড়িয়েছি। আমাদের সবাই খুব সুন্দর করে গ্রহণ করে নিয়েছে।


শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ