About Us
M. Jobayed Mullick Bulbul
প্রকাশ ৩১/০৮/২০২০ ০৩:৪৭পি এম

টাঙ্গাইলে গৃহবধূকে হত্যার দায়ে স্বামী-শ্বশুরের মৃত্যুদণ্ড

টাঙ্গাইলে গৃহবধূকে হত্যার দায়ে স্বামী-শ্বশুরের মৃত্যুদণ্ড Ad Banner

টাঙ্গাইলে যৌতুক না পেয়ে তাছলিমা আক্তার নামে এক গৃহবধূকে হত্যার দায়ে তার স্বামী ও শ্বশুরকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। এছাড়াও দু’জনকেই এক লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। রায় ঘোষণার সময় দণ্ডিতরা আদালতে অনুপস্থিত ছিলেন। সোমবার (৩১ আগস্ট) দুপুরে টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক খালেদা ইয়াসমিন এ রায় দেন। দণ্ডপ্রাপ্তরা হচ্ছেন- নিহত ওই নারীর স্বামী জহিরুল ইসলাম (২৫) ও তার শ্বশুর মজনু মিয়া (৫৫)। আদালতের পরিদর্শক তানভীর আহমেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

 

মামলার বিবরণে প্রকাশ, বিগত ২০১৪ সালে টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলার তছলিম উদ্দিন তার মেয়ে তাছলিমা আক্তারকে (২১) একই উপজেলার মজনু মিয়ার ছেলে জহিরুল ইসলামের সঙ্গে বিয়ে দেন। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের জন্য তাছলিমাকে তার শ্বশুরবাড়ির লোকজন মারধর করতো।  


২০১৬ সালের ২৮ নভেম্বর তাছলিমাকে কোথাও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না বলে জহিরুল ইসলাম তার শ্বশুর তছলিমকে মোবাইল ফোনে জানায়। পরে ওইদিনই তছলিম উদ্দিন তার মেয়েকে না পাওয়ায় ভূঞাপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। পরদিন ২৯ নভেম্বর উপজেলার গোবিন্দাসী বাজারের পশ্চিম পাশে যমুনা নদীর পাড় থেকে পুলিশ তাছলিমার মরদেহ উদ্ধার করে। 

 

একই বছরের ১ ডিসেম্বর তার বাবা বাদী হয়ে ভূঞাপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ জহিরুল ইসলাম ও মজনু মিয়াকে গ্রেপ্তার করে। তারা আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। পরবর্তীকালে তারা জামিনে মুক্ত হন। সোমবার রায় ঘোষণার সময় তাদের আদালতে হাজির থাকার কথা থাকলেও উপস্থিত হননি। তাদের অনুপস্থিতিতেই রায় ঘোষণা করা হয়। বাদীপক্ষের আইনজীবী ছিলেন, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর (বিশেষ পিপি) নাছিমুল আক্তার নাছিম। আসামিপক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট খন্দকার ফায়েকুজ্জামান নাজিব।





শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ