নুরুজ্জামান 'লিটন' - (Naogaon)
প্রকাশ ২৬/০৩/২০২৩ ০৪:২৮পি এম

মাধ্যমিক শিক্ষা জাতীয়করণ আন্দোলনে এসে দুজন শিক্ষকের মৃত্যু;উপরমহল নিশ্চুপ

মাধ্যমিক শিক্ষা জাতীয়করণ আন্দোলনে এসে দুজন শিক্ষকের মৃত্যু;উপরমহল নিশ্চুপ
মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান (মাদ্রাসা,স্কুল ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান) জাতীয়করণের আন্দোলনে এসে দুই শিক্ষকের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে।
২৪ মার্চ,শুক্রবার ভোর ৪টায় ও একইদিন সন্ধ্যায় ওই দুই শিক্ষকের মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি করেছেন আন্দোলনরত শিক্ষকরা।
মারা যাওয়া দুই শিক্ষক হলেন- বরিশালের একটি প্রতিষ্ঠানের ধর্মীয় শিক্ষক মাও. মো: খলিলুর রহমান ও নওগাঁ জেলায় কর্মরত মো. গোলাম রাব্বানী।
আন্দোলনরত শিক্ষকদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, গত ১৫ মার্চ জাতীয়করণের আন্দোলনে যোগ দেন পঞ্চগ্রাম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ধর্মীয় শিক্ষক খলিলুর রহমান। তিনি হৃদরোগের সমস্যায় ভুগছিলেন। গত ২০ মার্চ আন্দোলন চলাকালীন গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে বাড়িতে পাঠিয়ে দিলে শুক্রবার ভোরে তিনি মারা যান।
অন্যদিকে জাতীয়করণের দাবিতে চলা আন্দোলনে গত শুক্রবার অসুস্থ হয়ে পড়েন নওগাঁর রানীনগর উপজেলার কুজাইল বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক গোলাম রাব্বানী। চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার সন্ধ্যায় না ফেরার দেশে পাড়ি জমান তিনি।
আন্দোলনরত দুই শিক্ষকের মৃত্যুর বিষটি শনিবার বিকালে করেছেন এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারী জাতীয়করণ প্রত্যাশী মহাজোটের সদস্যসচিব জসিম আহমেদ।
তিনি বলেন, এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের জাতীয়করণের আন্দোলনে এসে আমাদের দুই সহযোদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। আমরা তাদের মৃত্যুতে দমে যাইনি। তাদের মৃত্যু এভাবে বৃথা যেতে দেব না। জাতীয়করণের দাবি আদায় করেই ঘরে ফিরব।
আন্দোলনে অংশ নেয়া আরেক শিক্ষক জানান,আমাদের সহযোদ্ধা দুজন শিক্ষকের মৃত্যু হলেও উপর মহল এখনো নিশ্চুপ।জাতি গড়ার কারিগর শিক্ষকেরা রাস্তায় পড়ে মরছে অথচ তাঁরাই যে জাতিকে তৈরি করল সে জাতি নিশ্চুপ।
উল্লেখ্য যে, এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের জাতীয়করণের দাবিতে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছেন শিক্ষক-কর্মচারীরা। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত তাদের এই কর্মসূচি চলবে বলেও জানিয়েছেন সংগঠনটির নেতাকর্মীরা।

শেয়ার করুন

সম্পর্কিত সংবাদ