নুরুজ্জামান 'লিটন' - (Naogaon)
প্রকাশ ১০/১১/২০২২ ০২:৩০পি এম

নওগাঁর ধামইরহাটে মানবপাচার চক্রের প্রতারক পিতাপুত্র আটক

নওগাঁর ধামইরহাটে মানবপাচার চক্রের প্রতারক পিতাপুত্র আটক
ad image
নওগাঁ জেলার ধামইরহাটে মানবপাচার চক্রের দুই প্রতারককে গ্রেফতার করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)।
১০ নভেম্বর,বৃহস্পতিবার ভোরে ধামইরহাট উপজেলার ফতেপুর বাজারে পানহাটি এলাকা থেকে এ চক্রের হোতা বাবা-ছেলেকে গ্রেফতার করা হয়। র‍্যাব-৫ জয়পুরহাট ক্যাম্প থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এ তথ্য জানা যায়।
গ্রেফতাররা হলেন- ধামইরহাট থানার চকভবানী গ্রামের বাসিন্দা আবুল কালাম আজাদ(৬০) ও তার ছেলে আবুল হাসনাত (৩৭)।
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়- ধামইরহাট থানার চকভবানী গ্রামের আবুল কালাম আজাদের ছেলে আবুল হায়াত একজন সৌদি প্রবাসী। আবুল হায়াতকে ব্যবহার করে তার বাবা আবুল কালাম আজাদ ও ভাই আবুল হাসনাত বিদেশে উচ্চ বেতনে চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দিয়ে এলাকার অনেকের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নিতেন। পাশের গ্রামের অহিদুল ইসলাম (৩৫) নামে যুবককে উচ্চ বেতনের চাকরি দেওয়ার লোভ দেখিয়ে বিদেশে পাঠানোর নামে চার লাখ ৮০ হাজার টাকা নেন। পরে অহিদুল ইসলামকে তারা টুরিস্ট ভিসায় সৌদি আরবে পাঠান।
সৌদিতে যাওয়ার পর ভুক্তভোগী অহিদুল ইসলামকে একটি অফিসে নিয়ে যাওয়া হয়। যেখানে একটি স্টোর রুমে প্রায় দুই শতাধিক মানুষ দেখেন অহিদুল। পরে তিনি জানতে পারেন ভুয়া একটি কোম্পানির মাধ্যমে পাচার হয়ে বিদেশে এসেছেন এবং তারা তাকে টুরিস্ট ভিসায় নিয়ে এসেছে। টুরিস্ট ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়ার পর তিনি সৌদি পুলিশের ভয়ে দীর্ঘদিন পালিয়ে ছিলেন। অবশেষে সৌদি পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়ে ২০ দিন কারাভোগ শেষে সৌদি সরকার তাকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠায়।
এতে ভুক্তভোগী অহিদুল অর্থনৈতিক, শারীরিক ও মানসিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হন। এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী অহিদুল অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে র‍্যাব ক্যাম্প জয়পুরহাটে একটি অভিযোগ করেন। অভিযোগের পর ছায়া তদন্ত শুরু করে র‍্যাব।
পরে র‍্যাব-৫ জয়পুরহাট ক্যাম্পের কোম্পানি অধিনায়ক মেজর মো. মোস্তফা জামান এবং আর্টিলারি ও সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. মাসুদ রানার নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে ভোরে উপজেলার ফতেপুর বাজারে পানহাটি এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করে। এসময় তাদের কাছ থেকে একটি টুরিস্ট ভিসা, একটি পাসপোর্ট ও সৌদি কারাগারের মুক্তিপত্র উদ্ধার করা হয়।
ধামইরহাট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কাজী মোজাম্মেল হক বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনায় ভুক্তভোগী অহিদুল ইসলাম মানবপাচার আইনে দুই জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। তাদের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ