নুরুজ্জামান 'লিটন' - (Naogaon)
প্রকাশ ০২/১০/২০২২ ০৯:৫৭এ এম

বদলগাছী যুব উন্নয়ন কর্মকর্তার বাড়িতে ইউনিভার্সিটির ছাত্রীর বিয়ের দাবিতে অনশণ

বদলগাছী যুব উন্নয়ন কর্মকর্তার বাড়িতে ইউনিভার্সিটির ছাত্রীর বিয়ের দাবিতে অনশণ
ad image
নওগাঁ জেলার মান্দায় বিয়ের দাবি নিয়ে বেসরকারি একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী (২৩) দুইদিন ধরে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন করছেন। বিয়ের দাবি পুরণ না হওয়া পর্যন্ত অনশন চালিয়ে যাওয়াসহ আত্মহত্যার হুমকিও দিয়েছেন তিনি।

প্রেমিক যুবকের নাম মিঠুন কুমার মণ্ডল (৩২)। তিনি উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের পারইটুঙ্গী গ্রামের বিমল চন্দ্র মণ্ডলের ছেলে। নওগাঁ জেলার বদলগাছী উপজেলা যুবউন্নয়ন অধিদপ্তরে সহকারী কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত আছেন তিনি।

ভুক্তভোগী তরুণী জানান, ফেসবুকের মাধ্যমে প্রায় এক বছর আগে মিঠুন কুমারের সঙ্গে তাঁর পরিচয় হয়। এক পর্যায়ে তাঁদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। প্রেমের সূত্র ধরে মিঠুন রাজশাহী শহরে তাঁর সঙ্গে একাধিকবার দেখা সাক্ষাত করেন।

ওই তরুণী আরও বলেন, ‘গত ২২ আগস্ট সন্ধ্যার দিকে মিঠুন আমাকে রাজশাহী শহরের বোয়ালিয়া থানার পাশে একটি ছাত্রাবাসে নিয়ে যান। মিঠুনের মামাতো ভাই রকি ওই ছাত্রবাসে থেকে লেখাপড়া করতেন। ওই রাতে আমি ও মিঠুন একই কক্ষে রাতযাপন করেছি। এসময় বিয়ের প্রলোভন দিয়ে মিঠুন আমার সঙ্গে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্কে মিলিত হন।’

তরুণী অভিযোগ করে বলেন, ‘এরপর থেকে মিঠুন আমার সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন। মোবাইল ফোনও রিসিভ করেন না। এ অবস্থায় অনেক কষ্টে মিঠুনের গ্রামের ঠিকানা সংগ্রহ করেছি। এখন বিয়ের দাবিতে অনশন করছি। দাবি পূরণ না হলে এখানেই আত্মাহুতি দিব।’

বিষ্ণুপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য বেলাল হোসেন বলেন, সংবাদ পেয়ে শনিবার সন্ধ্যার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই তরুণীকে বোঝানোর চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু তরুণী বিয়ের দাবিতে অনঢ় রয়েছে। অবস্থা বিবেচনায় প্রামপুলিশ পাহারায় প্রতিবেশী সুকেশ চন্দ্র মণ্ডলের বাড়িতে রাখা হয়েছে তাঁকে। বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও মান্দা থানার ওসিকে অবহিত করা হয়েছে।

মান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহিনুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মেয়েটি মামলা করতে চাইলে সবধরণের আইনি সহায়তা দেওয়া হবে।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ