নুরুজ্জামান 'লিটন' - (Naogaon)
প্রকাশ ১৬/০৯/২০২২ ১০:৫৫পি এম

নওগাঁর পোরশা খাদ্য পরিদর্শকের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

নওগাঁর পোরশা খাদ্য পরিদর্শকের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা
ad image
নওগাঁ জেলার পোরশা উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কার্যালয়ের পরিদর্শক অহিদুল ইসলামের বিরুদ্ধে জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।
মামলায় অহিদুল ইসলামের মোট এক কোটি ১৩ লাখ ৬১৭ টাকার সম্পদ উল্লেখ করা হয়। এরমধ্যে ৮২ লাখ ৬৮ হাজার ৫২৭ টাকা জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

১৫ সেপ্টেম্বর,বৃহস্পতিবার বিকেলে দুদক সমন্বিত নওগাঁ জেলা কার্যালয় সূত্রে এতথ্য জানা গেছে।
দুদক বলছে, খাদ্য পরিদর্শক অহিদুল ইসলাম অবৈধ উপায়ে ৮২ লাখ ৬৮ হাজার ৫২৭ টাকা উপার্জন করেছেন, যা তার জ্ঞাত আয়ের সঙ্গে অসঙ্গতিপূর্ণ। এছাড়া অহিদুল ইসলাম যে সম্পদ বিবরণী দাখিল করেছেন, তা যাচাই-বাছাই করে অসঙ্গতি পাওয়া গেছে। তিনি ৫০ লাখ ৯১ হাজার ৬১৭ টাকার সম্পদের তথ্য গোপন করেছেন। এ ধরনের কর্মকাণ্ড শাস্তিযোগ্য অপরাধ।
জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অপরাধে মঙ্গলবার (১৩ সেপ্টেম্বর) অহিদুলের বিরুদ্ধে মামলা করেন দুদক সমন্বিত নওগাঁ কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক তানভীর আহমেদ।

মামলার এজহারে উল্লেখ করা হয়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দুদক পোরশা উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কার্যালয়ের খাদ্য পরিদর্শক অহিদুল ইসলামের সম্পদের হিসাব বিবরণী তলব করে। এর পরিপ্রেক্ষিতে তার জ্ঞাত আয় হিসেবে ২৯ লাখ টাকা মূল্যের স্থাবর এবং ৩৩ লাখ ৬০ হাজার টাকা মূল্যের অস্থাবরসহ মোট ৬২ লাখ ৬০ হাজার টাকার সম্পদ রয়েছে বলে দাখিল করা সম্পদ বিবরণীতে উল্লেখ করেন অহিদুল।

পরবর্তী সময়ে অনুসন্ধান চালিয়ে প্রাথমিক পর্যায়ে ৩৯ লাখ ১৭ হাজার ৪১০ টাকা স্থাবর ও ৫৮ লাখ ৮৪ হাজার ২০৭ টাকা অস্থাবর সম্পদ মিলিয়ে মোট ৯৮ লাখ ১ হাজার ৬১৭ টাকা মূল্যের সম্পদের সন্ধান পায় দুদক। পরে আরও অনুসন্ধান করলে দুদক তার স্থাবর-অস্থাবর মিলিয়ে মোট এক কোটি ১৩ লাখ ৫১ হাজার ৬১৭ টাকার সম্পদের তথ্য পায়।

খাদ্য পরিদর্শক অহিদুল ইসলামের বাড়ি নওগাঁর মান্দা উপজেলার চক সিদ্ধেশরী গ্রামে। বর্তমানে নওগাঁ শহরের উকিলপাড়া এলাকায় ভিআইপি টাওয়ার নামের একটি বহুতল ভবনে বসবাস করে আসছেন।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ