নুরুজ্জামান 'লিটন' - (Naogaon)
প্রকাশ ১০/০৬/২০২২ ০৩:১৬এ এম

নওগাঁয় ঘরের মেঝেতে পুঁতে রাখা এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার;আটক-৩

নওগাঁয় ঘরের মেঝেতে পুঁতে রাখা এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার;আটক-৩
ad image
নওগাঁ জেলার রানীনগরে নির্মাণাধীন ঘরের মেঝেতে পুঁতে রাখা হজরত আলী (২৩) নামের এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সেই সঙ্গে হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে তিনজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।

থানা পুলিশ বলছে, আটককৃতদের মধ্যে নাহিদ (২৪) নামের এক যুবক এই হত্যাকাণ্ডের মূল মাস্টার মাইন্ড। হজরতের প্রিয় বন্ধু ছিলেন নাহিদ। তার ঘরের মেঝেতেই পুঁতে রাখা লাশ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। খবর পেয়ে নওগাঁর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) গাজিউর রহমান ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) রাকিবুল ইসলাম ইবনে রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

ঘটনা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার সদর ইউনিয়নের পূর্ব বালুভরা গ্রামের জমসেদ আলীর ছেলে হজরত আলীর (২৩) সঙ্গে প্রতিবেশী রেজ্জাকুলের ছেলে নাহিদের বন্ধুত্ব ছিল। সেই সুবাদে নাহিদের সাথে চলাফেরা করাসহ রাতে তার বাড়িতেই থাকতেন হজরত। প্রায় পাঁচ দিন ধরে হজরত রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হন। তার পরিবারের সদস্যরা সম্ভাব্য সকল স্থানে খুঁজে তাকে না পেয়ে অবশেষে বৃহস্পতিবার দুপুরে হজরতের বাবা জমসেদ রানীনগর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করার জন্য যান।
এ সময় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বিষয়টি শুনে তাদের থানায় রেখে নাহিদের বাড়িতে সাদা পোশাকে অভিযান চালিয়ে নাহিদকে আটক করে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য প্রদান করেন নাহিদ। এর সূত্র ধরে পুলিশ নাহিদের নির্মাণাধীন একটি ঘরের মেঝেতে পুঁতে রাখা হজরতের লাশ উদ্ধার করে নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়।

হজরত আলীর ফুফু দেলেরা বিবি বলেন, 'আমার ভাতিজা অভাব-অনটনের সংসারে জীবন-জীবিকার তাগিদে অটোচার্জার ভ্যান চালাত। গত শুক্রবার রাতে স্থানীয় একটি গ্যারেজে ব্যাটারি চার্জ দেওয়ার জন্য ভ্যান রেখে যায়। এর পর থেকে হজরত নিখোঁজ হয় এবং ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। অনেক খোঁজাখুঁজি করে তাকে পাওয়া যায়নি। কিন্তু হজরত নাহিদের সাথে চলাফেরাসহ তার বাড়িতেই থাকত। তার কাছ থেকে হজরতের খোঁজ জানার অনেক চেষ্টা করেছি কিন্তু পাইনি।

রানীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহীন আকন্দ জানান, হজরত এবং নাহিদ দুজন ভালো বন্ধু ছিলেন। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বাড়ির মালিক নাহিদসহ আরো দুজনকে আটক করা হয়েছে। তবে নাহিদ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিলে তার নির্মাণাধীন ঘরের মেঝেতে পুঁতে রাখা হজরতের লাশ উদ্ধার করা হয়। এ বিষয়ে থানায় মামলার প্রক্রিয়া চলমান।

শেয়ার করুন

ad image

সম্পর্কিত সংবাদ